kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৯ নভেম্বর ২০২২ । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাজকুমার রঞ্জন সিং ঢাকায়

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাজকুমার রঞ্জন সিং ঢাকায়

রাজকুমার রঞ্জন সিং

ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাজকুমার রঞ্জন সিং গতকাল বুধবার ঢাকায় এসেছেন। বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশন জানায়, ‘ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের (আইওআরএ)’ ২২তম মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নিতে ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এ সফর করছেন।

বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা গতকাল ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। রাজকুমার রঞ্জন সিং ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন।

বিজ্ঞাপন

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, আইওআরএর বৈঠকে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পর্ককে আরো এগিয়ে নেওয়াও ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর এ সফরের লক্ষ্য। গত কয়েক সপ্তাহে দুই দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের সফর বিনিময় হচ্ছে। তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহ্মুদ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ভারত সফর করেছেন। অন্যদিকে আসামের বিধায়কদের একটি প্রতিনিধিদল গত সপ্তাহে বাংলাদেশ সফর করেছে। উচ্চ পর্যায়ের সফরের ধারাবাহিকতায় ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে এসেছেন। এই সফরে তিনি আজ বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী আইওআরএর মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেবেন। এর পাশাপাশি বৈঠকে অংশ নেওয়া মন্ত্রী পর্যায়ের অন্য অতিথিদের সঙ্গে তিনিও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা সম্প্রতি সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন নিশ্চিত করেছেন, বাংলাদেশ ভারতকে সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী হিসেবে বিবেচনা করে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ভারতের সক্রিয় সমর্থন প্রত্যাশা করেন।

ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বিনয় কাত্রা গত রবি ও সোমবার মিয়ানমার সফর করেছেন। সেই সফরে তিনি মিয়ানমারের জনগণের সুবিধার জন্য রাখাইন রাজ্য উন্নয়ন কর্মসূচি এবং সীমান্ত এলাকা উন্নয়ন কর্মসূচির অধীনে প্রকল্পগুলো অব্যাহত রাখার ব্যাপারে ভারতের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছেন। উল্লেখ্য, রোহিঙ্গাদের জন্য মিয়ানমারের রাখাইনে ভারত বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

এদিকে ভারত তার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় আগামী বছর জি২০ সম্মেলনে বাংলাদেশের সক্রিয় অংশগ্রহণ প্রত্যাশা করছে। ওই সম্মেলনের প্রস্তুতির জন্য বৈঠকেও বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। জোরালো বন্ধুত্ব ও সুসম্পর্কের নিদর্শন হিসেবে ভারত বাংলাদেশকে জি২০-এর শীর্ষ বৈঠকে আমন্ত্রণ জানাবে।

 



সাতদিনের সেরা