kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ট্রাম্পের কর ছাড় ব্যবসায় বড় প্রভাব ফেলেনি

বাণিজ্য ডেস্ক   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অনেকটা রাখঢাক করেই করপোরেট কর কমিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বলেছিলেন এতে কম্পানিগুলো দেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত হবে, বাড়বে কর্মসংস্থান। কিন্তু এখন জরিপ বলছে, খুব একটা বেশি কাজে দেয়নি ধনী ব্যবসায়ীদের দেওয়া ট্রাম্পের এ ছাড়।

যুক্তরাষ্ট্রের কর ছাড় নিয়ে জরিপ ও দীর্ঘ পর্যালোচনা শেষে ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব বিজনেস ইকোনমিকস’ (এনএবিই) এক প্রতিবেদনে জানায়, ট্রাম্প প্রশাসনের ১.৫ ট্রিলিয়ন ডলারের কর ছাড় প্যাকেজ ব্যবসায় বড় প্রভাব ফেলেনি। এতে বিনিয়োগ কিংবা কর্মসংস্থান কোনোটিই পর্যাপ্ত বাড়েনি।

সম্প্রতি প্রকাশিত এ জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়, স্বল্পসংখ্যক কম্পানি জানিয়েছে করপোরেট কর কমায় তাদের বিনিয়োগ কিছুটা বেড়েছে। ৮৪ শতাংশ ব্যবসায়ী জানিয়েছে, তাদের পরিকল্পনায় কোনো পরিবর্তন আসেনি।

২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ট্রাম্পের দেওয়া কর ছাড়া কার্যকর হয়। ওই সময় করপোরেট কর ৩৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২১ শতাংশ করা হয়। বিরোধীরা এর সমালোচনা করলেও হোয়াইট হাউস তখন বলেছিল করপোরেট কর ছাড়ের কারণে ব্যবসায় বিনিয়োগ বাড়বে, ফলে কর্মসংস্থানে বড় প্রবৃদ্ধি আসবে।

এনএবিই প্রেসিডেন্ট কেভিন সুইফট বলেন, উত্তরদাতাদের সিংহভাগ অর্থাৎ ৮৪ শতাংশই জানিয়েছে, করপোরেট কর ছাড় দেওয়ার এক বছর পর তাদের বিনিয়োগ পরিকল্পনায় পরিবর্তন আসেনি, কর্মসংস্থানেও না। তবে পণ্য উৎপাদন খাতে এর কিছুটা প্রভাব পড়েছে। ৫০ শতাংশ উত্তরদাতা জানিয়েছে, তাদের কম্পানিতে বিনিয়োগ বেড়েছে। ২০ শতাংশ প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, তারা বিনিয়োগ বিদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে এসেছে এবং কর্মীও বাড়িয়েছে।

এনএবিইর জরিপে আরো বলা হয়, ২০১৮ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে ব্যবসায় বিনিয়োগ কিছুটা বাড়লেও চতুর্থ প্রান্তিকে এসে তা আবার কমে যায়। এমনকি মূলধন বিনিয়োগ সূচক কমে ২০১৭ সালের জুলাইয়ের পর থেকে সর্বনিম্ন হয়। তবে চতুর্থ প্রান্তিকে আগের প্রান্তিকের চেয়ে কর্মসংস্থানে কিছুটা প্রবৃদ্ধি হয়েছে। রয়টার্স।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা