kalerkantho

বুধবার । ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩ জুন ২০২০। ১০ শাওয়াল ১৪৪১

দেশ ঘরবন্দি, সেনাবাহিনী পুলিশ র‌্যাবের টহল

করোনা রোধে নির্দেশনা না মানলেই শাস্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



করোনা রোধে নির্দেশনা না মানলেই শাস্তি

করোনাভাইরাস মোকাবেলার অংশ হিসেবে গতকাল রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন যানবাহনে জীবাণুনাশক ছিটান সেনাবাহিনীর সদস্যরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে গত বৃহস্পতিবার থেকে দেশব্যাপী টানা ১০ দিনের ছুটি চলছে। মানুষের স্থানান্তর বন্ধ করতে নেওয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ। এমনকি গতকাল শুক্রবার সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে জুমার জামাত। মসজিদ থেকেও মুসল্লিদের দেওয়া হয়েছে নানা উপদেশ। সারা দেশেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মাঠে কাজ করছে সশস্ত্র বাহিনী। মূলত সামাজিক দূরত্ব ও প্রবাসীদের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করার ওপরই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে। আর যারা সরকারি নির্দেশনা মানছে না, তাদের শাস্তির আওতায়ও আনা হচ্ছে।

গতকাল সারা দেশেই সেনাবাহিনী, পুলিশ ও র‌্যাবের জোরদার টহল লক্ষ করা যায়। অনেক জায়গায়ই সচেতনতা বাড়াতে করা হয়েছে মাইকিং। রাস্তা, ড্রেন ও খোলা জায়গায় ছিটানো হয়েছে জীবাণুনাশক। একই সঙ্গে গরিব ও দুস্থ মানুষ যারা কাজে যেতে পারছে না তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসছে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ।

রাজধানীর প্রধান সড়কগুলো গতকাল ছিল একেবারেই ফাঁকা। ছিল না গণপরিবহন। প্রধান সড়কসহ বড় বড় রাস্তায় ছিল পুলিশ ও সেনাবাহিনীর টহল। বেশির ভাগ মানুষই ছিল ঘরবন্দি। প্রয়োজন অনুসারে সংশ্লিষ্ট সরকারি দপ্তর, কাঁচাবাজার, ওষুধের দোকান, হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিসসহ অন্যান্য জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটি ছাড়া সীমিত পরিসরে প্রতিদিন দুই ঘণ্টা ব্যাংকও খোলা থাকবে।

গতকাল জুমার নামাজের পর অলিগলিতে কিছু লোকজন দেখা যায়। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ অধিকাংশ মসজিদে সংক্ষিপ্তভাবে পবিত্র জুমার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। মোনাজাতে করোনাভাইরাস থেকে মুক্তির জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়। অন্য অনেক মসজিদ থেকেও মাস্ক পরে জামাতে আসার আহ্বান জানানো হয়। আর যাদের জ্বর-কাশি আছে তাদের বাড়িতেই নামাজ আদায় করার অনুরোধ জানানো হয়।

সরকারি নির্দেশনায় গত বৃহস্পতিবার থেকে অফিস-আদালত, গণপরিবহন, বিপণিবিতান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট, ট্রেন, নৌযানসহ দেশে সব যোগাযোগ মাধ্যমই বন্ধ রয়েছে। বিজিএমইএর পক্ষ থেকে গত বৃহস্পতিবারই পোশাক কারখানাগুলো বন্ধের আহ্বান জানানো হয়। তবে তৈরি পোশাক কারখানাগুলোর ব্যাপারে সরাসরি কোনো নির্দেশনা ছিল না। আর গতকাল বিকেএমইএ আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত নিট পোশাক কারখানা বন্ধের নির্দেশনা দেয়।

পিরোজপুরের কাউখালীতে করোনা সংক্রমণ রোধে নির্দেশনা না মেনে দোকান খুলে জনসমাগম সৃষ্টির দায়ে দুই ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ডাদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ফরিদপুরে নির্দেশনা উপেক্ষা করে সেলুনে চুল কাটা ও চুল কাটানোর দায়ে দুই ব্যক্তিকে এক হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই আদালত বিভিন্ন অভিযোগে আরো তিন ব্যক্তিকে ১৭ হাজার টাকাসহ মোট ১৮ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা করেন।

গোপালগঞ্জে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনা সদস্যরা অভিযান চালিয়ে একটি হাট ভেঙে দেন। গতকাল দুপুরে গোপালগঞ্জ শহরের বড় বাজারে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে সাপ্তাহিক হাট বসতে শুরু করে। ব্যবসায়ীরাও দোকানপাট নিয়ে বসতে শুরু করে। এই হাটে চার থেকে পাঁচ হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। খবর পেয়ে তাঁরা সেখানে উপস্থিত হয়ে অভিযান চালান।

কুড়িগ্রামের উলিপুরে স্থানীয় প্রশাসনের সমন্বয়ে মাঠে কাজ করছে সেনাবাহিনী। গতকাল সকাল থেকে সেনাবাহিনী আসার খবর পেয়ে বাইরে অবস্থান করা লোকজন দ্রুত সটকে পড়ে। জনমানবশূন্য হয়ে পড়ে স্থানীয় হাট-বাজারগুলো।

সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হাসান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা সচেতনতায় জোর দিয়েছি। পাশাপাশি অযথা কেউ যেন জনসমাগম না করে সে বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছি।’

সামাজিক সচেতনতা ও দূরত্ব সৃষ্টিতে বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতা দিতে জামালপুর জেলায় মাঠে নেমেছেন সেনা সদস্যরা। গতকাল সকালে জেলা শহরের প্রধান সড়কের বিভিন্ন মোড়ে ও অলিগলিতে সেনা সদস্যদের জনসচেতনতামূলক কাজ করতে দেখা গেছে। তারা শহরের অলিগলিতে বাসাবাড়ির সামনে জীবাণুনাশক ছিটান এবং সরকারি বিধিনিষেধ মেনে চলার আহ্বান জানান। 

নবীগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে কাজীর বাজার, ইনাতগঞ্জ বাজার, আউশকান্দি বাজারসহ শহরের আরো কয়েকটি এলাকায় কাজ করে সেনাবাহিনী। তাদের দেখে নির্দেশ অমান্য করে খুলে রাখা দোকানগুলো দ্রুত বন্ধ হয়ে যায়। রিকশাচালকরাও রাস্তা থেকে সরে যান।

নওগাঁয় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে সেনাবাহিনী সচেতনতামূলক বিভিন্ন কাজ শুরু করেছে। সেনা সদস্যরা সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করে জনগণকে বাড়িতে নিরাপদে থাকা এবং অন্যকে নিরাপদে রাখার পরামর্শ দেন। শহরের বিভিন্ন রাস্তায় জীবাণুনাশক মিশ্রিত পানিও ছিটানো হয়।

নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ জানান, সেনা সদস্যরা জেলা প্রশাসনের সঙ্গে শহরের মুক্তির মোড় ও গোস্তহাটির মোড়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ, মাইকিং ও বাজার মনিটরিং করেছেন।

সিলেটের রাস্তাঘাট এখন ফাঁকা। মার্কেটগুলো বন্ধ। এ অবস্থায় গতকাল থেকে সিলেট নগরসহ বিভিন্ন উপজেলায় টহল জোরদার করেছে সশস্ত্র বাহিনী। জেলায় সেনাবাহিনীর ১৫টি টিম টহল দিচ্ছে। তারা প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের না হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে। গতকাল সড়কগুলোয় দু-একটি ব্যক্তিগত গাড়ি ও মোটরসাইকেল ছাড়া কোনো গণপরিবহন চলাচল করেনি।

কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসন ১৩টি উপজেলায় যাদের আয় রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে তাদের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তালিকাভুক্ত প্রতিটি পরিবারকে ১০ কেজি চাল, পাঁচ কেজি আলু ও দুই কেজি ডাল দেওয়া হচ্ছে। এই খাদ্যসহায়তা সংশ্লিষ্টদের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে। তবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা সরকারি সহায়তা আরো বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন।

স্বল্পমূল্যে নিম্ন আয়ের মানুষের পণ্যপ্রাপ্তির জন্য চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সততা স্টোর স্থাপন করা হয়েছে। এ জন্য উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে সাধারণ ক্রেতার ভিড় বাড়ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, স্বল্পমূল্যে নিম্ন আয়ের মানুষজনের জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ক্রেতারা সততা স্টোর থেকে নিজ হাতে সব কিছু সংগ্রহ করছে। পণ্যের দামও তারা নিজ হাতেই নির্ধারিত বাক্সে জমা দিয়ে যাচ্ছে।

[প্রতিবেদনটি তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন নিজস্ব প্রতিবেদক এবং জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিরা]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা