kalerkantho

বুধবার। ৬ মাঘ ১৪২৭। ২০ জানুয়ারি ২০২১। ৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জল ঘোলা করে সোজা পথে ট্রাম্প

ক্ষমতা হস্তান্তরে সবুজ সংকেত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জল ঘোলা করে সোজা পথে ট্রাম্প

ছবি: ইন্টারনেট

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তোলা, পরাজয় মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানানো এবং ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রশ্নে চুপচাপ থাকা ডোনাল্ড ট্রাম্প শেষমেশ সহজ পথে হাঁটতে শুরু করেছেন। নির্বাচনের প্রায় তিন সপ্তাহ পর প্রথমবারের মতো নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হাতে ক্ষমতা ছাড়ার ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়েছেন তিনি। যদিও কারচুপির অভিযোগ প্রমাণে তিনি আইনি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়াটি দেখভাল করে জেনারেল সার্ভিসেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (জিএসএ)। সোমবার এক টুইট বার্তায় জিএসএর উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, যা যা করা দরকার, তা করতে হবে। তবে নির্বাচনে পরাজয় মানতে অস্বীকৃতি জানিয়ে একই টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমাদের মামলাগুলো জোরালোভাবেই চলবে। আমরা লড়াই চালিয়ে যাব এবং আমার বিশ্বাস, জয় আমাদেরই হবে।’

জিএসএকে কাজ করার অনুমোদন দেওয়ার মানে হলো, বাইডেনের প্রশাসন এখন থেকে কেন্দ্রীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারবে। এ ছাড়া বিভিন্ন তহবিল ব্যবহারের অধিকারসহ অবকাঠামোগত অনেক সুযোগ-সুবিধাও পাবে তারা।

বিবিসির এক খবরে বলা হয়, মিশিগান অঙ্গরাজ্য বাইডেনকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করার পরেই মূলত জিএসএ নিয়ে টুইট করেন ট্রাম্প। সেখানকারকার নির্বাচনী কর্মকর্তাদের এই ঘোষণাকে ট্রাম্পের জন্য বড় ধাক্কা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কেননা সেখানে কারচুপির অভিযোগ তুলে আইনি লড়াই চালিয়ে আসছিলেন তিনি।

বাইডেনের কার্যালয় জানিয়েছে, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের ব্যাপারে জিএসএ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেবে।

এদিকে ট্রাম্প পরাজয় স্বীকার না করলেও যুক্তরাষ্ট্রের বড় বড় ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন বাইডেনের দিকে ঝুঁকতে শুরু করেছে। দেশটির ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব ম্যানুফ্যাকচারার্স এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আগামী দুই মাস আমাদের জাতীয় সক্ষমতার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই দুই মাসে দুটি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে হবে। প্রথমত, করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণ এবং দ্বিতীয়ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার।’

ট্রাম্প প্রশাসন যেন বাইডেনের প্রশাসনকে সহযোগিতা করে, সেই আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘ভুল করার মতো কিংবা অপচয় করার মতো সময় আমাদের হাতে নেই।’

ইউএস চেম্বার অব কমার্স ও ইউনাইটেড এয়ারলাইনসের মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানও এরই মধ্যে বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছে। সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা