kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ স্থগিত চায় জাতিসংঘ

► মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনার দ্রুত স্বাধীন স্বচ্ছ তদন্ত করতে হবে
► কিশোরের ওপর নির্যাতনের অভিযোগে গভীর উদ্বেগ
► এই আইনে আটক সব বন্দিকে মুক্তি দিতে হবে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ স্থগিত চায় জাতিসংঘ

কারাবন্দি লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনা স্বাধীন, স্বচ্ছ ও দ্রুততার সঙ্গে তদন্ত করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাশেলেত। মুশতাকের মৃত্যুর পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ স্থগিত এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে আইনটি পর্যালোচনা করতেও তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। গতকাল সোমবার দুপুরে জেনেভায় এক বিবৃতিতে তিনি এই আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক দপ্তরের প্রধান। তিনিই মানবাধিকার ইস্যুতে জাতিসংঘের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা।

মিশেল ব্যাশেলেত বলেন, ‘মুশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আওতায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল, কার্টুনিস্ট কিশোরের মুক্তি, সাত ছাত্রনেতাসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার হওয়া শ্রমিক নেতা রুহুল আমিনের মুক্তির দাবিতে শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-জনতা ঐক্য পরিষদের নেতা-কর্মীরা গতকাল খুলনা প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলটি আদালত অভিমুখে অগ্রসর হলে ডিসি অফিস চত্বরের প্রবেশমুখে পুলিশ বাধা দেয়। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তারা অফিস চত্বরে প্রবেশ করে। সমাবেশ ও মিছিলে ব্যাপকসংখ্যক পাটকল শ্রমিক অংশ নেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মাধ্যমে মানুষের বাকস্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে। কিছু বলতে গেলেই সরকার ও পুলিশের নির্যাতনের শিকার হতে হচ্ছে। সরকারের সমালোচনা করায় ওই আইনে লেখক মুশতাক আহমেদ ও কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কারাগারেই মারা গেছেন মুশতাক আহমেদ। কিশোরের অবস্থাও ভালো নয়। আবার এটা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে নতুন করে একই আইনে মামলার শিকার হয়েছেন রুহুল আমিন। আমরা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল ও রুহুল আমিনের মুক্তি দাবি করছি।

কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন নিয়াজ মোর্শেদ দোলন, হুমায়ুন কবির, চলচ্চিত্র কর্মী মিহির কান্তি মণ্ডল, মাতঙ্গী নাট্যদলের সদস্য জয়ন্তী, ছাত্র-যুব আন্দোলনের খুলনা মহানগরের সহ-আহ্বায়ক মেহেরুন নাহার, বিপ্লবী ছাত্র আন্দোলনের সুমাইয়া রহমান, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল বিশ্বাস, ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সদস্য আলামিন প্রমুখ।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা