kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জার্মানির আকাশে জাপানের সূর্যোদয়

জার্মানি ১ : ২ জাপান

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জার্মানির আকাশে জাপানের সূর্যোদয়

জার্মানির জালে গোল দেওয়ার পর জাপানের ফুটবলারদের উল্লাস। ছবি : এএফপি

তাকুমা আসানো নাতি-নাতনিদের বলার মতো এক বীরত্বগাথা রচনা করেছেন গতকাল। নির্দোষ একটি লং বল নিখুঁত নিয়ন্ত্রণে নিয়ে তিনি পেছনে ফেলেন জার্মান ডিফেন্ডারকে। এরপর দুরূহ কোণ থেকে পরাস্ত করেন ম্যানুয়েল নয়ারকে। ঘুরেই তিনি দৌড় দেন গ্যালারির জাপান সমর্থকগোষ্ঠীর অংশে।

বিজ্ঞাপন

বলার অপেক্ষা রাখে না, ডাগআউট সুদ্ধ পুরো জাপান দল অনুসরণ করে তাঁকে। আর্জেন্টিনার পর আরেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি তখন শোকস্তব্ধ।

যেন আর্জেন্টিনা-সৌদি আরব ম্যাচের রি-টেক হলো গতকাল! শরীরের ভারসাম্য রাখতে না পেরে জার্মান ফরোয়ার্ডের ওপর গিয়ে পড়েছিলেন জাপানের গোলরক্ষক। ‘ভিএআর’ পর্যবেক্ষণের পর পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ৩৩ মিনিটে পাওয়া সেই সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করেননি ইলকে গুন্দোগান। এরপর আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ হয়েছে, তবে তাতে ম্যাচ শেষের পরিণতির কোনো পূর্বাভাস ছিল না। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে সৌদিদের মতোই উজ্জীবিত ফুটবল খেলেছে জাপান। গোল পাব-পাচ্ছি করেও পাচ্ছিল না শুধু। তবে সময় যত গড়িয়েছে, ততই ক্লান্ত দেখিয়েছে জার্মান রক্ষণভাগকে। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ৭২তম মিনিটে জাপানকে ম্যাচে ফেরান রিস্তু দোয়ান। ম্যাচে সমতা ফেরানোর পর দুই দলের ব্যবধান আরো স্পষ্ট হয়ে ওঠে। জার্মানির সামনে আরো বিপজ্জনক হয়ে ওঠা জাপান এগিয়ে যায় ম্যাচের ৮৩তম মিনিটে। আসানোর ব্যবধান গড়ে দেওয়া গোলের পর মরিয়া চেষ্টা করেছে জার্মানি। তবে ম্যাচের মোমেন্টাম তখন জাপানের দখলে। অন্তিম লগ্নে পাওয়া ফ্রি-কিকের সময় জার্মান গোলরক্ষক নয়ারও উঠে গিয়েছিলেন জাপানের বক্সে। কিন্তু উজ্জীবিত জাপানের রক্ষণদেয়ালে চিড় আর ধরাতে পারেনি জার্মানি। চারবারের চ্যাম্পিয়নরা গতবার ছিটকে গিয়েছিল প্রথম পর্ব থেকে। কাতারে হারল প্রথম ম্যাচেই। তাদের বাকি দুটি ম্যাচের প্রতিপক্ষ স্পেন ও কোস্টারিকা। বোধগম্য কারণে এই হারে কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি হয়ে পড়ল জার্মানি। এবারের বাস্তবতা অবশ্য সব বড় দলের জন্যই সমান—বিশ্বকাপে ছোট দল বলে কিছু নেই। অন্যদিকে দারুণ এই জয় নিশ্চিতভাবেই গ্রুপ পর্বের বাধা পার হওয়ার লড়াই সিলিন্ডার ভর্তি অক্সিজেন জোগাবে জাপানকে।

ওদিকে দিনের প্রথম ম্যাচে র্যাংকিংয়ে পিছিয়ে থাকা মরক্কোর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে ক্রোয়েশিয়া। এই পয়েন্ট খোয়ানো নিয়ে আক্ষেপ থাকলেও এখনই হতাশ নন ক্রোয়াট অধিনায়ক লুকা মডরিচ, ‘ম্যাচটা খুবই কঠিন ছিল। তবে আমি বিশ্বাস করি, টুর্নামেন্ট যত গড়াবে তত আমরা উন্নতি করব। আমরা এখানে কোনো রকমে খেলে বাড়ি ফিরে যেতে আসিনি। ’ বরং গত বিশ্বকাপের সাফল্য পেরিয়ে দৃষ্টি প্রসারিত মডরিচের, ‘রাশিয়ার চেয়েও ভালো কিছু করার লক্ষ্য নিয়ে এখানে এসেছি। তবে এখন একটা করে ম্যাচ ধরে এগোতে চাই। ’

তবে কাগজে-কলমে পিছিয়ে থাকলেও শুরুতে ক্রোয়েশিয়াকে চেপে ধরেছিল মরক্কো। কিন্তু তাদের সামনে বাধার প্রাচীর তুলে দিয়েছিলেন ক্রোয়েশিয়ার রক্ষণভাগের ‘নেতা’ ডেজান লভরেন। ক্রোয়াটরাও গোলের চেষ্টা করেছিল। ইভান পেরিসিচ কিংবা মডরিচের সেই চেষ্টাগুলোকে গোলের পরিষ্কার সুযোগ বলা যাবে না। সত্যি বলতে বোঝাই যায়নি মরক্কোর বিপক্ষে খেলছে বর্তমান রানার আপরা! শক্তিধর প্রতিপক্ষের কাছ থেকে ১ পয়েন্ট কেড়ে নিতে পেরে স্বভাবতই খুশি এ বছরের আগস্টে মরক্কোর কোচের দায়িত্ব নেওয়া ওয়ালিদ রেগ্রাগুই, ‘দারুণ একটা পয়েন্ট পেয়েছি। পরের দুটি ম্যাচে কাজে দেবে। ছেলেদের জন্য গর্ব হচ্ছে। এই ম্যাচ আমাদের আত্মবিশ্বাসও জোগাবে। ’

 



সাতদিনের সেরা