kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

বিশ্বের শীর্ষ ধনী নারী ফ্রাঁসোয়া মেসার বললেন

শীর্ষে উঠতে চাই সময়ের মর্যাদা

উদ্যোক্তা

বাণিজ্য ডেস্ক   

২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শীর্ষে উঠতে চাই সময়ের মর্যাদা

এলওরিয়ালের চেয়ারউম্যান ফ্রাঁসোয়া বেটেকোর মেসার

তিনি একাধারে ব্যবসায়ী এবং একজন লেখক। ধর্মীয় বিষয়াদি নিয়ে লেখালেখির পাশাপাশি উদ্যোক্তা হিসেবেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন। ফরাসি প্রসাধন কম্পানি এলওরিয়ালের চেয়ারউম্যান ফ্রাঁসোয়া বেটেকোর মেসার বর্তমান বিশ্বের শীর্ষ ধনী নারী। ফোর্বস ম্যাগাজিনের ২০১৯ সালের হিসাব অনুযায়ী তাঁর সম্পদের পরিমাণ ৪৯.৩ বিলিয়ন ডলার। তিনি সার্বিক হিসাবে বিশ্বের ১৫তম ধনী।

মেসার এলওরিয়ালের প্রতিষ্ঠাতা ইউজেন সুয়েলারের নাতনি। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে তাঁর মা লিলিয়ানে বেটেকোর মৃত্যুর পর উত্তরাধিকার সূত্রে কম্পানির চেয়ারউম্যান ও সম্পদের মালিক হন। সে সূত্রে ২০১৮ সাল থেকে ফোর্বস ম্যাগাজিনের বিলিয়নেয়ার তালিকায়ও উঠে আসে তাঁর নাম।

এলওরিয়ালে ফ্রাঁসোয়া মেসার ও তাঁর পরিবারের শেয়ার ৩৩ শতাংশ। ফলে কম্পানির সাফল্যের সূত্র ধরে গত এক বছরে মেসারের সম্পদ বেড়েছে ৭.১ বিলিয়ন ডলার বা ১৭ শতাংশ। গত বছর কম্পানির রাজস্ব আসে ৩০.৬ বিলিয়ন ডলার, শুধু এশিয়া প্যাসিফিকেই রাজস্ব বাড়ে ২০ শতাংশ। বলা হয়, তাঁর নেতৃত্বের গুণে গত বছর কম্পানি অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো করেছে।

ফ্রাঁসোয়া বেটেকোর মেসার প্যারিসে থাকেন। পারিবারিক প্রতিষ্ঠান বেটেকোর সুয়েলারেরও দায়িত্বে আছেন তিনি। ব্যবসায়ী পরিচয়ের বাইরে মেয়ার্স একজন লেখকও। তিনি গ্রিক দেবতাদের নিয়ে লিখেছেন, ইহুদি-খ্রিস্টান সম্পর্ক নিয়েও গ্রন্থ রচনা করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য তিনটি গ্রন্থ হচ্ছে—দ্য গ্রিক গডস, অ্যা লুক অ্যাট দ্য বাইবেল এবং ফ্যামিলি ট্রি অব অ্যাডাম ইভ, অ্যান্ড দ্য ট্রাইভস অব ইসরাইল।

তরুণ উদ্যোক্তাদের উদ্দেশে ফ্রাঁসোয়া বেটেকোর মেসারের তিনটি উপদেশ হচ্ছে—

সময়কে মূল্য দাও : তোমার সময় হচ্ছে সবচেয়ে বড় সম্পদ এবং এই একটি জিনিস, যা তুমি হারালে আর ফেরত পাবে না। যদি শীর্ষে উঠতে চাও তবে সময়ের মর্যাদা তোমাকে বুঝতে হবে। এটি আবশ্যক যে তুমি জীবনে যে জিনিসটিকে সবচেয়ে বেশি মূল্যবান মনে করো তার অগ্রাধিকারে রাখ জীবন ও ব্যবসাকে।

লেগে থাক : তুমি যা জান ওই কাজে লেগে থাক। উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর পাশাপাশি নতুন কোনো আইডিয়া জানা বা বোঝার জন্য মনকে খোলা রাখ, এটা তোমার মধ্যে বড়ত্ব তৈরি করবে। তুমি নিজের জন্য সুযোগও তৈরি করে নিতে পারবে, এভাবে তোমার দিগন্ত বিস্তৃত হবে।

ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা : আমার জীবনের সবচেয়ে বড় শিক্ষা অর্জন করেছি ব্যর্থতা, প্রতিক্রিয়া এবং পরাজয় থেকে। যদিও এগুলো অনেক কষ্টকর কিন্তু আমার মধ্যে সচেতনতা তৈরি করেছে। যদি তুমি সব সময় চোখ বন্ধ করে থাক তবে তোমার দৃষ্টিভঙ্গি ক্ষুদ্র হয়ে যাবে তুমি প্রতিশ্রুতিশীল অনেক সম্ভাবনা হারাবে। প্যারিসে সম্প্রতি ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নটর ডেম ক্যাথেড্রাল পুড়ে গেলে তা পুনর্নির্মাণে ২০০ মিলিয়ন ইউরো (২২৬ মিলিয়ন ডলার) দানের ঘোষণা দিয়েছেন। এ অর্থ আসবে বেটেকোর ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে। ফোর্বস ম্যাগাজিন, সিএনএন মানি, উইকিপিডিয়া।

মন্তব্য