kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জেলা পরিষদ নির্বাচন

নড়াইলে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা, আহত ৮

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



নড়াইলে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা, আহত ৮

নড়াইল জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল সোমবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দের সময় এ ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত আট সমর্থক আহত হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিদ্রোহী প্রার্থী।

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন (১৭ অক্টোবর) গতকাল স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন।

বিজ্ঞাপন

সুনামগঞ্জে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নূরুল হুদা মুকুটকে জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গতকাল প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রচার মাঠে জোরেশোরে নেমে পড়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থী। প্রচারে নেমেছেন সদস্য প্রার্থীরাও।

নড়াইলে হামলা

নড়াইলে বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থীর সমর্থকদের অভিযোগ, নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা ও সদর থানার ওসিসহ পুলিশের সামনেই ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন নীরব ছিল। জানা গেছে, নির্বাচনে নড়াইল সদরের দুই সদস্য প্রার্থী খোকন সাহা ও ওবায়দুর রহমানের মধ্যে একই প্রতীক চাওয়া নিয়ে হট্টগোল চলছিল। এ সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থকরা বিদ্রোহী প্রার্থীর প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারীর ওপর হামলা চালায়। এর আগে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর একই প্রতীক (আনারস) চাওয়া নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়।

বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু বলেন, ‘আমার সমর্থনকারী সৈয়দ নওয়াব আলী প্রতীক আনতে যান। সেখানে আমার পক্ষের প্রায় ১৫ জন লোকের ওপর হামলা করা হয়। এতে কমপক্ষে আটজন সমর্থক আহত হন। ’ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সুবাস বোস বলেন, ‘একই প্রতীক নিয়ে বাগবিতণ্ডা হওয়ায় আমার লোকজনের সঙ্গে সামান্য হাতাহাতি হয়েছে। এটা অনাকাঙ্ক্ষিত। ’

নড়াইল সদর থানার ওসি মাহমুদুর রহমান বলেন, পুলিশ মারামারি ঠেকিয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান বলেন, ‘প্রার্থী লিখিত অভিযোগ করলে আমরা বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। ’

এদিকে দুই সদস্য প্রার্থীকে শোকজ করেছেন রিটার্নিং অফিসার।

নির্বাচন স্থগিত

গতকাল সন্ধ্যায় নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসক এ কে এম গালিভ খান স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সোমবার নির্বাচন কমিশন এক পত্রে হাইকোর্টে দায়ের করা একটি রিট পিটিশনের আদেশ প্রতিপালনার্থে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করার সিদ্ধান্ত দিয়েছে। সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. মোতাওয়াক্কিল রহমান বলেন, গোমস্তাপুর উপজেলার ফকিরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদের প্রার্থী শামিমা জাহান নির্বাচনী এলাকা নির্ধারণসংক্রান্ত আলোচ্য রিটটি দাখিল করেন।

প্রার্থীকে অব্যাহতি

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এম এনামুল কবির ইমন স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে বিদ্রোহী প্রার্থী নূরুল হুদা মুকুটকে অব্যাহতি দেওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানানো হয়। এতে বলা হয়, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে অবগত করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মুকুট দলীয় মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে গিয়ে প্রার্থী হয়ে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন। তবে নূরুল হুদা মুকুট বলেন, ‘জেলা কমিটির এখতিয়ার নেই আমাকে অব্যাহতি দেওয়ার। আমার বিজয় ছিনিয়ে নিতে ও ভোটারদের প্রভাবিত করতে এমন কাণ্ড করেছে তারা। ’

প্রচারের প্রথম দিনই উত্তাপ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল-মামুন সরকার পেয়েছেন আনারস প্রতীক। বিদ্রোহী প্রার্থী ও সর্বশেষ পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল আলম পেয়েছেন মোটরসাইকেল প্রতীক। গতকাল সকালে প্রতীক বরাদ্দের সময় শফিকুল আলমের সমর্থকরা মোটরসাইকেল মহড়া দেন বলে অভিযোগ করেছেন আল-মামুন সরকার। অন্যদিকে শফিকুল আলমের অভিযোগ, রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে ঢোকার সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর অতিরিক্ত লোকজন থাকায় তিনি বাধার সম্মুখীন হন এবং তাঁকে উদ্দেশ করে কটু কথা বলা হয়।

বিগত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ এ কে এম এমদাদুল বারীকে (প্রয়াত) পরাজিত করে শফিকুল আলম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এই ফল শফিকুলকে বেশ আশা জাগাচ্ছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ মনে করছে, প্রার্থী বাছাইয়ে ‘মুনশিয়ানা’ দেখানোয় এবার চেয়ারম্যান পদটি পাওয়া সম্ভব। দলের আরেক মনোনয়নপ্রত্যাশী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক পৌর মেয়র মো. হেলাল উদ্দিন বিদ্রোহী হিসেবে না থাকায় বিষয়টি আরো সহজ হয়েছে।

শফিকুল আলম বলেন, ‘দলের মনোনয়ন চাইলেও আমি বিদ্রোহী প্রার্থী নই। কারণ এটা নৌকা প্রতীক দিয়ে নির্বাচন না। ’

আল-মামুন সরকার বলেন, ‘বিদ্রোহী প্রার্থী শফিকুল আলম মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে আসেন, যা আচরণবিধির লঙ্ঘন। উনাকে কটূক্তি করার ঘটনা ঘটেনি। টাকা ছড়িয়ে তিনি প্রভাব বিস্তার করতে পারেন বলে আশঙ্কা করছি। ’ 

রিটার্নিং অফিসার ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম সাংবাদিকদের জানান, অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসন সব পদক্ষেপ নিয়েছে। যারা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠের চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নড়াইল, সুনামগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি]

 



সাতদিনের সেরা