kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

পরিচ্ছন্নতাকর্মীর প্রাণ নিল ময়লার গাড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পরিচ্ছন্নতাকর্মীর প্রাণ নিল ময়লার গাড়ি

‘সন্ধ্যার সময় মায়ের লগে কথা কইয়া বাইর হইছিলাম। প্রতিদিনের মতো কথা কইতে পারি নাই! কাজে মোহাম্মদপুর চইলা গেছিলাম। পরে কথা হইবো না, এইটা ভাবতেই পারি নাই। মা ফিরা আইবো না জানলে তারে কাজে যাইতে দিতাম না।

বিজ্ঞাপন

’ কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বলছিলেন রাজধানীর মহাখালীতে ‘ময়লার’ গাড়ির ধাক্কায় নিহত সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মী শিখা রানী ঘরামীর (৫৫) ছেলে খোকন ঘরামী।

পুলিশ সূত্র জানায়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পরিচ্ছন্নতাকর্মী শিখা রানী মহাখালীর সাততলা বস্তি এলাকায় থাকতেন। শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক পৌনে ২টার দিকে জাহাঙ্গীর গেটের প্রান্তে মহাখালী উড়ালসেতুর মুখে রাস্তায় ঝাড়ু দিচ্ছিলেন। এ সময় উড়ালসেতু দিয়ে আসা সাদা রঙের একটি ময়লার গাড়ি তাঁকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। গাড়িটি পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গতকাল রবিবার দুপুরে শিখার ছেলে খোকন অজ্ঞাত গাড়ির চালককে আসামি করে তেজগাঁও থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। মামলার এজাহারে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে শিখাকে চাপা দেওয়া গাড়িটিকে ডিএনসিসির ময়লার গাড়ি বলে উল্লেখ করা হয়।

তেজগাঁও থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শাহ আলম বলেন, ‘এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। গাড়িটি সিটি করপোরেশনের ছিল কি না তা

এখনো জানা যায়নি। তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, এটি সাদা রঙের ময়লার গাড়ি। আমরা আশপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করছি। বিস্তারিত পরে বলতে পারব। ’

পরিবার জানায়, শিখার গ্রামের বাড়ি বরিশালের বানারীপাড়ায়। এক ছেলে ও এক মেয়ের মা শিখার স্বামীর নাম সীতিশ ঘরামী। তিনি একটি কম্পানির সিকিউরিটি গার্ডের কাজ করেন। ছেলে খোকন মোহাম্মদপুরে একটি কারখানায় কাজ করেন। খোকন বলেন, ‘আমার মায়ের মৃত্যু দুর্ঘটনায় না, এইটা হত্যা। যারা মাকে মারছে, বিচার চাই। ’

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘কিছু আউটসোর্সিংয়ের গাড়ি সিটি করপোরেশনের ময়লা সরানোর কাজ করে। তাদের গাড়ির ধাক্কায় ঘটনাটি ঘটেছে কি না তা জানতে আমাদের অফিসারদের বলা হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দিয়ে দিয়েছি। ’

প্রসঙ্গত, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের ময়লা গাড়ির ধাক্কায় এর আগে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকজন নিহত হয়। এর মধ্যে গত বছরের ১৬ এপ্রিল যাত্রাবাড়ীতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় এক রিকশাচালক নিহত হন। সে সময় উত্তেজিত জনতা গাড়িটি আগুনে পুড়িয়ে দেয়। এরপর ২৪ নভেম্বর দুপুরে গুলিস্তানে ডিএসসিসির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নাঈম হাসান নামে নটর ডেম কলেজের এক শিক্ষার্থী নিহত হন। পরের দিন রাজধানীর পান্থপথে ডিএনসিসির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় প্রাণ হারান সংবাদকর্মী আহসান কবির খান। তিনি দৈনিক সংবাদে কাজ করতেন। আর গত ২৩ ডিসেম্বর পুরান ঢাকার ওয়ারী থানার রাজধানী সুপারমার্কেটের সামনে ডিএসসিসির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় স্বপন কুমার সরকার নামের এক বৃদ্ধ নিহত হন।

 



সাতদিনের সেরা