kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

সাক্ষাৎকার

‘অনিয়মে একচুল ছাড় দিইনি’

মোহাম্মদ ফখরুল আলম, কাস্টমস কমিশনার, চট্টগ্রাম

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘অনিয়মে একচুল ছাড় দিইনি’

বিদেশ থেকে পণ্য এনে বন্দরে ফেলে রাখা, রাজস্ব ফাঁকি দেওয়া—বছরের পর বছর এমনই চলে এসেছে চট্টগ্রাম কাস্টমসে। চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসকে অনিয়মের অন্ধকার থেকে আলোর পথে আনার সাহসী লড়াইয়ে নেমেছেন বর্তমান কমিশনার মোহাম্মদ ফখরুল আলম। ‘নিয়মিত নিলাম আয়োজনের বড় চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেছি’ উল্লেখ করে কমিশনার ফখরুল আলম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আগে কোনো মাসে একবার নিলামও হয়নি। গত মাসে আমি তিনটি নিলাম আয়োজন করেছি। এখন সেই ধারাবাহিকতা থাকবে।’

দুই বছর ধরেই কাস্টমসে শৃঙ্খলা ফেরানোর কাজ করে যাচ্ছেন ফখরুল আলম। তিনি বলেন, ‘অনিয়মের বিরুদ্ধে একচুল ছাড় দিইনি। এর ফলে সৎ আমদানিকারকরা হয়রানিমুক্ত থেকে ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ পেয়েছেন। এখন অনিয়ম করার আগে ব্যবসায়ী একাধিকবার চিন্তা করছেন, ছাড় পাওয়া যাবে কি না!’

চট্টগ্রাম কাস্টমস কমিশনার আরো বলেন, ‘জাহাজ থেকে পণ্য নামার ৩০ দিনের মধ্যে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পণ্য ছাড় নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছি। একই সঙ্গে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে পণ্য নামার ২১ দিনের মধ্যে ছাড়ের বাধ্যবাধকতা দেওয়া হয়েছে। সেটি কার্যকর না হলে আমরা নিয়মিতই পণ্য নিলামে তুলব। এর কোনো ব্যত্যয় ঘটবে না।’

ফখরুল আলম বলেন, ‘অনেক দিন ধরে অনেক উদ্যোগ, চেষ্টার পরও মেয়াদোত্তীর্ণ এবং বিপজ্জনক পণ্য ধ্বংস করা যায়নি। বিভিন্নমুখী জটিলতায় উদ্যোগ সফল হয়নি। এবারই প্রথম আমরা কভিড মহামারির লকডাউনের মধ্যেই পণ্য ধ্বংস কার্যক্রম শুরু করি। মাঝখানে চট্টগ্রামে কভিডের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় বন্ধ রেখেছিলাম। এখন আবার শুরু করেছি। আশা করছি ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন থাকবে।’