kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ মাঘ ১৪২৮। ২৫ জানুয়ারি ২০২২। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নিরাপদ সড়ক আন্দোলন

পুলিশি বাধা সত্ত্বেও মানববন্ধন শিক্ষার্থীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



পুলিশি বাধা সত্ত্বেও মানববন্ধন শিক্ষার্থীদের

নিরাপদ সড়ক ও সারা দেশে বাসে অর্ধেক ভাড়াসহ ১১ দফা দাবিতে গতকালও রাজধানীর রামপুরায় মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার কারণে গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে সীমিত পরিসরে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা রয়েছে শিক্ষার্থীদের। রাজধানীর রামপুরা ছাড়া গতকাল অন্য কোথায়ও তাদের দেখা যায়নি। তবে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছে, রাজধানীর একাধিক স্থানে মানববন্ধনের প্রস্তুতি থাকলেও নানা ধরনের বাধার কারণে তারা নামতে পারেনি।

সারা দেশে গণপরিবহনে অর্ধেক ভাড়াসহ (হাফ পাস) নিরাপদ সড়কের দাবিতে কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে গতকাল রামপুরায়ও পুলিশের বাধায় পড়েছিল শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু তা উপেক্ষা করে এখানে মানববন্ধন করতে সক্ষম হয় তারা। আগের দিনের ঘোষণা অনুযায়ী ১১ দফা দাবিতে গতকাল সকাল সাড়ে ১১টা থেকে রামপুরা ব্রিজের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করলে তাতে বাধা দেয় পুলিশ। শিক্ষার্থীরা বাধা উপেক্ষা করে সড়কের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে তাদের মৃদু ধাক্কাধাক্কিও হয়। এক পর্যায়ে দুই শিক্ষার্থীকে ব্রিজ থেকে সরিয়ে বনশ্রী সড়কে নামিয়ে দেয় পুলিশ। পরে সেখানেই তারা দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ শুরু করে।  

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের স্লোগান ছিল, ‘নিরাপদ সড়ক সড়ক চাই, পুলিশ দিয়ে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না, হামলা করে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না, ভয় দেখিয়ে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না, উই ওয়ান্ট জাস্টিজ। ’

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি  সোহাগী সামিয়া বলেন, হুমকি বা ভয় দেখিয়ে তাদের আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। তিনি বলেন, ‘সকালে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি পালন করতে শুরু করলে পুলিশ বাধা দেয়। রাষ্ট্র ও পুলিশ শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চায় না। সে সময় আমরা ১০ থেকে ১৫ জন শিক্ষার্থী ছিলাম বলে পুলিশ দাঁড়াতে দেয়নি। পরে আমরা শক্তি বাড়িয়ে এসে কর্মসূচি পালন করছি। যত বাধা আসুক, মৃত্যুঝুঁকি থাকলেও দাবি আদায়ে আন্দোলন চালিয়ে যাব। শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে কর্মসূচি পালন করব। ’ 

পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে মানববন্ধনে অবস্থানকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সোহাগী শামীয়া বলেন, ‘পুলিশ আমাদের আন্দোলন থেকে দূরে রাখতে চেষ্টা করেছে। আমরা যোদ্ধার জাতি। অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করা মালিকদের ব্যাপার নয়, রাষ্ট্রকে আইন করে এটা কার্যকর করতে হবে। দাবি মানা না হলে আমরা ১১ দফা দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাব। মানুষের চলাফেরায় বাধা সৃষ্টি না করে এইচএসসি পরীক্ষা চলা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে মানববন্ধন করব আমরা। পরীক্ষা শেষ হলেই আমরা রাস্তায় নামব। ’

আন্দোলনের ফলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে জানতে চাইলে এই শিক্ষার্থী বলেন, ‘ভিআইপিদের চলাচলের সময় রাস্তা বন্ধ করে মানুষকে দুর্ভোগে ফেলা হয়। তখন তো কেউ কিছু বলেন না। ’

শিক্ষার্থীদের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে রামপুরার আন্দোলনস্থলে উপস্থিত  ডিএমপি খিলগাঁও জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার নুরুল আমীন বলেন, সরকার ও বাস মালিকপক্ষ শিক্ষার্থীদের দাবিদাওয়া মেনে নিয়েছে। এখন আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই।

২০১৮ সালে রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছিল শিক্ষার্থীরা। সম্প্রতি জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে পরিবহনের ভাড়া বাড়ানো হলে ১১ নভেম্বর থেকে হাফ পাসের দাবিতে রাস্তায় নামে শিক্ষার্থীরা। এরই মধ্যে ২৪ নভেম্বর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চাপায় নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান নিহত হলে আন্দোলনকারীরা নিরাপদ সড়কসহ ৯ দফা দাবি ঘোষণা করে। গত মঙ্গলবার রামপুরায় বাসচাপায় এসএসসির ফলপ্রত্যাশী মাঈনুদ্দিনের মৃত্যু হলে তার বিচারের দাবিও আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত হয়।

গত মঙ্গলবার ঢাকায় শর্ত সাপেক্ষে হাফ পাস চালুর ঘোষণা এলেও আন্দোলন থেকে সরেনি তারা।

সালমান ফারসি নামের এক শিক্ষার্থীকে  ডিবি পরিচয়ে গতকাল বিকেলে উত্তরা  থেকে উঠিয়ে নেওয়ার অভিযোগ করেছেন নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ মেহেদি। এ বিষয়ে ডিবির এক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তারা এ নামের কাউকে আটক করেননি।  

ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গুজব ছড়ানোয় নিন্দা ও প্রতিবাদ নিসআর : বিভিন্ন গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজ সংগঠন নিয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গুজব ছড়ানোয় নিন্দা ও প্রতিবাদে জানিয়েছে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন (নিসআ)। সংগঠনটি বলছে, সম্প্রতি রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল বাসচাপায় একরামুন্নেছা স্কুল এন্ড কলেজের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে তাদের সংগঠনের একজন যুগ্ম আহ্বায়কের ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে ‘অনুবীক্ষণ’ নামক ৫০ হাজার লাইকের একটি পেইজ ব্যবহার করে নিসআর নামে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সংগঠনটির এক বিবৃতিতে এসব কথা বলা হয়।

 



সাতদিনের সেরা