kalerkantho

সোমবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৩ সফর ১৪৪২

শিপ্রা জামিনে মুক্ত সিফাতের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আজ

তদন্তকারী কর্মকর্তা বদলের ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত হবে

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

১০ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




শিপ্রা জামিনে মুক্ত সিফাতের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত আজ

পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের ডকুমেন্টারি ফিল্ম নির্মাণকারী দলের অন্যতম সদস্য ও স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিপ্রা রানী দেবনাথ জামিন পেয়েছেন। মাদক মামলায় গতকাল রবিবার জামিনের পর তিনি বিকেলেই কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে বেরিয়ে এসেছেন। এদিকে সিনহা রাশেদের সঙ্গে থাকা শিপ্রার সহপাঠী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের জামিন আবেদন এবং তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তনের ব্যাপারে আজ সোমবার আদালতের সিদ্ধান্ত জানানোর কথা রয়েছে। গতকালই এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তনের আবেদন জানানো হয়েছে।

কক্সবাজারের টেকনাফে মেরিন ড্রাইভ সড়কে গত ৩১ আগস্ট রাতে সিনহা রাশেদকে গুলি করে হত্যা করে পুলিশ। পরদিন হিমছড়ি নিলীমা রিসোর্ট থেকে শিপ্রাকে আটক করেন রামুর হিমছড়ি পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক শফিকুল ইসলাম। এরপর তাঁর কাছ থেকে বিদেশি মদের দুটি বোতল, এক পুরিয়া গাঁজা ও এক বোতল চোলাই মদ উদ্ধারের কথা বলে রামু থানায় মাদকের মামলা করে পুলিশ।

শিপ্রা দেবনাথের আইনজীবী রফিক উদ্দিন চৌধুরী জানান, গত বৃহস্পতিবারই জামিনের আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের শুনানির নির্ধারিত ধার্য দিন ছিল গতকাল। বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক দেলোয়ার হোসেন শামীম আবেদনের শুনানি শেষে শিপ্রা দেবনাথকে জামিনে মুক্তির আদেশ দেন।

আদালতে কর্মরত রামু জেনারেল রেকর্ড অফিসার (জিআরও) পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক বাবুল বড়ুয়াকে মামলার নথি দেখে সঠিক তথ্য সংগ্রহের অনুরোধ জানালেও তাতে তিনি অসহযোগিতা করেন।

এদিকে টেকনাফ থানায় করা গত ৩১ জুলাই রাতে পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর সিনহা হত্যা মামলা এবং সিফাতের বিরুদ্ধে ৫০ পিস ইয়াবা ও আড়াই শ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার নিয়ে করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তনের আবেদন জানানো হয়েছে আদালতে। আসামিপক্ষের নিয়োজিত আইনজীবী মোহাম্মদ মোস্তফা ও মাহবুবুল আলম টিপু বলেন, ‘আদালতকে আমরা জানিয়েছি যে পুরো মামলার কার্যক্রম তদন্তে আদালত ইতিপূর্বে নির্দেশনা দিয়েছেন র‌্যাবকে তদন্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করতে। তাই পুলিশের বদলে মাদক ও হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবকে করার দায়িত্ব দেওয়া হোক।’ তাঁরা জানান, আদালতে আজ সোমবার মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

শিপ্রার পরিবারের প্রতিক্রিয়া

কুষ্টিয়া থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার হাজরাহাটি গ্রামের নবকুমার দেবনাথের একমাত্র মেয়ে শিপ্রা রানী দেবনাথ। তিনি স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। গতকাল জামিন নিয়ে বিকেলে কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে বেরিয়ে আসার পর শিপ্রাকে দ্রুত গাড়িতে তুলে নিয়ে যান স্বজনরা। এ সময় তাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলতে দেওয়া হয়নি। স্বজনরাও কিছু বলেননি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা