kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

৫০ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড়

ঈদ কেনাকাটায় বাড়ছে ই-পেমেন্ট

শেখ শাফায়াত হোসেন   

১৬ জুলাই, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ৬ মিনিটে



ঈদ কেনাকাটায় বাড়ছে ই-পেমেন্ট

ঈদের বাজার নিজেদের দখলে নিতে নানা ধরনের অফার আর মূল্যছাড়ের লড়াইয়ে মেতে উঠেছে দেশের শীর্ষ ব্র্যান্ড শপগুলো। আর সেই লড়াইয়ে নতুন মাত্রা দিচ্ছে বিভিন্ন ব্যাংক। নিরাপদ আর সহজ লেনদেন সুবিধার ফলে দেশে ই-পেমেন্ট (ইলেকট্রনিক পেমেন্ট) দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আর এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে নিজেদের গ্রাহক বাড়ানো চেষ্টা করছে ব্যাংকগুলো। ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড দিয়ে পণ্য কেনাকাটা ও বিল পরিশোধের ওপর ব্যাংকভেদে ১০ থেকে সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড় দিয়ে যাচ্ছে এসব ব্র্যান্ড শপ।

আড়ং, অ্যাপেক্স, বাটা, রিচম্যান, ক্যাটস আই, মেনজ ক্লাব, টপটেন, আপন জুয়েলার্স ও ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের মতো নামিদামি সব ব্র্যান্ডের শপ থেকে কেনাকাটা করে ক্রেডিট ও ডেবিড কার্ডে মূল্য পরিশোধ করলেই মিলবে এই ছাড়।

এবারই প্রথম ঈদ উপলক্ষে ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে কেনাকাটায় ছাড় নিয়ে এসেছে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড। কার্ডধারীদের জন্য দেশের নামকরা প্রায় ১৫০টির মতো ব্র্যান্ড শপ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়ে পণ্য কেনার সুযোগ দিচ্ছে ব্যাংকটি। জানতে চাইলে ন্যাশনাল ব্যাংকের কার্ড ডিভিশনের প্রধান কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, নামকরা ১৫০টির মতো ব্র্যান্ড শপ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়ে পণ্য কেনার সুযোগ দিচ্ছে ন্যাশনাল ব্যাংক।

শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের কার্ড ডিভিশনের প্রধান মো. ফকরুল বলেন, অনলাইন কেনাকাটায় ছাড়ের টাকাটা মূলত কম নিচ্ছে ব্র্যান্ড শপগুলো। ব্যাংকের সঙ্গে ব্র্যান্ড শপগুলোর চুক্তি থাকে। সেই চুক্তির আওতায় এই ছাড় দেওয়া হয়।

লাইফস্টাইল এবং ডাইনিংয়ে মাস্টারকার্ডের ছাড় : মাস্টারকার্ড রমজান মাসজুড়ে লাইফস্টাইল এবং ডাইনিংয়ে বিশেষ ছাড় দিচ্ছে। ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডে ১০০টিরও বেশি আউটলেটে সর্বোচ্চ ৪০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে মাস্টারকার্ড। যেসব আউটলেটে মাস্টারকার্ডে এ বিশেষ অফার দিচ্ছে ডি' ডামাস, গীতাঞ্জলি জুয়েলার্স, ফিওর, স্টাইলসেল, ও'কোড, ওমেন্স ওয়ার্ল্ড, অহং, ম্যান ওয়ান, পশ অ্যান্ড পিংক, অরভিস, ডোরস, নাবিলা, সেলাই ঘর, ট্রাডিশন, জারা, সিজনস, ডিভা বাংলাদেশ, নেহা ফ্যাশন মল, ওজি, মাটিয়াস, ওটু, অ্যাডরয়েট, সেলিব্রেশন, কেজি, প্লাস পয়েন্ট, ডিভন ফ্যাশন, মাহিনস কালেকশন, মাহজাবিনস, ম্যাকয় এবং ভিক্সা।

এ ছাড়া ইফতার ও সেহরিতে মাস্টারকার্ড ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডহোল্ডাররা পাচ্ছেন শীর্ষ ২০টি রেস্টুরেন্টে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। মাস্টারকার্ডের পার্টনার রেস্টুরেন্টেগুলো হচ্ছে আঙ্গার, বাইতি, ব্রকলি গার্ডেন, চারকোল স্টেক হাউস, ক্রসরোড, এল টোরো, মিরাজ, অলিম্পিয়া প্যালেস, পাঞ্জাব কিচেন, সল্টজ, সয়াস্দি, স্পিট ফায়ার, স্টেক হাউস, রয়্যাল কুইজিন, ব্লু হরাইজন বিস্ত্রো, বার্গার ওয়ার্ল্ড, ফ্লেভারস, কড়াই গোস্ত, রাইস অ্যান্ড নুডলস এবং রোজবাড রেস্টুরেন্ট।

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল বলেন, 'রমজানকে সামনে রেখেই এই অফারটি চালু করা হয়েছে। কারণ উৎসবকে ঘিরেই সবাই কেনাকাটা এবং খাওয়াদাওয়ায় সবচেয়ে বেশি খরচ করে। এ অফারটি মাস্টারকার্ড ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে সবাইকে আরো বেশি উৎসাহিত করবে। আমরা আশা করি, মাস্টারকার্ড গ্রাহকরা কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে এ আকর্ষণীয় অফারটি ভোগ করবেন, যা ফলস্বরূপ ইলেকট্রনিক লেনদেনকে আরো সম্প্রসারিত করবে।'

ইস্টার্ন ব্যাংকের ছাড় : ঈদের কেনাকাটায় দেশের নামিদামি ২৮টি ব্র্যান্ড শপে পণ্য ক্রয়ে ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের যেকোনো কার্ডের ওপর দিচ্ছে ৫ থেকে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড়। পোশাকের ব্র্যান্ডের মধ্যে রয়েছে মেনজ ক্লাবে ১২ শতাংশ, রিচম্যান, লুবনান, দর্জিবাড়ি, জ্যোতি ও রঙে ৫ শতাংশ এবং স্মার্টটেক্সে ১০ শতাংশ। জুয়েলারি শপের মধ্যে আপন জুয়েলার্সে ৩০ শতাংশ এবং ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডে ২০ শতাংশ ছাড়। অ্যাপেক্স জুতা কিনলে পাচ্ছেন ১০ শতাংশ ছাড়। গীতাঞ্জলি থেকে পোশাক কিনলে মিলবে ৩৫ শতাংশ ছাড়।

ন্যাশনাল ব্যাংকের ছাড় : ন্যাশনাল ব্যাংক দিচ্ছে নামকরা ১৫০টির মতো ব্র্যান্ড শপ থেকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়ে পণ্য কেনার সুযোগ। এগুলোর মধ্যে রয়েছে গুলশান শাড়িতে ৩০ শতাংশ, আর্টিস্টিতে ১০ শতাংশ, বিন্দুর পোশাকে ১০ শতাংশ, জারা ফ্যাশনসে ১০ শতাংশ এবং টপটেনে ৫ শতাংশ।

ব্র্যাক ব্যাংকের ছাড় : আড়ং, নবরূপা, রঙ, অঞ্জনস, আর্টিস্টি, কে-ক্রাফট, লোটোসহ প্রায় ২০টি ব্র্যান্ড শপ থেকে পণ্য ক্রয়ে ব্র্যাক ব্যাংক দিচ্ছে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড়। ব্যাংকের ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধে ক্রেতারা এ সুবিধা পাবে। এ ছাড়া আগোরা, স্বপ্ন ও মীনা বাজার থেকে সর্বোচ্চ তিন হাজার টাকার যেকোনো পণ্য কিনলে ক্রেতারা সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক পাবে।

সিটি ব্যাংকের ছাড় : সিটি ব্যাংকের আমেরিকান এক্সপ্রেস কার্ডধারী গ্রাহকরা পাচ্ছেন ১৮টি ব্র্যান্ড শপ থেকে সর্বোচ্চ ১৭ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক অফার। এর মধ্যে অঞ্জনসে ১০ শতাংশ, আর্টিস্টিতে ১২ শতাংশ, এক্সটেসিতে ১০ শতাংশ, জেন্টেল পার্ক, জারাতে ১৭ শতাংশ, কে-ক্রাফট (দেশি দশের আউটলেট ছাড়া) ১০ শতাংশ, ভাসাবিতে ১০ শতাংশ ছাড় চলছে।

শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের ছাড় : জারা, আর্টিস্টি, আর্টিজনসহ প্রায় ২৬টি ব্র্যান্ড শপে পণ্য ক্রয়ে শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক দিচ্ছে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট। এর মধ্যে জারাতে নির্দিষ্ট পণ্যের ওপর ১০ শতাংশ এবং আর্টিস্টিতে সব পণ্যের ওপর ১০ শতাংশ ছাড়।

প্রাইম ব্যাংকের ছাড় : পোশাক, জুয়েলারি, হোটেল ও রেস্তোরাঁ, বিউটি কেয়ার, চিকিৎসাসহ ৮০ থেকে ৮৫ ধরনের ব্র্যান্ডের পণ্য ক্রয়ে ৫ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে প্রাইম ব্যাংক। পোশাকের মধ্যে রয়েছে নীল আঁচলে ৫ শতাংশ, জামদানি কুটিরে ১৫, নিখুঁত ক্রাফটে ১০, রাজশাহী সিল্কে ১০ শতাংশ প্রভৃতি। জুয়েলারির মধ্যে রয়েছে গীতাঞ্জলি ৩০, আমিন জুয়েলার্সে ২৫, শেল ডিজাইনে ১০ শতাংশ, নিউ সিলভার প্যালেসে ৫০ শতাংশ ছাড় চলছে। বিকাশের ক্যাশ ব্যাক : মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশের মাধ্যমে দেশব্যাপী ৩৮১টি আউটলেটে কেনাকাটায় সর্বোচ্চ ২০ শতাংশ ক্যাশ ব্যাক পাওয়া যাবে। এর মধ্যে আড়ং, ইউলো, ক্যাটস আই, স্বপ্ন লাইফে ১০ শতাংশ এবং লোটো, আম্বার লাইফস্টাইল, জেনিস, কে-ক্রাফটসহ নামকরা বেশ কয়েকটি শোরুম থেকে পোশাক কেনাকাটায় ২০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক পাওয়া যাবে।



সাতদিনের সেরা