kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

মুভমেন্ট পাসের আবেদনের হিড়িক

কাউকে ঘরের বাইরে দেখতে চাই না : আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মুভমেন্ট পাসের আবেদনের হিড়িক

আজ বুধবার থেকে শুরু হওয়া কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্যে জরুরি প্রয়োজনে যাঁদের বের হতে হবে, অনলাইনে তাঁদের পুলিশের মুভমেন্ট পাস নিতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, প্রশাসন, চিকিৎসক, সংবাদকর্মীসহ করোনার সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে কর্মরত ব্যক্তিরা ছাড়া অন্যদের যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে এই পাস নিতে হবে। খুব অল্প সময়ে পরিচয়পত্র, লাইসেন্স, গন্তব্য ও চলাচলের বিষয়ে তথ্য দিয়ে অনলাইনেই মিলবে এই পাস। কম্পিউটারে ও মোবাইল ফোনে এই পাস গ্রহণ করে প্রিন্ট কপি কিংবা স্ক্রিনে প্রদর্শন করতে হবে। নাগরিকদের পাস নিতে বাধ্য করা না হলেও পাস থাকলে সুবিধা হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। বিধি-নিষেধের সময় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বুধবার থেকে আপনাদের ঘরের বাইরে দেখতে চাই না।’ গতকাল মঙ্গলবার রাজারবাগ পুলিশ অডিটরিয়ামে অনলাইনে মুভমেন্ট পাস ওয়েবসাইটের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আইজিপি সেবার বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

এদিকে গতকাল মুভমেন্ট পাস ওয়েবসাইট চালুর পরই আবেদনের হিড়িক পড়ে যায়। প্রথম ঘণ্টায় সোয়া লাখ আবেদন জমা পড়ে। এরপর প্রতি মিনিটে ১৫ হাজার করে আবেদন জমা পড়ে। ভেরিফিকেশনের পর্যায়ক্রমিক তথ্য যাচাইয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে পাস দেওয়ার এই কার্যক্রম এক পর্যায়ে চাপে পড়ে। বিকেলে নির্দিষ্ট সাইটের লিংকে অনেকে ঢুকতে পারেননি। পুলিশের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলছেন, বেশি চাপ পড়ায় সিস্টেমে একটু সমস্যা হয়েছে। তবে যাঁরা আবেদন করছেন সবারটিই সিস্টেমে নেওয়া হবে।

আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ আরো বলেন, ‘জরুরি প্রয়োজনে বের হবেন। ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরতে হবে এবং বাইরে থেকে ঘরে ফিরে স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার হবেন। আপনার মাধ্যমে যেন আপনার প্রিয়জন করোনায় সংক্রমিত না হয়, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যদি জরুরি প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হতে চান তাহলে মুভমেন্ট পাস নিতে হবে। মাত্র ৩০ সেকেন্ডেই এই পাস নেওয়া যাবে। একজন ব্যক্তি তাঁর মোবাইল বা কম্পিউটার ব্যবহার করে পাস নিতে পারবেন। তবে একটি মোবাইল নম্বরে একবারই এই পাস নেওয়া যাবে।’

movementpass.police.gov.bd ওয়েবসাইটে ঢুকে এই পাস সংগ্রহ করা যাবে। টিকা গ্রহণ, মুদি দোকানে কেনাকাটা, কাঁচাবাজার, ওষুধপত্র, চিকিৎসা, চাকরি, কৃষিকাজ, পণ্য পরিবহন ও সরবরাহ, ত্রাণ বিতরণ, মৃতদেহ সৎকার, ব্যবসা ও অন্যান্য ক্যাটাগরিতে আবেদন করা যাচ্ছে। মুভমেন্ট পাস ক্লিক করে মোবাইল নম্বরটি দিতে হবে। গ্রাহকের মোবাইলে একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) চলে যাবে। ওটিপি এলে পাসের জন্য আবেদনপ্রক্রিয়া শুরু হবে। যে থানা এলাকা থেকে যাবেন, যে থানা এলাকায় যাবেন, নাম, লিঙ্গ, বয়স, ভ্রমণের কারণ, পাস ব্যবহারের তারিখ ও সময়, পাসের মেয়াদ শেষের তারিখ ও সময়, জাতীয় পরিচয়পত্র, নিজস্ব গাড়ির তথ্য ও ছবি—এসব দিতে হবে।

চালুর পর গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ছয় লাখ মানুষ এই সাইটে ঢোকেন, যার মধ্যে ৬০ হাজার রেজিস্ট্রেশন করেছেন। এর মধ্যে ৩০ হাজার ব্যক্তিকে পাস ইস্যু করা হয়েছে। আবার অনেক পাসপ্রত্যাশী বলেছেন, তাঁরা সাইটে ঢুকতে পারেননি।

জানতে চাইলে পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি, মিডিয়া) সোহেল রানা

বলেন, ‘একসঙ্গে অনেক অবেদন করায় হয়তো সাইটে একটু সমস্যা হয়েছে। তবে সংশ্লিষ্ট টিম এটি কাটিয়ে উঠেছে।’

 



সাতদিনের সেরা