kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

‘অমূল্য’ সিরিজে নিজেদের মূল্য বোঝানোর পালা বাংলাদেশেরও

মাসুদ পারভেজ   

৩ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে




‘অমূল্য’ সিরিজে নিজেদের মূল্য বোঝানোর পালা বাংলাদেশেরও

জিম্বাবুয়ে সফরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের প্রধান দুই নায়ক ছিলেন সৌম্য সরকার ও নাঈম শেখ। আজ মিরপুরেও তাঁদের ব্যাটের সেই হাসির প্রত্যাশায় থাকবে বাংলাদেশ। আজ সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি। ছবি : মীর ফরিদ

প্রস্তাবটি ছিল অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকেই। তাতে সম্মতি আছে বাংলাদেশ শিবিরেরও। ম্যাচ চলাকালে বাড়তি লোক এড়াতে না খেয়ে হলেও খেলতে রাজি স্বাগতিকরা। তার মানে এই নয় যে অভুক্ত থেকে খেলবেন ক্রিকেটাররা। সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হতে যাওয়া ম্যাচ খেলতে ক্রিকেটাররা হোটেল থেকে খেয়ে আসবেন। মাঝখানে কিছু খেতে হলেও তা হোটেল থেকে প্যাকেট করে নিয়ে আসবেন। ডিনারও হোটেলে ফিরেই সারবেন। তবে ম্যাচের সময়ে ড্রেসিংরুমে কোনো খাবার ঢুকবে না তো ঢুকবেই না।

নিজেদের ক্রিকেটারদের করোনাকালীন সুরক্ষা নিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) এমন স্পর্শকাতর যে অভূতপূর্ব অনেক কিছুই হচ্ছে আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে। নানা রকম সুরক্ষাব্যবস্থায় অবস্থা অনেকটা এমন যে খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেরই (বিসিবি) অনেকের নিজভূমে পরবাসী হওয়ার মতো অবস্থা। অতিথি আপ্যায়নে সেসব অনেকের কাছে বাড়াবাড়ি বলে মনে হলেও স্বাগতিকদের কাছে এই সিরিজটি আসলে ‘অমূল্য’ই। সেটি অর্থমূল্যে যেমন, তেমনি গুণে-মানেও।

চড়া মূল্যে বিক্রি হওয়া সম্প্রচার স্বত্বে কিছুটা অবদান আছে আগে থেকেই নির্ধারিত এই সিরিজটিরও। আর বাংলাদেশের সঙ্গে খেলার ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ার বরাবরের অনীহা যে একদম অমূলক নয়, সেটি স্পষ্ট এই সিরিজ সে দেশের কোনো টিভি চ্যানেলেই দেখানোর অনাগ্রহে। সেই ২০০৮ সালের পর থেকে বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়ায় দ্বিপক্ষীয় সিরিজে আর আতিথ্য না পাওয়ার পেছনে অর্থনৈতিক কারণ যেমন আছে, তেমনি ক্রিকেটীয় দক্ষতার নিক্তিতে পিছিয়ে থাকার ব্যাপারও আছে। ২০১১ সালের পর ওয়ানডের দ্বিপক্ষীয় সিরিজও হয়নি দুই দেশের। ২০১৭ সালে এসে দুই টেস্টের সিরিজ খেলে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া এবারই বাংলাদেশের সঙ্গে প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টির দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলছে। এই সিরিজ দিয়ে বিসিবির অর্থের অঙ্কে লাভবান হওয়া মোটামুটি নিশ্চিত। কিন্তু মাঠের পারফরম্যান্স দিয়ে নিজেদের মূল্য বাড়িয়ে নেওয়ার দায় শুধুই মাহমুদ উল্লাহদের কাঁধে গিয়েই বর্তাচ্ছে। সেটি কি তাঁরা বাড়াতে পারবেন?

‘অমূল্য’ সিরিজে নিজেদের মূল্য বোঝানোর এই পালায় বাংলাদেশ সামনে পাচ্ছে অনেকটা কম জোরের অস্ট্রেলিয়াকেই। নিয়মিত অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টি-টোয়েন্টির পরই ছিটকে গেছেন চোটে। চোট ও ব্যক্তিগত কারণে নেই স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্কাস স্টয়নিস, প্যাট কামিন্স, কেন রিচার্ডসন ও জাই রিচার্ডসন। মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজলউড ও অ্যাডাম জাম্পাদের নিয়ে বোলিং পুরোশক্তির হলেও ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার শক্তি খর্ব হয়েছে অনেকটাই। যে জন্য বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোও এটিকে সফরকারীদের হারানোর ‘সেরা সুযোগ’ বলে মনে করছেন।

যদিও বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদ সরাসরি সে রায় দিয়ে ফেলছেন না। নিজেদের দক্ষতা প্রশ্নাতীত জেনেও অনেক সময় তাঁরা নিজেদের মাঠে সেভাবে মেলে ধরতে পারেন না বলেই হয়তো বক্তব্যে কিছুটা সংযত তিনি, ‘সেরা সুযোগ কি না, তা বলা কঠিন। কারণ অস্ট্রেলিয়া ভালো দল। ওদের হারাতে হলে ভালো ক্রিকেট খেলতেই হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো, আমরা আমাদের স্কিল ম্যাচের দিন কতটা প্রয়োগ করতে পারি। ম্যাচের অবস্থা ও কন্ডিশন অনুযায়ী নিজেদের কতটা মেলে ধরতে পারি। এসবের ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে। আমার ধারণা, খুব ভালো একটি সিরিজই হবে।’

যে সিরিজে নিজেদের মান তুলে ধরে মর্যাদা বাড়ানোর সুযোগ অবশ্য উন্মুক্তই দেখছেন মাহমুদ, ‘টি-টোয়েন্টি সংস্করণটিই এমন, নির্দিষ্ট দিনে ভালো খেললে যেকোনো দলকে হারানো সম্ভব। তা র্যাংকিংয়ে যত ওপরের দলই হোক না কেন। ওদের কয়েকজন ক্রিকেটার আসেনি। আমরাও তেমন কয়েকজনকে মিস করছি। তামিম-মুশফিক-লিটন নেই। আমাদের দলের জন্য যেমন, তেমনি প্রতিটি ক্রিকেটারের সামনেই বড় সুযোগ আমাদের মান দেখানোর। আমি সব সময়ই বিশ্বাস করি যে নিজেদের মাঠে আমরা ভালো দল এবং এবারও সেটি দেখানোর চেষ্টাই থাকবে আমাদের।’

সেই চেষ্টার অংশ হিসেবেই কিনা সিরিজ শুরুর আগের দিন বাংলাদেশ দলের অনুশীলনটা হলো একেকজনের জন্য একেকটি লক্ষ্য বেঁধে দিয়ে। ব্যাটসম্যানদের দেওয়া হলো নির্দিষ্ট রানের লক্ষ্য এবং বোলারদের তা আটকানোর। জমাট ও প্রাণবন্ত অনুশীলনে সৌম্য সরকার ও মুস্তাফিজুর রহমানের পুরোদমের অনুশীলন জানিয়ে দিল, তাঁদের নিয়ে শঙ্কাও কেটে গেছে। এখন আর সবার সঙ্গে তাঁদেরও মাঠে নেমে পড়ে নিজেদের প্রমাণ করার পালা।

কিসের পালা? ‘অমূল্য’ সিরিজে নিজেদের মূল্যটাও বুঝিয়ে দেওয়ার! 



সাতদিনের সেরা