kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭। ২ মার্চ ২০২১। ১৭ রজব ১৪৪২

বাইডেনের প্রথম দিনই এক ডজন নির্বাহী আদেশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বাইডেনের প্রথম দিনই এক ডজন নির্বাহী আদেশ

প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম কর্মদিবসেই ডজনখানেক নির্বাহী আদেশে সই করবেন জো বাইডেন। এসবের মধ্যে থাকবে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের পুনরায় যোগ দেওয়ার আদেশও। এ ছাড়া ডোনাল্ড ট্রাম্প কয়েকটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন, প্রথম কর্মদিবসে তা-ও বাতিল করবেন বাইডেন।

এদিকে বাইডেনের শপথের আগে ট্রাম্পপন্থীরা সশস্ত্র বিক্ষোভ করতে পারেন—এফবিআইয়ের এমন আশঙ্কার পরিপ্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের সব অঙ্গরাজ্যে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে গত শুক্রবার রাতে ওয়াশিংটনে আগ্নেয়াস্ত্র এবং অর্ধশতাধিক গুলিসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আগামী বুধবার যে জায়গায় বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান হবে, তিনি ওই এলাকায় যাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন। পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করেছে। গ্রেপ্তারের পর ভার্জিনিয়া এলাকার ওয়েসলি বিলার নামের ওই বাসিন্দা আদালতে জানান, তিনি ক্যাপিটলের পার্শ্ববর্তী এলাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করেন। ভুল করে তিনি গাড়িতে আগ্নেয়াস্ত্র রেখে দিয়েছিলেন। ওয়াশিংটনের আদালত জামিন দিলেও ওই ব্যক্তিকে ওয়াশিংটনের বাইরে থাকার আদেশ দিয়েছেন।

বাইডেনের চিফ অব স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন রন ক্লেইন। বাইডেনের প্রশাসনে যাঁরা হোয়াইট হাউসের শীর্ষ পদে থাকবেন, সম্প্রতি তাঁদেরকে একটি স্মারকলিপি পাঠিয়েছেন ক্লেইন। সেখানে তিনি লিখেছেন, জো বাইডেন প্রথম কর্মদিবসেই প্রায় এক ডজন নির্বাহী আদেশে সই করবেন। করোনা মহামারি, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি, জলবায়ু পরিবর্তন ও বর্ণ বৈষম্য বিষয়ে এসব আদেশ দেবেন তিনি। স্মারকলিপিতে ক্লেইন বলেন, ‘এই চারটি ইস্যুতে প্রথম কর্মদিবসেই কার্যকরী পদক্ষেপ নেবেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট। তিনি এসব বিষয় কেবল সমাধানের চেষ্টা করবেন না, একই সঙ্গে বিশ্ব দরবারে যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তি পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবেন।’

নির্বাচনী প্রচারের সময় বাইডেন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তিনি বিজয়ী হলে যুক্তরাষ্ট্র আবারও প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে যাবে। ক্লেইনের ভাষ্য অনুযায়ী, প্রথম কর্মদিবসেই সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন বাইডেন।

ক্ষমতায় আসার পরই সাতটি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ বন্ধ করে দেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে এই তালিকা তিনি আরো দীর্ঘ করেন। বর্তমানে ১৩টি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ক্ষেত্রে নানা বিধিনিষেধ রয়েছে। ক্লেইন জানিয়েছেন, দায়িত্বের প্রথম দিনই সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা বাইডেন বাতিল করে দেবেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, দায়িত্ব নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বাইডেনকে অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো করোনা মহামারি। করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা দ্রুতগতিতে চার লাখের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় দেড় লাখ।

কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা বাইডেনের জন্য আরেকটি বড় চ্যালেঞ্জ। কারণ, মহামারির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে বেকার মানুষের সংখ্যা প্রায় এক কোটি বেড়ে গেছে। এ ছাড়া ট্রাম্পের কয়েক কোটি সমর্থক বাইডেনকে নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে মেনে নিতে রাজি নন। এই বিষয়টিও বাইডেনের জন্য একটা বাড়তি চাপ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা