kalerkantho

সোমবার । ৭ আষাঢ় ১৪২৮। ২১ জুন ২০২১। ৯ জিলকদ ১৪৪২

নেপালে অলি সরকারের পতন

আস্থা ভোটে হার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে




নেপালে অলি সরকারের পতন

ছবি: ইন্টারনেট

আস্থা ভোটে হেরেছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী খগেন্দ্র প্রসাদ (কে পি) শর্মা অলি। গতকাল সোমবার দেশটির পার্লামেন্টে হওয়া এই আস্থা ভোটে তিনি মাত্র ৯৩ জন সদস্যের সমর্থন পেয়েছেন। তাঁর বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ১২৪ জন। এতে তিন বছর দুই মাসের মাথায় কমিউনিস্ট পার্টি অব নেপাল (এনসিপি) সরকারের পতন হলো। এর মধ্য দিয়ে নতুন করে রাজনৈতিক সংকটে পড়ল নেপাল।

পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণের জন্য অলি সরকারের প্রয়োজন ছিল ১৩৬ সদস্যের সমর্থন।

সংবিধান অনুযায়ী এখন কে পি শর্মা অলিকে দেশটির রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিতে হবে। এরপর আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন সরকার গঠন করতে হবে।

অলির নেতৃত্বাধীন কমিউনিস্ট পার্টি অব নেপাল (সিপিএন-ইউএমএল) ও পুষ্পকমল দহল প্রচণ্ডের নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল কমিউনিস্ট পার্টি (মাওবাদী কেন্দ্র) সরকার গঠন করে। এই সরকারের প্রধানমন্ত্রী হন কে পি শর্মা অলি। কিন্তু গত বছরের ডিসেম্বরে পুষ্পকমল দহল প্রচণ্ড সমর্থন প্রত্যাহার করে নেন। এতে সংকটে পড়েন অলি।

এ অবস্থায় রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারী পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে আস্থা ভোট ও নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেন। পূর্বঘোষণা অনুযায়ী গতকাল এই আস্থা ভোট হলো। নেপালি কংগ্রেসও গতকাল পার্লামেন্টে অলির বিরুদ্ধে ভোট দেয়। ২০১৫ সালে নেপালে নতুন সংবিধান গৃহীত হওয়ার পর দেশটিতে এটিই ছিল প্রথম সরকার।

নেপালের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের সদস্যসংখ্যা ২৭৫। এর মধ্যে চারজনের সদস্য পদ স্থগিত ছিল। গতকাল ২৭১ সদস্যের মধ্যে পার্লামেন্টে উপস্থিত ছিলেন ২৩২ জন। ১৫ জন ভোটদানে বিরত ছিলেন। এর মধ্যে এনসিপিরই ২৮ জন সদস্য ভোট দেননি অথবা অনুপস্থিত ছিলেন। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।