kalerkantho

শনিবার । ৯ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪১

টুঙ্গিপাড়ায় আ. লীগের বৈঠকে শেখ হাসিনা

অর্জনের সুফল তৃণমূলে পৌঁছে দিতে কাজ করছি

নিজস্ব প্রতিবেদক ও গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৫ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অর্জনের সুফল তৃণমূলে পৌঁছে দিতে কাজ করছি

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা গতকাল দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ছবি : পিআইডি

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘একেবারে তৃণমূল পর্যায়ে গ্রামের মানুষ যেন আমাদের সব অর্জনের সুফল পায় সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলব—এটাই আমাদের লক্ষ্য। আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতাকর্মীকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে চলতে হবে।’ গতকাল শুক্রবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও উপদেষ্টা পরিষদের এক যৌথ সভায় শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। যৌথ সভার আগে আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে তিনি বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ২১তম জাতীয় সম্মেলনের পর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের এটাই প্রথম টুঙ্গিপাড়া সফর।

যৌথ সভায় শেখ হাসিনা জানান, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কর্মকাণ্ড নিয়ে ব্যস্ত থাকার কারণে আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে আসতে পারেননি। তিনি বলেন, ‘সিটি নির্বাচনে যারা কাজ করছে, তাদের থাকার দরকার নেই। বাকি যারা থাকবে, তাদের নিয়ে আবার আসব। পরবর্তীতে নোটিশ নিয়ে ওয়ার্কিং কমিটির সভা করা হবে।’

এরপর উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে ও আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সভা সমাপ্ত করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশে টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করেন তিনি। নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় নেতাদের বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন : গতকাল দুপুর ১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নবগঠিত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান। তিনি প্রথমে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এবং পরে কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এ সময় সশস্ত্র বাহিনী কর্তৃক গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। পরে ফাতেহা পাঠ এবং বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের মধ্যে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মতিয়া চৌধুরী, কাজী জাফর উল্যাহ, সাহারা খাতুন এবং নবগঠিত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ, স্থানীয় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জুমার নামাজের পর বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে কেন্দ্রীয় নেতারা অংশ নেন। পরে নবগঠিত কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল সকাল ১১টা ১০ মিনিটে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা কমপ্লেক্স মাঠে অবতরণ করেন। এ সময় হেলিপ্যাডে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা তাঁকে স্বাগত জানান। সেখান থেকে ১১টা ২০ মিনিটে সড়কপথে তিনি বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে পৌঁছেন। আর কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা সড়কপথে টুঙ্গিপাড়ায় আসেন।

প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের আগমনকে কেন্দ্র করে টুঙ্গিপাড়াসহ জেলার সর্বত্র তিন স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তাবলয় গড়ে তোলা হয়। গোপালগঞ্জের প্রবেশদ্বার মুকসুদপুর থেকে টুঙ্গিপাড়া পর্যন্ত সড়কে নির্মাণ করা হয় অসংখ্য তোরণ। বিভিন্ন স্থানে ব্যানার-ফেস্টুন হাতে নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা