kalerkantho

রবিবার। ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭। ৯ আগস্ট ২০২০ । ১৮ জিলহজ ১৪৪১

২৪ ঘণ্টায় ৪৪ জনসহ মোট মৃত্যু ২০৯৬

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



২৪ ঘণ্টায় ৪৪ জনসহ মোট মৃত্যু ২০৯৬

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত একজন থেকে এখন সর্বোচ্চ অন্য একজনের মধ্যেই ছড়াতে পারবে। আগে এটা ছিল আড়াইজন। অর্থাৎ সংক্রমণের হার এখন মাত্র ০.৯৯ শতাংশ। সংক্রমণ নিম্নগামী হওয়ার ক্ষেত্রে এই সূচক সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখে। আইইডিসিআর সূত্রে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে দেশে এ পর্যন্ত সম্পন্ন হওয়া করোনাভাইরাস পরীক্ষার প্রায় ৬৪ শতাংশই হয়েছে ঢাকায়। বাকি ৩৬ শতাংশ দেশের অন্যান্য জেলায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সূত্রে তুলে ধরা হয়েছে এ তথ্য।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে গতকাল সোমবার জানানো হয়েছে, পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় দেশে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৫ হাজার ২০১টি।

আগে জমা থাকা নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ২৪৫টি। মোট পরীক্ষা হয়েছে আট লাখ ৬০ হাজার ৩৬০টি।

দেশে করোনায় আরো মৃত্যু হয়েছে ৪৪ জনের। সেই সঙ্গে নতুন শনাক্ত হয়েছে তিন হাজার ২০১ জন। সুস্থ হয়েছে তিন হাজার ৫২৪ জন। সব মিলিয়ে দেশে মোট শনাক্ত সংখ্যা এক লাখ ৬৫ হাজার ৬১৮ জন। মোট সুস্থ হয়েছে ৭৬ হাজার ১৪৯ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৯৬ জন। এর মধ্যে সুস্থ হওয়ার হার সবচেয়ে বেশি ৪৫.৯৮ শতাংশ। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২২.৪৭ শতাংশ। মৃত্যুহার ১.২৭ শতাংশ।

বুলেটিনের তথ্য অনুসারে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ৩৩ জন পুরুষ, বাকি ১১ জন নারী। বয়স অনুসারে ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ছয়জন ও ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন।

বিভাগীয় হিসাবে মৃতদের মধ্যে ঢাকায় ১৭, চট্টগ্রামে ১১, বরিশালে চার, রাজশাহী ও সিলেটে তিনজন করে এবং খুলনা, রংপুর ও ময়মনসিংহে দুজন করে রয়েছে। তাদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছে ৩৫ জন এবং বাসায় ৯ জন। এ পর্যন্ত মৃতদের মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৬৫৭ ও নারী ৪৩৯ জন।

বুলেটিনে জানানো হয়, গতকাল পর্যন্ত আইসোলেশনে ছিল ১৬ হাজার ৭৯৪ জন এবং কোয়ারেন্টিনে ৬৩ হাজার ৮০১ জন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা