kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

বিশেষজ্ঞ মত

আত্মরক্ষার সর্বোচ্চ কৌশল ছাড়া এবার বাঁচার উপায় নেই

ড. মুশতাক হোসেন

৩১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আত্মরক্ষার সর্বোচ্চ কৌশল ছাড়া এবার বাঁচার উপায় নেই

আমরা এবার সত্যি ভয়ানক পরিস্থিতির মুখে পড়েছি। করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রথম ঢেউয়ের চেয়ে বহুগুণ শক্তিশালী হয়ে এবার দ্বিতীয় ঢেউটি এসেছে। বলতে হয়, সুনামির মতো ধ্বংসযজ্ঞ আসছে। আগেরবার হয়তো আমরা যেমনটা আশঙ্কা করছিলাম তেমন বড় ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। যে কারণে দ্বিতীয় ঢেউয়ের শুরুর দিকে অনেকের মধ্যে ধারণা তৈরি হয়েছে যে প্রথমবার যেহেতু বড় কোনো আঘাত আসেনি, এবারও হয়তো আসবে না। ফলে মানুষকে সতর্ক হতে বললেও হচ্ছে না, কিন্তু এরই মধ্যে আঘাত এসে গেছে।

এখন আত্মরক্ষার কৌশলগুলো যদি আমরা ব্যক্তি থেকে রাষ্ট্রীয় পর্যায় পর্যন্ত সঠিকভাবে কার্যকর করতে না পারি কিংবা এ ক্ষেত্রে কোনো ভুল করে ফেলি তবে কিন্তু বড় খেসারত দিতে হবে। মানুষকে বুঝতে হবে আত্মরক্ষার সর্বোচ্চ কৌশল ছাড়া এবার বাঁচার উপায় নেই। সরকার কেবল সহায়তা করতে পারবে। নিজের অসতর্কতায় বা উদাসীনতায় আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতালে বা চিকিৎসার খোঁজে ছুটে কোনো লাভ হবে না। যেভাবে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে তাতে কিন্তু এক পর্যায়ে গিয়ে চিকিৎসার কোনো পথ নাও থাকতে পারে। এখনই সে অবস্থার দিকে চলে এসেছে। ফলে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে, সরকারের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। অবশ্য সরকারের নীতিনির্ধারণী পর্যায় থেকে ধাপে ধাপে নির্দেশনাগুলো কার্যকর করলে এগুলোর ভালো ফল পাওয়া যেতে পারে। কারণ মানুষ হয়তো একবারে ধকল নাও নিতে পারে। এ ক্ষেত্রে মানুষকে সঙ্গে নিয়ে তাদের সচেতন করে কাজে নামতে হবে। তাতে করে মানুষ বিপদের ভয়াবহতা বুঝতে পারবে এবং নিজেরা সম্পৃক্ত হলে সংক্রমণ প্রতিরোধ সহজ হবে।

সরকারের জায়গা থেকে এলাকায় এলাকায় পরীক্ষার ব্যবস্থা বাড়ানো, কন্টাক্ট ট্রেসিং, কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশন কার্যকর করা খুবই জরুরি। কমিউনিটিকে সম্পৃক্ত করে এই কাজ এগিয়ে নিতে হবে।

ড. মুশতাক হোসেন : উপদেষ্টা, রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)

মন্তব্য