kalerkantho

সোমবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৯ নভেম্বর ২০২১। ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

ক্যাম্ফারের ‘ডাবল হ্যাটট্রিকে’ জিতল আয়ারল্যান্ড

শ্রীলঙ্কার শুভ সূচনা

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

১৯ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্যাম্ফারের ‘ডাবল হ্যাটট্রিকে’ জিতল আয়ারল্যান্ড

কার্টিস ক্যাম্ফার

কার্টিস ক্যাম্ফারের দুরন্ত গতির তোপে রীতিমতো উড়ে গেছে নেদারল্যান্ডস। এই আইরিশ ফাস্ট বোলার টানা চার বলে চার উইকেট নিয়ে নেদারল্যান্ডসকে ১০৬ রানে থামিয়ে দেওয়ার পর ৪.৫ ওভার হাতে রেখেই ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতেছে আয়ারল্যান্ড।

আবুধাবিতে দ্বিতীয় ম্যাচে নামিবিয়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শুরুতে প্রতিরোধের ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটের সহজ জয়ই পেয়েছে লংকানরা। ব্যাটিংয়ে নেমে ৯৬ রানে অলআউট হয় প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে আসা নামিবিয়া। ক্রেইগ উইলিয়ামস সর্বোচ্চ ২৯ রান করেছেন। শ্রীলঙ্কার হয়ে মহেশ তিকসানা নিয়েছেন ৩ উইকেট। ব্যাটিংয়ে ২৬ রানে টপ অর্ডারের তিনজনকে হারালেও আভিষ্কা ফার্নান্ডো ও ভানুকা রাজাপক্ষের ৭৪ রানের অপরাজিত জুটিতে ৬.৩ ওভার হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় শ্রীলঙ্কা। ‘এ’ গ্রুপের উদ্বোধনী ম্যাচে নেদারল্যান্ডস ব্যাটিংয়ে নেমে দুই আইরিশ ফাস্ট বোলারের তোপের মুখে পড়ে। দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে জন্ম নেওয়া ক্যাম্ফারের চার বলে চার উইকেটের কীর্তির পাশাপাশি আরেক ফাস্ট বোলার মার্ক অ্যাডাইর মাত্র ৯ রান খরচ করে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ক্যাম্ফারের দুর্দান্ত কীর্তির শুরু ইনিংসের দশম ওভারের দ্বিতীয় বলে কলিন অ্যাকারমানকে (১১) আউট করে। এরপর রায়ান ডোশে (০) ও স্কট এডওয়ার্ডকে (০) ফিরিয়ে দিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটি মাত্র দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক, আগেরটি ব্রেট লি’র বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০০৭ সালে প্রথম বিশ্বকাপে। হ্যাটট্রিকের মাইলস্টোনে পা রেখে ২২ বছর বয়সী এই আইরিশ ওই ওভারের পঞ্চম বলে ফন ডার মারউইকে ফিরিয়ে টানা চার উইকেট নেওয়া তৃতীয় বোলার হয়েছেন টি টোয়েন্টির ইতিহাসে। চার বলে চার উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখানো আগের দুজন আফগানিস্তানের রশিদ খান ও শ্রীলঙ্কান ফাস্ট বোলার লাসিথ মালিঙ্গা। এমন রেকর্ড গড়া বোলিং হলে প্রতিপক্ষের কী-ই বা করার থাকে। এর মধ্যেও নেদারল্যান্ডসের ওপেনার ম্যাক্স ও ডোড এক পাশ আগলে রেখে ৪৭ বলে ৫১ রান করায় স্কোরটা মোটামুটি একটা চেহারা পেয়েছে। ১০৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে আয়রল্যান্ড একটু ধাক্কা খেয়েছিল কেভিন ও’ব্রায়েন ও অ্যান্ড্রু বালবিরনিকে হারিয়ে। সেটা সামাল দিয়ে তারা ১৫.১ ওভারে ৩ উইকেটে ১০৭ রান করে লক্ষ্যে পৌঁছে যায়। গ্যারেথ ডিলানি ২৯ বলে ৪৪ ও ওপেনার পল স্টার্লিং ৩৯ বলে ৩০ করেছেন।



সাতদিনের সেরা