kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭। ২ মার্চ ২০২১। ১৭ রজব ১৪৪২

বাংলাদেশের সঙ্গে ফেরা সাকিবেরও

মাসুদ পারভেজ   

২০ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বাংলাদেশের সঙ্গে ফেরা সাকিবেরও

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দেশের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামছেন সাকিব আল হাসান। দীর্ঘ বিরতির পর আজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে বাংলাদেশও। কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও সাকিবের মুখে যেন মাঠে ফেরার সেই উচ্ছ্বাস। ছবি : মীর ফরিদ

দলকে শুভ কামনা জানানো বার্তার শেষে সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা লিখেছেন, ‘আওয়াজ একটাই—বাংলাদেশ।’ কিন্তু সেই আওয়াজটা তুলবেন কারা?

আজ যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে দিয়ে তাঁর কাছ থেকে ওয়ানডে নেতৃত্বের ব্যাটন তুলে নেবেন তামিম ইকবাল, তখন ‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ’ চিৎকারে গলা ফাটানোর লোকই নেই। থাকবে কোত্থেকে? মাঠে দর্শকের প্রবেশাধিকারই যে নেই। বাংলাদেশের ক্রিকেটারদেরও দর্শকবিহীন মাঠে কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা এই প্রথম।

তবু এই ‘প্রথম’ দারুণ স্বস্তির পরশই বুলিয়ে দিচ্ছে। এই ম্যাচ দিয়েই যে ৩১৪ দিনের অনাকাঙ্ক্ষিত এক বিরতিতে ছেদ পড়ছে। অবশেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে বাংলাদেশ। গত বছরের ১১ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলা টি-টোয়েন্টি ছিল স্বাগতিকদের খেলা শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। এরপর সুদীর্ঘ করোনা বিরতি। ঘরে থাকার যুদ্ধ শেষ করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরাও বিলম্বিত করছিল কোয়ারেন্টিন জটিলতা। আরো আগেই দেশের বাইরে খেলতে যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত খেলার সুযোগ নিজেদের ডেরায়ই।

এখানে হৃত শক্তির ওয়েস্ট ইন্ডিজ হলেও এই সিরিজ শুরুর আগের দিন আলোচনায় চলে এলো ভারতও। ব্রিসবেনের গ্যাবায় আজিঙ্কা রাহানের দলের ঐতিহাসিক সাফল্যের ঘণ্টা চারেকের মধ্যেই তাঁদের নিয়ে এলেন ক্যারিবীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ। শীর্ষস্থানীয় ১০ ক্রিকেটার করোনাভীতির কারণে বাংলাদেশ সফরে না আসার সিদ্ধান্ত না নিলে হয়তো এই সিরিজের দলেই থাকতেন না তিনি। আড়াই বছর পর ওয়ানডে দলে ফেরা এই ক্রিকেটারের দলেও নতুনের ছড়াছড়ি।

আজ যখন তাদের অন্তত সাতজন ক্রিকেটারের ওয়ানডে অভিষেক হচ্ছে, তখন নিষেধাজ্ঞার পর সাকিব আল হাসানকে নিয়ে বাংলাদেশের শক্তি আরো বাড়ছে। নতুন মুখ স্বাগতিক দলেও আছেন। তাঁদের এক বা একাধিকজনের অভিষেকও হতে পারে আজ। তবে এই নতুনরা অভিজ্ঞতার ছায়াও পাচ্ছেন। ক্যারিবীয় দলে সেই ছায়া নেই। অনভিজ্ঞ এই দলের কঠিন অভিযানে সম্ভাব্য বিপর্যয় নিয়ে নেতিবাচক আলোচনা জোরদার হতেই ব্রিসবেনের গ্যাবা থেকে অনুপ্রেরণার খোঁজ করলেন জেসন।

মিলও খুঁজতে চাইলেন। চার টেস্টের সিরিজে চোটজর্জর ভারতের হয়ে কতজনের অভিষেক হয়ে গেল! অনেককে হারিয়েও ভারত যদি বিজয়ীর বেশে বেরিয়ে আসতে পারে, তাহলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ কেন নয়? কাল সন্ধ্যার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জেসন বোঝাতে চাইলেন সেটিই, ‘এটি এমন ব্যাপার (ভারতের সাফল্য), যা আমাদের অনুপ্রাণিত করবে। হ্যাঁ, আমাদের অনেকেরই কাল (আজ) অভিষেক হবে। তবে নিজের ওপর এবং দলের মধ্যে বিশ্বাস থাকলে ম্যাচও জেতা যায়, কিছু অর্জনও করা যায়। ভারত-অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ওটাই দেখিয়ে দিয়েছে। আমরাও সেই একই মানসিকতা নিয়ে খেলতে (এই সিরিজ) নামছি।’

প্রথম ওয়ানডের আগের দিন অনুশীলন না করে হোটেলেই থাকা ক্যারিবীয় দলের চোখ টেলিভিশনে ব্রিসবেন টেস্টেই আটকে ছিল সম্ভবত। অন্যদিকে স্বাগতিকরা ছিল কঠোর অনুশীলনে ব্যস্ত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ম্যাচ থেকেই তারা সামনের লক্ষ্যে অবিচল থাকতে চায়। আজকের ম্যাচ দিয়েই আরেক লড়াইয়ে প্রথম পদক্ষেপ ফেলতে যাচ্ছে তারা। আজই আইসিসির ওয়ানডে লিগে অভিষেক হতে যাচ্ছে তাদের। যে লিগে প্রতিটি পয়েন্ট খুব গুরুত্বপূর্ণ। বাছাই পর্ব এড়িয়ে ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলতে হলে সেরা আট দলের মধ্যে যে থাকা চাই।

নতুন লড়াইয়ের ছন্দটাও শুরু থেকেই ধরতে চান তামিম, ‘এখন তো আর আগের মতো না যে একটি হার কোনো প্রভাব ফেলবে না। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের লড়াই শুরু হচ্ছে এখন থেকে। প্রতিটি পয়েন্ট এখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ।’ শুরু থেকেই বাছাই পর্ব এড়ানোর চিন্তা, ‘২০২৩ বিশ্বকাপের আগে দুই-আড়াই বছরে ৩৩টি ম্যাচ কিন্তু খুব বেশি না। পয়েন্টের জন্য আমাদের ম্যাচ জেতা খুব গুরুত্বপূর্ণ এখন। আমরা এমন একটি জায়গায় থাকতে চাই, যেখান থেকে আমাদের বাছাইয়ে খেলতে হবে না।’

বাছাইয়ের শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যাদের পুরো শক্তির দলের বিপক্ষেই গত ১০ ওয়ানডেতে ব্যবধান ৮-২। টানা জয় শেষ পাঁচটি ম্যাচেই। শুরুটা মসৃণ হতে পারে বলে যখন সর্বত্র আলোচনা, তখনই অস্ট্রেলিয়া সিরিজের ভারতকে দেখিয়ে যেন হুঙ্কার দিয়ে রাখতে চাইলেন জেসন মোহাম্মদও।

সিরিজ বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের হলেও তাই ভারতের আওয়াজও থাকছে!

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা