kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

করোনার নতুন ধরন না এলে দ্রুতই শেষ হবে চতুর্থ ঢেউ

বিশেষ প্রতিনিধি   

১৮ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার নতুন ধরন না এলে দ্রুতই শেষ হবে চতুর্থ ঢেউ

করোনায় দেশে গত দুই দিনে মৃত্যুর কোনো ঘটনা নেই। নতুন পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার গত এক সপ্তাহে গড়ে ৫ শতাংশের নিচে। দুই মাসের বেশি সময় পর গত মঙ্গলবার নতুন শনাক্তের সংখ্যাও ১০০-র নিচে নেমে এসেছে। এ পরিস্থিতিতে করোনার চতুর্থ ঢেউ শেষ হওয়ার আভাস মিলছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

 

রোগতত্ত্ব, রোগ নির্ণয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) উপদেষ্টা ডা. মুস্তাক আহমেদ এমনটাই মনে করছেন।

গতকাল বুধবার কালের কণ্ঠকে তিনি বলেন, ‘দেশে করোনার বর্তমান ঢেউ অনেক কমে এসেছে।   করোনার নতুন কোনো ধরন না এলে আগামী তিন-চার সপ্তাহের মধ্যে এই ঢেউ যে থাকবে না, সেটা রোগতাত্ত্বিক বিশ্লেষণ অনুযায়ী বলা হয়। তবে দেশে ডেল্টার পর ওমিক্রনের উপধরন বিএ.৫-এর যে দাপট শুরু হয়েছিল, সেটা এখন অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া—এসব দেশকে ভোগাচ্ছে। ওই সব দেশে ওমিক্রনের বিএ.৫ উপধরন সংক্রমণ ও সংক্রমণের হার ও মৃত্যু এখনো বেশি। সে কারণে আমাদের দেশে করোনার বর্তমান ঢেউ শেষ হয়েছে—এটা বলার জন্য আমাদের আরো তিন-চার সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। ’

গত দুই দিনে মৃত্যু নেই : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২১২ জন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৯৩। নতুন শনাক্ত ২১২ জনের মধ্যে ঢাকায়ই ১৫৫ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৪.৫৪ শতাংশ। আগের দিন শনাক্তের হার ছিল ৪.৪১ শতাংশ। সব শেষ এই ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু নেই। আগের ২৪ ঘণ্টায়ও মৃত্যু ছিল না।

দেশে গতকাল পর্যন্ত করোনায় মৃতের সংখ্যা ২৯ হাজার ৩১৪। মোট শনাক্ত ২০ লাখ ৯ হাজার ৪৩৪ জন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৫৩৯ জনসহ এ পর্যন্ত ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৫০৪ জন সুস্থ হয়েছে।

এর আগে গত ২৬ মার্চ থেকে গত ১১ জুন পর্যন্ত প্রতিদিন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত ১০০-র নিচে ছিল। ১২ জুন থেকে শনাক্ত বাড়তে থাকে এবং গত ২৭ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত প্রতিদিন দুই হাজারের ওপরে করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত ৪ জুলাই ২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যুর তথ্য পাওয়া যায়।  

 



সাতদিনের সেরা