kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

প্রধানমন্ত্রী বললেন

হায় হায় পার্টি হায় হায় করুক, আমরা দেশ এগিয়ে নিই

বাসস   

২৫ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



হায় হায় পার্টি হায় হায় করুক, আমরা দেশ এগিয়ে নিই

শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানীয় চাহিদা মেটাতে এবং বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের জন্য রপ্তানি পণ্য বাড়াতে যার যার জলাধার রয়েছে, সেগুলো মাছ চাষের আওতায় আনার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে আমাদের মাছের কোনো অভাব হবে না এবং নতুন রপ্তানি আইটেম যুক্ত করতেও সক্ষম হব। যাঁর যাঁর জলাধার আছে, তাঁরা যেন সেই জলাধারকে মাছ চাষের আওতায় আনার ব্যাপারে বিশেষ মনোযোগ দেন। ’

প্রধানমন্ত্রী গতকাল রবিবার সকালে ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২২’ উদযাপন এবং ‘জাতীয় মৎস্য পদক-২০২২’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের মূল অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

‘নিরাপদ মাছে ভরবো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য নিয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সারা দেশে ২৩ জুলাই থেকে আগামী ২৯ জুলাই পর্যন্ত জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ পালন করা হচ্ছে।

হাওর অঞ্চলে মৎস্য উৎপাদনের বিশাল সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু হাওর না, বাঁওড়, খাল, বিল, বিভিন্ন জলাধার—এত জায়গা আমাদের। আমার তো মনে হয়, যাঁর যেখানে এ ধরনের জলাধার আছে তাঁরা যদি মৎস্য উৎপাদন করার দিকে একটু নজর দেন; শুধু মাছও না মাছের সাথে কাঁকড়া, শামুক, ঝিনুক—সব কিছুই চাষ করা যায়। ’

তিনি বলেন, ‘কাজেই সেগুলো করতে পারলে আমাদের নিজেদের কোনো অভাব থাকবে না। রপ্তানি ক্ষেত্রে আমরা নতুন নতুন পণ্য দিতে পারব। ’

তিনি সারা দেশে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে খাদ্য ও মৎস্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্প স্থাপনের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন এবং তরুণ প্রজন্মকে এ লক্ষ্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এর ফলে স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রপ্তানি পণ্যের সংখ্যা বৃদ্ধির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের পাশাপাশি কর্মসংস্থানও সৃষ্টি হবে।

কভিড-১৯, এরপর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং রাশিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা—এসবের ফলে বিশ্বমন্দার পরিস্থিতি বিবেচনা না করেও যাঁরা ঢালাও সমালোচনা করেন এবং বাংলাদেশকে অচিরেই শ্রীলঙ্কার কাতারে এনে দাঁড় করাতে চান, তাঁদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা নাই নাই, গেল গেল, হায় হায় করে বেড়াচ্ছে, সেই হায় হায় পার্টি হায় হায় করতেই থাকুক। মাঝে মাঝে তাদেরও তো একটু বলতে দিতে হবে। আর আমরা আমাদের কাজ করে যাই। দেশ এগিয়ে যাক এবং বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। ’

তিনি বলেন, “জনগণের ওপর আমাদের ভারসা আছে, জনগণ আমাদের পাশে আছে। আর জাতির পিতাই তো বলে গেছেন—‘বাংলাদেশকে কেউ দাবায়ে রাখতে পারবা না’, কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না। ”

সরকারপ্রধান বলেন, ‘পদ্মা সেতুতে বাধা দিয়েছিল; সেই বাধা অতিক্রম করে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করে বিশ্বকে আমরা এই বার্তাটা পৌঁছে দিয়েছি যে বাংলাদেশ পারে, আমরা পারি। ’

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক মৎস্য খাতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মাঝে জাতীয় মৎস্য পদক-২০২২ বিতরণ করেন। মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার মাহবুবুল হক পুরস্কার পর্বটি সঞ্চালনা করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বত্তৃদ্ধতা করেন কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ইয়ামিন চৌধুরী স্বাগত বত্তৃদ্ধতা করেন।

‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২২’ উদযাপন উপলক্ষে গণভবন লেকে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

মাছের অভয়ারণ্য তৈরির দিকে নজর দেওয়ার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী মৎস্য খাতে গবেষণা বাড়ানোর ওপরও গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, সবচেয়ে নিরাপদ পুষ্টি পাওয়া যায় মাছ থেকে, যা মাংস থেকে হয় না। মাছের যে আবাসস্থল অর্থাৎ অভয়ারণ্য তৈরি করা—এগুলোর দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। পানির প্রবাহ ভালো থাকা, পানি যাতে দূষণ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

গুণাবলির ভিত্তিতে পদোন্নতি দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল নৌ ও বিমানবাহিনীর কর্মকর্তাদের পদোন্নতির ক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, পেশাগত দক্ষতা, নেতৃত্বের গুণাবলি, শৃঙ্খলার মান, সততা, বিশ্বস্ততা ও আনুগত্যের ওপর গুরুত্ব আরোপের নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ নৌ ও বিমানবাহিনীর নির্বাচনী পর্ষদ-২০২২-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেওয়া ভাষণে এ কথা বলেন।  

প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নৌ ও বিমানবাহিনী সদর দপ্তরের এই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। আইএসপিআর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর মাতৃভূমির সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য একটি অত্যাধুনিক, প্রশিক্ষিত ও শক্তিশালী সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। বর্তমান সরকার প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন যুগোপযোগী সামরিক বাহিনী গঠনের লক্ষ্যে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে।

এর আগে নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম শাহীন ইকবাল নৌবাহিনীর নির্বাচনী পর্ষদে উপস্থিতির জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। এরপর বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে সহায়তা কামনা : বাংলাদেশ ও জাপান রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসন চায়। জাপানের পররাষ্ট্রবিষয়ক সংসদীয় ভাইস মিনিস্টার হোন্ডা তারো এবং জাপান ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশন এজেন্সির (জাইকা) প্রেসিডেন্ট তানাকা আকিহিতো গতকাল বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে আলোচনা করেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। বৈঠকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে জাপানের সহায়তা চেয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল গণভবন লেকে মৎস্য অবমুক্ত করেন। তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র প্রান্তে যুক্ত হয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০২২ উদযাপন ও জাতীয় মৎস্য পদক-২০২২ প্রদান অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।      ছবি : পিএমও



সাতদিনের সেরা