kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

কেউ বাজারে, কেউ বিয়ের পিঁড়িতে!

হোম কোয়ারেন্টিন নিয়ে কঠোর প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৭ মিনিটে



কেউ বাজারে, কেউ বিয়ের পিঁড়িতে!

মাহবুবুর রহমান থাকেন ফ্রান্সে। করোনাভাইরাসের ভয়ে গত শনিবার দেশের বাড়ি হবিগঞ্জের মাধবপুরে নোঙর করেন। এসেই হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে প্রশাসনের পাক্কা নির্দেশনা ছিল। এর পরও বিয়ে করার তর সইছিল না তাঁর। করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে বিয়ের পিঁড়িতে যেন তাঁকে বসতেই হবে! অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেওয়া হয় কমপক্ষে ৮০০ মানুষকে। এতে বাদ সাধে স্থানীয় প্রশাসন। বন্ধ করে দেওয়া হয় ওই প্রবাসীর বিয়ের আয়োজন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মাধবপুরের আমবাড়িয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিয়ে বন্ধ করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার। মাহবুবুর রহমানকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এদিকে গত ৮ মার্চ গ্রিস থেকে মৌলভীবাজার সদরের ইসলামপুর গ্রামে ফেরেন এক যুবক। তিনিও দেশে এসেই বিয়ের আয়োজনে নামেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত গতকাল তাঁর বিয়েও বন্ধ করে দিয়েছেন। একই সঙ্গে মেয়ের অভিভাবক এবং কমিউনিটি সেন্টারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। মৌলভীবাজার জেলা শহরের পৌর কমিউনিটি সেন্টারে ঘটে এ ঘটনা। এদিকে একই জেলার কুলাউড়ায় হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে বিয়ে করায় রিয়াদ উদ্দিন নামের এক দুবাইপ্রবাসীকে গুনতে হয়েছে ১০ হাজার টাকা। নববধূকে সঙ্গে নিয়ে তাঁকে থাকতে হচ্ছে হোম কোয়ারেন্টিনে।

এ ছাড়া হোম কোয়ারেন্টিনের মধ্যেই বিদেশফেরত অনেকেই ঘুরছেন হাট-বাজারে। অনেকেই দিচ্ছেন বন্ধুদের সঙ্গে চায়ের আড্ডা। অনেকে ছুটছেন শ্বশুরবাড়ি। দেশজুড়ে এভাবেই চলছে করোনাভাইরাস ঠেকানোর ‘হোম কোয়ারেন্টিন’। তবে প্রশাসনও আগের চেয়ে অনেক কঠোর। যেখানেই অনিয়ম মিলছে সেখানেই ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে করা হচ্ছে জরিমানা। সে কারণে গতকাল জরিমানা গুনতে হয়েছে অনেককেই। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতার জন্য প্রচার চলছে সমানতালে।

এদিকে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) থেকে গতকাল পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী দেশে ৯ হাজার ১৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এদিকে বিদেশফেরত নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সব স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানে কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। গত বুধবার এসংক্রান্ত অফিস আদেশ জারি করা হয়।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টাঙ্গাইলের গোপালপুরে ২০১ গম্বুজ মসজিদে আজ শুক্রবারের জুমার নামাজ বন্ধ রাখার ঘোষণা এসেছে। গতকাল মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা রফিকুল ইসলাম এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। 

জরিমানা : হোম কোয়ারেন্টিনের নির্দেশনা না মানায় মুন্সীগঞ্জ সদর, টঙ্গিবাড়ী ও সিরাজদিখানে পাঁচ প্রবাসীকে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাঁচ প্রবাসী হলেন সিঙ্গাপুরফেরত দীপক বর্মণ, সংযুক্ত আরব আমিরাতফেরত মো. করিম, ইতালিফেরত হারুন অর রশীদ, সৌদিফেরত শহিদুল ইসলাম ও ইরাকফেরত মিনু আক্তার। এদিকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ছেলেকে ব্যবসার কাজে মুন্সীগঞ্জ থেকে নারায়ণগঞ্জে পাঠানোয় ওই প্রবাসীর বাবা রঘুনাথ বর্মণকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে দুই প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনের নির্দেশ না মেনে ঘুরে বেড়ানোর অপরাধে একজনকে ২০ হাজার এবং অন্যজনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ আইন না মানায় জামালপুরের মেলান্দহে ভ্রাম্যমাণ আদালত সৌদিফেরত একজনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। নেত্রকোনার মদনে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা মালয়েশিয়াফেরত এক যুবক বিয়ের প্রস্তুতি নেওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। রাঙামাটিতে ভারতফেরত দুই ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে দুজনকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। টাঙ্গাইলের গোপালপুরে কোয়ারেন্টিনে না থেকে স্থানীয় বাজারে  ঘোরাঘুরি করায় সিঙ্গাপুরফেরত এক ব্যক্তিকে ১০ হাজার টাকা এবং একই কারণে বাসাইলে অপর এক ব্যক্তিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে ঘাটাইলে সৌদি আরবফেরত নাসির মণ্ডলকে একই অপরাধে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে দিব্যি ঘুরে বেড়ানোর দায়ে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ইতালিফেরত মো. আব্দুল আজিজ ও আমেরিকাফেরত মো. দাউদকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গায় হোম কোয়ারেন্টিন অমান্য করে বাড়ির বাইরে আসায় দুবাইফেরত মাদার আলীকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক।

এদিকে রাজশাহীর পুঠিয়ায় বাড়ির বাইরে ঘোরাঘুরি করায় দুবাইফেরত এক যুবককে ছয় হাজার টাকা জরিমানা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। অন্যদিকে স্কুল ছুটি থাকলেও বার্ষিক বনভোজন করার অপরাধে রাজশাহী নগরীর শিরোইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিরাঞ্জন প্রামাণিককে আটক করে পরে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। নওগাঁয় কাতারফেরত মোজাফফর হোসেনকে চার হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পিরোজপুরে ইতালি ও মালয়েশিয়া প্রবাসী দুজনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে আট হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ঠাকুরগাঁওয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা ভঙ্গ করায় মালয়েশিয়াফেরত এক নারীকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

মানিকগঞ্জে বিদেশফেরত শাহীন মিয়া ও আসমা আক্তার নামের দুই প্রবাসীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মো. আকরাম হোসেন নামের ইতালিফেরত এক ব্যক্তিকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বগুড়ার ধুনটে বিপ্লব হোসেন নামের এক মালয়েশিয়াপ্রবাসীকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এদিকে আদমদীঘির সান্তাহারে হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে শ্বশুরবাড়িতে ১২ দিন অবস্থান করায় আমেরিকাফেরত জামাইকে এক হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বাগেরহাটের চিতলমারীতে বিদেশফেরত জিহাদ শেখকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পটুয়াখালীতে হোম কোয়ারেন্টিনে না থাকায় সজল কর্মকার নামের এক ব্যবসায়ীকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সাতক্ষীরা শহরের কামালনগরের মালদ্বীপপ্রবাসী কামরুজ্জামান নামের এক যুবককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে তিন প্রবাসীকে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ঝালকাঠির রাজাপুরে হোম কোয়ারেন্টিনে না থেকে বাইরে ঘোরাফেরা করার অপরাধে বিদেশফেরত তিনজনকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বিদেশফেরত এক ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টিনে না থাকায় স্বামী-স্ত্রীকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বরগুনার বামনায় এক ইতালিপ্রবাসীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভোলায় ছয় প্রবাসীকে ৩১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

হোম কোয়ারেন্টিন : বরিশালের জেলা জজ, এডিসিসহ বিভাগের ৪০৭ জনকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। সিলেট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১৫৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় ৫৬৫ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হলো। এদিকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা প্রবাসীরা সরকারি নির্দেশ ঠিকমতো মানছেন কি না, তা পর্যবেক্ষণে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পাঁচটি টিম গঠন করা হয়েছে।

বগুড়ার ধুনটে করোনাভাইরাস পর্যবেক্ষণের জন্য গ্রাম পুলিশের পাহারায় দুই প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১৪ জনকে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া চট্টগ্রামে ১১ জন, রাজশাহীতে ১৬ জন, মুন্সীগঞ্জে ১৫১ জন, গোপালগঞ্জে ৫২ জন, জামালপুরে ৫১ জন, নওগাঁয় ১৩৪ জন, পিরোজপুরে ৮৩ জন, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে ২৪ জন, কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১২৭ ও পাকুন্দিয়ায় ১৭ জন, মানিকগঞ্জে ৬৩ জন, মাগুরায় ৮১ জন, ঝালকাঠিতে ৫৮ জন, টাঙ্গাইলে ১৬০ জন, চাঁদপুরে ১৭১ জন, বগুড়ার নন্দীগ্রামে পাঁচজন, বরগুনার বামনায় ২০ জন, কুমিল্লায় ৩০১ জন, পটুয়াখালীর গলাচিপায় ৭৩ জন, সাতক্ষীরায় ৫০ জন, সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে ১৫ জন, হবিগঞ্জে ১২৭ জন, যশোরে ৬৭ জন, বাগেরহাটের মোংলায় ২১৯ জন, কুড়িগ্রামে ৩৫ জন, নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় আটজন, সিরাজগঞ্জে ৩৬ জন, নীলফামারীতে ৫২ জন, বান্দরবানে ১২ জন, রাজবাড়ীতে ৯০ জন এবং শ্রীমঙ্গলে ৬৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

সচেতনতা : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পটুয়াখালীতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে জেলা প্রশাসন। এ ক্ষেত্রে অন্য জেলার বাসিন্দাদের প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ঝালকাঠিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতার জন্য প্রচার শুরু করেছে জেলা পুলিশ। গতকাল দুপুরে শহরের বিভিন্ন স্থানে পথচারীদের হাতে লিফলেট তুলে দেওয়া হয়। বগুড়ার নন্দীগ্রামে আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে এবং প্রতিকারের উপায় সম্পর্কে সর্বসাধারণকে সচেতন করতে মাইকিং করছে উপজেলা প্রশাসন। করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা বাড়াতে মৌলভীবাজার পৌরসভার উদ্যোগে শহরে লিফলেট বিতরণ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

[প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক, আঞ্চলিক অফিস ও প্রতিনিধিরা]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা