kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

কর্মকর্তাদের প্রধানমন্ত্রী

পত্রিকার লেখায় না ঘাবড়ে কাজ করুন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পত্রিকার লেখায় না ঘাবড়ে কাজ করুন

পত্রিকায় কোথায় কী লেখা হলো না হলো তা নিয়ে চিন্তা না করে আত্মবিশ্বাস নিয়ে কাজ করতে সরকারি কর্মকর্তাদের পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, তাঁর সরকার পত্রিকা পড়ে নয়, বরং দেশের মানুষের মুখের দিকে তাকিয়ে এবং তাদের প্রয়োজন অনুভব করে দেশের উন্নয়নে নানামুখী সিদ্ধান্ত নিয়ে এত দিন দেশ পরিচালনা করেছে এবং সেটাই অব্যাহত রাখতে চায়।

প্রধানমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর শেরেবাংলানগরে এনইসি মিলনায়তনে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় এ কথা বলেন। তিনি তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সভায় যোগ দেন।

বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের জনগণের মুখে হাসি ফোটানোর একটি মাত্র লক্ষ্য নিয়ে আমি নির্বাসিত জীবন থেকে দেশে ফিরেছি। দেশের দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে আমি দেশে ফিরেছি, কারণ এটা আমার বাবার (জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) স্বপ্ন ছিল। ’

গতকাল ছিল আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪২তম ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। ১৯৮১ সালের ১৭ মে নির্বাসিত জীবন থেকে জোরপূর্বক ফিরে আসার দিনটির কথা স্মরণ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যখন আমি বিমানবন্দরে অবতরণ করি, তখন আমি আমার নিকটাত্মীয়দের কাউকে পাইনি, কিন্তু লাখো মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। এটাই আমার একমাত্র শক্তি এবং আমি এই শক্তি নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি। ’

দেশে ফেরার পর তিনি দেশব্যাপী সফরের সময় নানা প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হয়েছেন উল্লেখ করে বলেন, ‘তবে আমি বাংলাদেশের মানুষের আস্থা, ভালোবাসা পেয়েছি। কত অপপ্রচার, কত কথা, কত কিছু তার পরও বাংলাদেশের জনগণ আমার ওপর আস্থা ও বিশ্বাস রেখেছেন। ’

করোনা ও ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ সারা বিশ্বের উন্নত এবং অনুন্নত দেশের মতো বাংলাদেশের অর্থনীতিতেও প্রভাব ফেলেছে এবং দ্রব্যমূল্য অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করেন সরকারপ্রধান। তিনি বলেন, ‘সবাইকে আমি এটুকু অনুরোধ করব, সবাই যদি একটু সাশ্রয়ী হন, মিতব্যয়ী হন বা সব ব্যবহারে সবাই যদি একটু সতর্ক হন, তাহলে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। ’

সমালোচকদের কথায় কান না দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, ‘অনেক সময় পত্রিকা পড়ে আপনারা অনেকে ঘাবড়ান। এই পত্রিকা এই সমালোচনা করেছে। বাংলাদেশের কিছু পত্রিকা আছে তারা সব কিছুতে এক দিন ভালো লিখলে পরের সাত দিন লিখবে খারাপ। এটা তাদের চরিত্র। আমি চিনি সবাইকে। হাই স্কুল থেকে তো রাজনীতি করি। সবাইকে আমার চেনা আছে। সব পরিবারকেও চেনা আছে, এটা তাদের চরিত্র। কাজেই ওই পত্রিকা দেখে ঘাবড়ানোর কোনো দরকার নেই। আর পত্রিকা পড়েও সিদ্ধান্ত নেওয়ার দরকার নেই। ’ সূত্র : বাসস



সাতদিনের সেরা