kalerkantho

বুধবার । ২৯ জুন ২০২২ । ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৮ জিলকদ ১৪৪৩

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী

দেশের সব অর্জন আওয়ামী লীগের হাত দিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দেশের সব অর্জন আওয়ামী লীগের হাত দিয়ে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ নিজের ভাগ্য গড়তে আসেনি। এ দেশের মানুষের ভাগ্য গড়তে এসেছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে আজ পর্যন্ত এ দেশের মানুষের যতটুকু অর্জন, তার সবটুকুই আওয়ামী লীগের হাত দিয়ে হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের আলোচনাসভায় এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ আলোচনাসভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী।

আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই সরকারে এসেছে, মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেছে। এ জন্য আওয়ামী লীগকে বারবার ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হয় না। কারণ তাহলে বাংলাদেশের মানুষকে শোষণ, নির্যাতন করতে পারে না।

বিএনপির সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘মিথ্যা কথা বানানো আর মিথ্যা কথা বলার যদি কারখানা থেকে থাকে, সেটা হলো বিএনপি। কিছু লোক সেটা বিশ্বাসও করে। বন্যা হয়েছে, আজ পর্যন্ত কোনো বিএনপি নেতা বা কেউ কোনো সাহায্য দিয়েছে? দেয়নি। ঢাকায় বসে বসে নানা কথা বলে বেড়াচ্ছে। কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা এমন এমন দুর্গম এলাকা, যেখানে বন্যার পানির জন্য কেউ পৌঁছাতে পারছে না, সেখানেও যাচ্ছে। তারা মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে, খাদ্য সাহায্য দিচ্ছে। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা পদ্মা সেতু করেছি নিজস্ব অর্থায়নে। এটা নিয়েও প্রশ্ন তোলে। বিএনপি আবার প্রশ্ন তোলে কোন মুখে, যাদের আপাদমস্তক দুর্নীতিতে ভরা? এতিমের অর্থ আত্মসাৎ করে সাজা পেয়েছে খালেদা জিয়া। শুধু এতিমের অর্থ কেন, নাইকো-গ্যাটকো—এ রকম বহু মামলা ঝুলে আছে। প্রতিটি প্রকল্পে দুর্নীতি করে তাঁরা টাকা বানিয়েছে। তারেক জিয়া, খালেদা জিয়া, কোকো সবাই। ’ তিনি বলেন, ‘এই দুর্নীতি করে যদি টাকা না বানাবে বিদেশে এত বিলাসবহুল জীবন যাপন করে কী করে? কত টাকা খরচ করে সেখানে কম্পানি খুলেছে এবং সেই কম্পানিতে প্রথমেই সে নিজেকে ব্রিটিশ নাগরিক লিখেছে। এক বছর পরে সেটাকে আবার সংশোধন করে সেখানে বাংলাদেশের নাগরিক লিখেছে। কারণ মিথ্যা কথা লেখাতে ধরা পড়ে যায়। তথ্য তো আমাদের কাছে আছে। ’

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘পদ্মা সেতু আমরা উদ্বোধন করব ২৫ তারিখে। যেমন—বানভাসি মানুষের পাশে আওয়ামী লীগ দাঁড়িয়েছে। সেই সঙ্গে আমাদের সশস্ত্র বাহিনী, বিজিবি, কোস্ট গার্ড থেকে শুরু করে পুলিশ বাহিনী, প্রশাসন সবাই সেখানে কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিনিয়ত তাদের উদ্ধার করা, চিকিৎসার ব্যবস্থা করা, তাদের খাদ্য দেওয়া হচ্ছে। সেখানে এতটুকু গাফিলতি নেই। প্রথম দিন থেকে আমরা এই বানভাসি মানুষের পাশে আছি। বন্যা প্রাকৃতিক কারণেই বাংলাদেশে আসবে, হবেই। এর সঙ্গে আমাদের বসবাস করতে হবে। ’

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘এ দেশের প্রকৃতি, মানুষের উন্নয়ন আওয়ামী লীগ যতটা বুঝবে, অন্যরা তা বুঝবে না। বুঝবে কী করে? বিএনপির হৃদয়ে তো থাকে পাকিস্তান। ’ তিনি বলেন, ‘এদের জন্মও তো বাংলাদেশে না। না জিয়ার জন্ম বাংলাদেশে, না খালেদার। কারও জন্মই না। এরশাদেরও জন্ম কোচবিহারে। একমাত্র আমার বাবাই ছিলেন এই দেশের, আমারও এই দেশের মাটিতেই জন্ম। কাজেই মাটির টান আলাদা। ’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের মানুষ যথেষ্ট সচেতন। তারা জানে আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কা। আর নৌকার যা প্রয়োজন, এবার বন্যায়ও তো নৌকার জন্য হাহাকার। আওয়ামী লীগ স্বাধীনতা শুধু এনে দেয়নি, স্বাধীনতার সুফল এখন ঘরে ঘরে পৌঁছাচ্ছে।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শদ্ধা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। তিনি গতকাল সকালে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

পরে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে শেখ হাসিনা তাঁর দলের পক্ষ থেকে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে আরেক দফা পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল দলীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।      ছবি : পিআইডি



সাতদিনের সেরা