kalerkantho

রবিবার । ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩১  মে ২০২০। ৭ শাওয়াল ১৪৪১

শিবচরে বন্ধ গণপরিবহন দোকানপাট

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

২০ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শিবচরে বন্ধ গণপরিবহন দোকানপাট

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার দুটি ওয়ার্ড ও দুটি গ্রাম বন্ধ করে দিয়েছে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন। এ এলাকাগুলোর জনগণকে চলাচলে সীমাবদ্ধতা মেনে চলতে বলা হয়েছে। উপজেলার গণপরিবহন, বিশেষ করে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে

প্রশাসন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম। তবে উপজেলা পরিষদের এ সভায় প্রথম উপজেলার ওষুধ, মুদিসহ জরুরি সেবা বাদে সব দোকানপাট ও গণপরিবহন বন্ধ ঘোষণা করা হলেও পরে তা সংশোধন করা হয়। এদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী মুঠোফোনে সবাইকে সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছেন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ সম্মেলনকক্ষে এক জরুরি সভার আয়োজন করে প্রশাসন। করোনা সংক্রমণ এড়াতে সভায় বিভিন্ন ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  সবশেষে জেলা প্রশাসন সূত্র নিশ্চিত করেছে, করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা থেকে শিবচর পৌরসভার দুটি ওয়ার্ড, পাঁচ্চর ইউনিয়নের একটি গ্রাম ও দক্ষিণ বহেরাতলা ইউনিয়নের একটি গ্রাম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এসব এলাকার মানুষদের চলাচল সীমিত করা হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলার গণপরিবহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

সভায় জানানো হয়, সম্প্রতি জেলায় প্রায় সাড়ে তিন হাজার প্রবাসী এসেছে। এর মধ্যে শিবচরেই এসেছে ৬৬৪ জন। জরুরি এই সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন খান, পৌরসভার মেয়র আওলাদ হোসেন খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান, সহকারী পুলিশ সুপার আবির হোসেন, ওসি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা আক্তার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শশাঙ্ক ঘোষ,  উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম, পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক শংকর ঘোষ, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ইলিয়াস পাশা, সাধারণ সম্পাদক খায়রুজ্জামান খান, প্রেস ক্লাব সভাপতি এ কে এম নাসিরুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, এসব এলাকায় জনগণের চলাচল সীমিত করতে কঠোর থাকবে প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ এড়ানোর জন্য শিবচর পৌরসভার দুটি ওয়ার্ড ও দুই ইউনিয়নের দুই গ্রামের জনগণের চলাচল সীমিত করা হয়েছে। এই উপজেলার গণপরিবহন বিশেষ করে বাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এটাকে আমরা কনটেইনমেন্ট বলছি।’

স্থানীয় সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ভাইরাসটি থেকে মুক্ত থাকতে সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ করছি।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা