kalerkantho

শনিবার । ২৭ আষাঢ় ১৪২৭। ১১ জুলাই ২০২০। ১৯ জিলকদ ১৪৪১

করোনা সংক্রমণের উপসর্গ

পুলিশ কর্মকর্তাসহ আরো ১৯ মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৬ মিনিটে



পুলিশ কর্মকর্তাসহ আরো ১৯ মৃত্যু

করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে আরো ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে চট্টগ্রামে এক পুলিশ কর্মকর্তা ও প্রবীণ আইনজীবী রয়েছেন। মরদেহগুলো থেকে নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার কালের কণ্ঠ’র স্থানীয় অফিস এবং নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিরা বিস্তারিত জানিয়েছেন।

চট্টগ্রাম : করোনাভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে গতকাল তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে দুজন ও চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে একজন মারা যান। এই তিনজনের মধ্যে পুলিশের একজন এএসআই ও একজন প্রবীণ আইনজীবী রয়েছেন। 

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. আব্দুর রব জানান, আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৬টায় ৫৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তি এবং সকাল ১১টায় ৮৬ বছর বয়সী এক আইনজীবী মারা যান। এর মধ্যে ৫৩ বছর বয়সী ব্যক্তি গত সোমবার আইসিইউতে ভর্তি হন। আর আইনজীবী ভর্তি হয়েছিলেন ৩০ মে।

এ ছাড়া গতকাল সকালে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ৪৫ বছর বয়সী পুলিশের একজন এএসআই। নগরীর সদরঘাট থানায় কর্মরত ওই পুলিশ সদস্য জ্বর-সর্দি নিয়ে গত ১৯ মে থেকে বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ২৭ মে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। করোনার উপসর্গ থাকায় মরদেহের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

ঝালকাঠি : নলছিটিতে জামাল উদ্দিন হাওলাদার নামের (৬০) এক ব্যক্তির করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকালে উপজেলার রায়াপুর গ্রামের বাড়িতে তিনি মারা যান। এক সপ্তাহ ধরে তাঁর জ্বর-সর্দি ও শ্বাসকষ্ট ছিল।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহিন জানান, জামাল উদ্দিন আগে থেকে শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত ছিলেন। বিষয়টি সিভিল সার্জনকে জানানোর পর মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে গত সোমবার শাখাওয়াত হোসেন মোল্লা (৫০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শহরের পৌরসভা খেয়াঘাট এলাকার বাসায় বুকে ব্যথা নিয়ে তিনি মারা যান। তিনি সদর উপজেলার নুরুল্লাপুর গ্রামের বাসিন্দা ও নুরুল্লাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. শ্যামল কৃষ্ণ হাওলাদার।

খুলনা : করোনা উপসর্গ নিয়ে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফ্লু কর্নার ও করোনা হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে দুজন গতকাল ও একজন সোমবার রাতে মারা যান।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কনসালট্যান্ট ও ফ্লু ওয়ার্ডের ফোকাল পারসন ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস জানান, যশোর জেলার ঝিকরগাছার এক ব্যক্তি (৫২) গত সোমবার বিকেলে হাসপাতালে ভর্তি হন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। একই জেলার মণিরামপুর উপজেলার গাংরা গ্রামের এক নারী (৩৬) কিডনির সমস্যা নিয়ে সোমবার খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি হন। গভীর রাতে শ্বাসকষ্টের জন্য তাকে ফ্লু ওয়ার্ডে আনা হলে ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়। অপর ঘটনায় গতকাল সকালে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি নগরীর সোনাডাঙ্গা এলাকার এক বাসিন্দা (৩৯) মারা যান। তিনি তিন দিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন। মরদেহগুলো থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

বরিশাল : শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৭৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তি শ্বাসকষ্ট ও জ্বর নিয়ে রবিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাঁকে আইসিইউতে পাঠানো হয়। সোমবার বিকেলে তিনি মারা যান। তাঁর বাড়ি বরিশাল নগরীর দক্ষিণ আলেকান্দার কাজীপাড়ায়। ৫০ বয়স বয়স্ক আরেক রোগী সোমবার বিকেলে করোনা ওয়ার্ডে ভর্তির পরপরই মারা যান। তাঁর বাড়ি পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায়। অপরজন সোমবার দুপুরে ভর্তির দু’ঘণ্টার মধ্যে মারা যান। তাঁর বাড়ি ভোলার চরফ্যাশনে।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. বাকির হোসেন বলেন, করোনা পরীক্ষার জন্য তিনজনেরই নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

কুমিল্লা : লাকসামে গতকাল সকালে করোনার উপসর্গ নিয়ে স্বপন কান্তি সাহা (৪৬) ও লোকমান হোসেন (৪৪) নামের দুই ব্যবসায়ী মারা গেছেন। এ ছাড়া নাঙ্গলকোটে করোনার উপসর্গ নিয়ে আফসার উদ্দিন (৪০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তিনি সোমবার রাতে উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের চৌকুড়ির নিজ বাড়িতে মারা যান। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মেনে তাঁদের দাফন ও সৎকার করা হয়েছে।

নীলফামারী : সৈয়দপুরে করোনার উপসর্গ নিয়ে সুফি জিয়াউদ্দিন ওরফে বাবু (৪৬) নামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন। তিনি গতকাল রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

জানা গেছে, শহরের নয়াটোলা এলাকার বাসিন্দা সুফি জিয়াউদ্দিন বাবু কয়েক দিন ধরে জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। গত সোমবার রাতে অসুস্থতা বেড়ে গেলে তাঁকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু মো. আলেমুল বাসার করোনা উপসর্গ নিয়ে বাবুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নারায়ণগঞ্জ : করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে সোনারগাঁয় এক দিনে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. পলাশ কুমার সাহা জানান, গতকাল দুপুরে উপজেলার বারদী ইউনিয়নের বড় আলমদী আবুল বাশার ও দৈলেরদী গ্রামের মুকবুল হোসেন মারা যান। এ ছাড়া সোমবার রাতে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়িচিনিষ গ্রামে মারা যান আবেদুন নেছা নামের এক নারী।

এলাকাবাসী জানায়, মুকবুল হোসেন ও আবুল বাশার কয়েক দিন ধরে সর্দি, জ্বর ও কাশির পাশাপাশি শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এ ছাড়া মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়িচিনিষ গ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মেয়ে নার্গিস আক্তারের মৃত্যুর ১৬ দিন পর মা আবেদুন নেছার (৬৫) মৃত্যু হয়। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় লাশ দাফন করা হয়।

ময়মনসিংহ : ভালুকায় হাফেজ আলী আজগর (৪৫) নামের এক ব্যক্তি গতকাল করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তিনি উপজেলার মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের সাতেঙ্গা গ্রামের ঠাকুরভিটার মরহুম আবদুল মোতালেবের ছেলে। পরে বিশেষ ব্যবস্থায় তাঁর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

জানা যায়, টঙ্গীতে একটি মসজিদের ইমাম ছিলেন হাফেজ আলী আজগর। পাশাপাশি তিনি মাদরাসায় শিক্ষকতা করতেন। ঈদের আগের রাতে তিনি বাড়িতে আসেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

ইউএনও মাসুদ কামাল জানান, খবর পেয়ে মরদেহের নমুনা সংগ্রহ করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিশেষ টিমের মাধ্যমে তাঁর দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা