kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

চার দিনে ৭২৬ মৃত্যু, সর্বোচ্চ ঢাকায়

পরীক্ষা কম হলেও শনাক্ত ২৯২৫৪ জন সুস্থ ৩৭২৭৩ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চার দিনে ৭২৬ মৃত্যু, সর্বোচ্চ ঢাকায়

কোরবানির ঈদের বন্ধের তিন দিনসহ গত চার দিনে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছে ৭২৬ জন। এ সময়ে শনাক্ত হয়েছে ২৯ হাজার ২৫৪ জন। সুস্থ হয়েছে ৩৭ হাজার ২৭৩ জন। চার দিনে ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে ২৬৬ জনের।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের ঘোষণা দেয় সরকার। এর ১০ দিনের মাথায় প্রথম মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়। এখন পর্যন্ত দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৪৬ হাজার ৫৬৪। আর আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত মোট ১৮ হাজার ৮৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর মধ্যে গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ১৬৬ জন। এ সময় ২০ হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ছয় হাজার ৩৬৪ জন। সুস্থ হয়েছে ৯ হাজার ছয়জন।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩১.০৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দেওয়া নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গত ২৪ ঘণ্টার ওই তথ্য জানানো হয়েছে।

গত চার দিনে করোনা পরীক্ষা তুলনামূলক কম হওয়ায় শনাক্তও কম হয়েছে বলে ধারণা দেওয়া হয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৬৬ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬০ জন মারা গেছে ঢাকায়। এর পরই ৩৩ জন করে চট্টগ্রাম ও খুলনায়, রংপুরে ১২ জন, বরিশালে ১০ জন, রাজশাহীতে সাতজন, সিলেটে ১০ জন এবং ময়মনসিংহে তিনজন। তাদের মধ্যে ৯৫ জন পুরুষ এবং ৭১ জন নারী। বয়স বিবেচনায় ১১-২০ বছরের দুজন, ২১-৩০ বছরের সাতজন, ৩১-৪০ বছরের ১৫ জন, ৪১-৫০ বছরের ২৪ জন, ৫১-৬০ বছরের ৩২ জন, ৬১-৭০ বছরের ৪৬ জন, ৭১-৮০ বছরের ২৭ জন, ৮১-৯০ বছরের ১০ জন, ৯১-১০০ বছরের তিনজন।

এর আগে বৃহস্পতিবার প্রায় সাড়ে ১১ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তিন হাজার ৬৯৭ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানিয়েছিল। সেদিন ১৮৭ জনের মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়। তাদের ৭৫ জনই ছিল ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। ঈদের দিন ১৭৩ জনের মৃত্যুর খবর আসে। ওই দিন সাত হাজার ৬১৪ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়ার খবর দেওয়া হয়। মৃতদের মধ্যে ৫৮ জন ছিল ঢাকার বাসিন্দা। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সাড়ে ৩৯ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে ১১ হাজার ৫৭৯ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়ে। সেদিন ২০০ জন মারা যাওয়ার তথ্য জানানো হয়। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে সর্বোচ্চ ৭৩ জন মারা যায়।



সাতদিনের সেরা