kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজন শঙ্কায়

নিহতদের পরিবার পাবে ৩২০০ ডলার করে

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৪ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজন শঙ্কায়

ফুটবলের সবুজ গালিচা রক্তে লাল। ইন্দোনেশিয়ায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই ক্লাব পেরসেবায়া-আরেমার ম্যাচ উপভোগ করতে এসে মারা গেছে অন্তত ১২৫ জন। এর প্রভাব পড়েছে দেশটির ক্রীড়াঙ্গনে। আগামী বছরের মে মাসে ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা দেশটিতে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু ফুটবল মাঠে নিরাপত্তাহনীতার শঙ্কায় সেটা এখন অনিশ্চিত। পুরো ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত রিপোর্ট পেশ করতে বলেছে ফিফা। সেই রিপোর্ট সন্তোষজনক না হলে আয়োজক স্বত্ব হারাতে পারে ইন্দোনেশিয়া।

শঙ্কার মেঘ জমেছে এশিয়ান কাপ ফুটবল ঘিরেও। টুর্নামেন্টটা হওয়ার কথা ছিল চীনে। করোনার প্রকোপে শেষ পর্যন্ত অপারগতা জানায় তারা। নতুন আয়োজকের জন্য দুই সপ্তাহ পর হতে যাওয়া বিডে ফেভারিট ছিল ইন্দোনেশিয়া। এই সময়ে স্টেডিয়ামে ব্যাপক প্রাণহানিতে বেঁকে বসতে পারে এএফসি।

২০১৮ এশিয়ান গেমসের আয়োজক ইন্দোনেশিয়া চায় ২০৩৬ অলিম্পিকের স্বাগতিক হতে। কিন্তু মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় সুতায় ঝুলে গেল সব। এ জন্য কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে ইন্দোনেশিয়া সরকার। দেশটির প্রধান নিরাপত্তামন্ত্রী মোহাম্মদ মাহফুদ বলেন, ‘পুলিশকে নির্দেশ দিচ্ছি, দোষীদের দ্রুত খুঁজে বের করে কঠোর শাস্তি দিতে। তাদের পরিচয় আনতে হবে প্রকাশ্যে। একই সঙ্গে পুলিশকে দেখতে হবে তাদের নিরাপত্তাব্যবস্থায় কোনো পরিবর্তন আনা যায় কি না। ’ ফিফার আইন অনুযায়ী মাঠে আগ্নেয়াস্ত্র বহন করা নিষেধ, এমনকি নিষেধাজ্ঞা আছে টিয়ার শেল নিক্ষেপেও। কিন্তু দর্শক মাঠে নেমে যাওয়ার পর দুটোই করেছিল ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ। তাতে অনেকেই চোখে দেখতে না পেয়ে মারা যান পদপিষ্ট হয়ে। নিহত ১২৫ জনের মধ্যে ছিল ৩২ জন খুদে সমর্থকও, যাদের বয়স তিন থেকে ১৭ বছরের মধ্যে।

মানুষের জীবনের মূল্য টাকা দিয়ে হয় না কখনো। তার পরও নিহত ১২৫ জনের প্রত্যেকের পরিবারের জন্য ৫০ মিলিয়ন ইন্দোনেশিয়ান রুপিয়া বা তিন হাজার ২০০ ডলার অনুদান ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো। দ্রুতই টাকাটা পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নিরাপত্তামন্ত্রী মোহাম্মদ মাহফুদ, ‘সমবেদনা হিসেবে প্রেসিডেন্ট নিহত প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৫০ মিলিয়ন রুপিয়া অনুদান দিয়েছেন। দু-এক দিনের মধ্যে পৌঁছে দেওয়া হবে এটা। ’

 



সাতদিনের সেরা