kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

সর্বোচ্চ ৭৬২৬, শনাক্তের দিনে মৃত্যু ৬৩

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সর্বোচ্চ ৭৬২৬, শনাক্তের দিনে মৃত্যু ৬৩

দেশে করোনায় আক্রান্ত হিসাবে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই ছাড়িয়ে যাচ্ছে আগের রেকর্ড। মৃত্যুও থাকছে কাছাকাছি। গতকাল বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টার হিসাবে শনাক্ত হয়েছে সাত হাজার ৬২৬ জন, যা এ পর্যন্ত দেশে এক দিনে সর্বোচ্চ। একই দিনে মারা গেছে ৬৩ জন। যারা মারা গেছে তাদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৪১ জন বা ৬৫ শতাংশ ঢাকা বিভাগের। অন্যদিকে মৃত ৬৩ জনের মধ্যে ৮৩ শতাংশের বয়স ৫০ বছরের ওপরে। এ ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা ঢাকায় যেমন সর্বোচ্চ সতর্কতার জন্য তাগিদ দিয়েছেন, তেমনি ৫০ বছরের বেশি বয়সী মানুষের জন্য সুরক্ষার ওপরও বেশি জোর দিচ্ছেন।

বাংলাদেশ মেডিসিন সোসাইটির সভাপতি ও মুগদা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর বলেন, ‘ঢাকা এখনো প্রধান হটস্পট, আর বয়স্করাই সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঝুঁকিতে রয়েছে। ফলে এই দুটি বিষয়ের প্রতি সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।’

অন্যদিকে ঢাকা থেকে যাওয়া মানুষের মাধ্যমেই ঢাকার বাইরে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে মত দিয়েছেন বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কে আজাদ খান।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল জানানো হয়, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টার হিসাবে দেশে পরীক্ষা হয়েছে মোট ৩৪ হাজার ৬৩০টি নমুনার। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছে সাত হাজার ৬২৬ জন। একই ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে তিন হাজার ২৫৬ জন ও মারা গেছে ৬৩ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত দেশে শনাক্ত ছয় লাখ ৫৯ হাজার ২৭৮ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে পাঁচ লাখ ৬১ হাজার ৬৩৯ ও মারা গেছে ৯ হাজার ৪৪৭ জন।

এ ছাড়া ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৬৩ জনের মধ্যে ৩৯ জন পুরুষ ও ২৪ জন নারী। যাদের মধ্যে ১১-২০ বছরের একজন, ২১-৩০ বছরের তিনজন, ৩১-৪০ বছরের দুজন, ৪১-৫০ বছরের পাঁচজন, ৫১-৬০ বছরের ১২ জন ও ষাটোর্ধ্ব ৪০ জন। যাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৪১ জন, চট্টগ্রামের ১০ জন, রাজশাহীর চারজন, খুলনার দুজন, বরিশালের একজন, সিলেটের তিনজন ও ময়মনসিংহের দুজন রয়েছে। যাদের সবাই হাসপাতালে মারা গেছে। এখন পর্যন্ত মোট মৃতদের মধ্যে সাত হাজার ৮২ জন পুরুষ ও দুই হাজার ৩৬৫ জন নারী। যাদের মধ্যে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ৪৩৯ জন মারা গেছে ঢাকা বিভাগের এবং সর্বোচ্চ সাত হাজার ৬২৭ জন বা ৮১ শতাংশের বয়স ৫১ বছরের বেশি ছিল। আর সবচেয়ে কম বা ৩৯ জন বা ০.৪১ শতাংশ ছিল ১০ বছরের কম বয়সী শিশু এবং ১১ থেকে ২০ বছরের ছিল ৭০ জন বা ০.৭৪ শতাংশ।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা