kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ আগস্ট ২০২২ । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১২ মহররম ১৪৪৪

খালেদের ৫ উইকেটের পরও অস্বস্তিতে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৭ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



খালেদের ৫ উইকেটের পরও অস্বস্তিতে বাংলাদেশ

টানা তৃতীয় দিন সকালের সেশনে আধিপত্য করেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম দিন ব্যাটিংয়ে এবং গতকালসহ পরের দুই দিন বোলিংয়ে। তবু ম্যাচের ভারসাম্য ঝুঁকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দিকে। গতকাল খেলা শুরুর প্রথম ঘণ্টা শেষ না হতেই বৃষ্টি নামে।

বিজ্ঞাপন

তবে ততক্ষণে আরো দুটি উইকেট হারালেও ১৪২ রানে এগিয়ে থাকা স্বাগতিকদের কর্তৃত্ব জারি ছিল ম্যাচে। এরপর খেলা শুরু হলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলআউট হয় ৪০৮ রানে। খালেদ আহমেদ ক্যারিয়ারে প্রথমবার নেন ৫ উইকেট। মেহেদী হাসান মিরাজের উইকেট ৩টি। মেয়ার্স করেন ১৪৬ রান। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অস্বস্তিতে বাংলাদেশ। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩২ রানে ২ উইকেট হারিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। তামিম ইকবাল ৪ ও মাহমুদুল হাসান জয় ফেরেন ১৩ রানে। নাজমুল হোসেন শান্ত ১০ ও এনামুল হক ব্যাট করছিলেন ৪ রানে।

প্রথম ইনিংসে ১০৬ রানে এগিয়ে থেকে গতকাল আবার ব্যাটিংয়ে নেমেছে ক্যারিবীয়রা। হাতে ৫ উইকেট। তার ওপর সেঞ্চুরিয়ান কাইল মেয়ার্স ও জসুয়া ডি সিলভা জুটি থিতু হয়ে যাওয়ায় রানপাহাড়ে চাপা পড়ার আশঙ্কা নিয়ে নেমেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এদিন নিজের প্রথম ওভারেই দলকে সাফল্য এনে দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। নিজের পঞ্চম বলে এলবিডাব্লিউর ফাঁদে ফেলেছেন বাংলাদেশের এই অফস্পিনার।

বড় ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় শুরুতেই উইকেট পতনে স্বাগতিক দলের ব্যাটিং মেজাজে বিশেষ পরিবর্তন ঘটেনি। মিরাজের পরের ওভারেই জোড়া বাউন্ডারিতে সেটি বুঝিয়ে দিয়েছেন মেয়ার্স। স্বীকৃত ব্যাটার না হয়েও রানের গতি বাড়ানোয় মনোযোগ দিয়েছিলেন আলজারি জোসেফ। তারই জেরে খালেদ আহমেদকে পুল করতে গিয়ে মিড উইকেটে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন তিনি। মিরাজের ৩টি ও এই পেসারের শিকার ৫টি। ক্যারিবীয় ইনিংসের ১০ উইকেটের ৮টিই মিরাজ ও খালেদের।

এই জোড়া আঘাতে ক্যারিবীয় ব্যাটিংয়ের লেজ উন্মুক্ত হলেও খুব উচ্ছ্বসিত হওয়ার কিছু নেই বাংলাদেশ দলের। সাকিব আল হাসানের জন্য আরো বড় দুশ্চিন্তা হলো, উইকেটেও বোলাররা বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন না।

এমন অবস্থায় উইকেটও ক্যারিবীয় বোলারদের দিকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিলে বিপদ বাড়বে বাংলাদেশের, প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানে গুটিয়ে গিয়ে যারা শুরুতেই ব্যাকফুটে চলে গেছে। বরং উইকেটের সুবিধা নিয়ে দ্বিতীয় দফায় ইনিংসটিকে লম্বা করার সুযোগ আছে বাংলাদেশের সামনে। তবে বাস্তবতা হলো, এই ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার পথটা বাংলাদেশ দলের জন্য খুবই কঠিন।

 

 



সাতদিনের সেরা