kalerkantho

শনিবার । ৯ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪১

‘মেশিনে ভোট কিভাবে হয় দেখার ইচ্ছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘মেশিনে ভোট কিভাবে হয় দেখার ইচ্ছে’

মিরপুরের কালশী রোডের পশ্চিম মাথায় ‘খাবার বিলাস’ রেস্টুরেন্টের সামনে বসে পান-সিগারেট বিক্রি করেন হারুন পাথর। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ভোটার তিনি। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী তাঁর জন্ম ১৯৭২ সালে। তবে অভাব-অনাহারে শরীরে বার্ধক্যের ছাপ। ভোট দিতে যাবেন কি না জানতে চাইলে হারুন পাথর গতকাল শনিবার বলেন, ‘ব্যালটে সিল মেরে তো অনেকবার ভোট দিয়েছি। এবার দেখার খুব ইচ্ছে মেশিনে ভোট কিভাবে হয়।’

গতকাল সকাল ১১টার দিকে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে এক কাউন্সিলর পদপ্রার্থীর গণসংযোগ দেখছিলেন হারুন। আসন্ন নির্বাচনে ভোট দিতে কেন্দ্রে যাবেন কি না জানতে চাইলে প্রথমে তিনি হাঁটা শুরু করেন উল্টো দিকে। এড়িয়ে যাচ্ছেন মনে করে আবার ডাক দিতেই ইশারায় অপেক্ষা করতে বললেন। পান-সিগারেটের বাক্সের কাছে গিয়ে কিছু একটা নিয়ে ফিরলেন। কাছে এসে জাতীয় পরিচয়পত্রটা হাতে ধরিয়ে দিয়ে হারুন বললেন, ‘গত সিটি করপোরেশন ও জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দিতে গিয়ে ফিরে আসতে হয়েছে। কেন্দ্রের বাইরে থেকে কিছু লোক তাড়িয়ে দিয়েছে। বলেছে, ভোট হয়ে গেছে। সে জন্য এবার প্রথমে ভেবেছিলাম ভোট দিতে যাব না। তবে মত বদল করেছি। শুনলাম, এবার মেশিনে ভোট হবে। মেশিনের কথা শুনে ভোট দেওয়ার আগ্রহ জেগেছে। ব্যালটে সিল মেরে তো অনেকবার ভোট দিয়েছি। এবার দেখার খুব ইচ্ছে মেশিনে কিভাবে ভোট হয়। সে জন্য সব সময় জাতীয় পরিচয়পত্র কাছে রাখি, যেন হারিয়ে না যায়। এ ছাড়া মনে হচ্ছে এবার মেশিনের কারবার, ব্যালট তো আর নেই, কেউ সিল মেরে ভোট নিতে পারবে না।’

কাকে ভোট দেবেন জানতে চাইলে হারুন মুচকি হেসে বলেন, ‘ওটা গোপন ব্যাপার।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা