kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

বঙ্গবন্ধু বিপিএল

দেশ মাতবে বর্ণাঢ্য উদ্বোধনে

সরাসরি দেখাবে নিউজ ২৪

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দেশ মাতবে বর্ণাঢ্য উদ্বোধনে

বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মহড়া। গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে। ছবি : সৌজন্য

নাজমুল হাসান প্রতিদিন একবার হলেও আসছেন মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। গতকালও রাতের আলোয় স্টেডিয়ামের সবুজ চত্বরে দাঁড়িয়ে পড়া ঝকঝকে মঞ্চের আশপাশে পর্যবেক্ষণ করেছেন বিসিবি সভাপতি। বোর্ডের শীর্ষকর্তার এ তৎপরতাই বলে দেয় যে এবারের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ আরো বেশি ক্রিকেটমুখী করে তুলেছে নাজমুল হাসানকে। আজ জমকালো উদ্বোধন দিয়ে যা শুরু হবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপনের মধ্য দিয়ে।

বঙ্গবন্ধুর নাম জড়িয়ে বলেই এবারের বিপিএলে সেই অর্থে কোনো টাইটেল স্পন্সর নেই। তবে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে যুক্ত হয়েছে আকাশ ডিটিএইচ। আর আজকের বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক বসুন্ধরা গ্রুপ। প্রায় চার ঘণ্টার এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঘটবে দেশি-বিদেশি তারকাদের মেলা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। তবে অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকেল ৫টায়। স্থানীয় শিল্পীদের পারফরম্যান্স দিয়ে শুরু এ অনুষ্ঠানের জন্য স্টেডিয়ামের সব প্রবেশ পথ দুপুর আড়াইটায় খুলে বন্ধ করে দেওয়া হবে বিকেল সাড়ে ৫টায়। ৬টায় জেমস, জনপ্রিয় শিল্পী মমতাজ ৭টায়, এরপর একে একে ভারতের সনু নিগম এবং আরেকজন শিল্পী সংগীত পরিবেশন করবেন। এরপর মঞ্চ মাতাবেন বলিউডের দুই তারকা সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। এবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও যোগ হচ্ছে নতুনত্ব। মঞ্চের পাশে ৯টি জায়ান্ট স্ক্রিন বসানো হয়েছে, যা স্মরণকালের সেরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেরই ইঙ্গিত দিচ্ছে। আজ উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাত দলের এবারের আসর মাঠে গড়াবে ১১ ডিসেম্বর।

বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল গতকাল জানিয়েছেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি শেষ ধাপে। সব কিছু খুব ভালোভাবে এগোচ্ছে। একটু পরই (গতকাল সন্ধ্যায়) ভারতীয় পারফরমাররা রিহার্সালের জন্য আসবে। আতশবাজিও পরীক্ষা করে দেখা হবে।’ ভারতীয় শিল্পী সনু নিগমের কাছে বিশেষ অনুরোধও জানিয়েছেন শেখ সোহেল, ‘আমি তাঁর কাছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা একটি গান পাঠিয়েছি। ওই গান দিয়েই ওর পারফরম্যান্স শুরু হবে।’ স্টেডিয়ামের ভেতরে বেশ কয়েকটি এলইডি স্ক্রিন বসিয়েছে বিসিবি, যেগুলোতে ফুটে উঠবে বঙ্গবন্ধুর জীবনালেখ্য। এদিকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রবেশ মূল্য বেশি বলে কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। তবে সেটিকে অমূলকই মনে করছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের প্রধান, ‘ভিআইপি টিকিটের মূল্য রাখা হয়েছে ১০ হাজার টাকা। এত কম দামে এ ধরনের অনুষ্ঠানের টিকিট বাংলাদেশের ইতিহাসে বিক্রি হয়নি। যেবার শাহরুখ ও সালমান খান এসেছিলেন, সেবার মানুষ ৫০-৬০ হাজার টাকা দিয়েও টিকিট কিনে অনুষ্ঠান দেখেছেন।’

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ব্যাপ্তি। দুই ভাগে অনুষ্ঠানের সময়কাল আনুমানিক ছয় ঘণ্টা। আশা করা হচ্ছে আজকের মধ্যেই ঢাকায় পৌঁছে যাবেন ভারতীয় শিল্পীরা। তাই শুধু মাঠের অনুষ্ঠানেই সীমাবদ্ধ নয় বিসিবির কর্মপরিকল্পনা। বিমানবন্দর থেকে অতিথিদের স্টেডিয়ামে নিয়ে আসাও রয়েছে বিসিবির কার্যপরিধিতে। নিজাম উদ্দিন সব কিছু নির্ঝঞ্ঝাটভাবে সম্পন্ন করার ব্যাপারে আশাবাদী, ‘আমাদের লজিস্টিকস এবং মঞ্চকেন্দ্রিক কর্মকাণ্ড পরিকল্পনামাফিকই এগোচ্ছে। আপনারা সবাই জানেন যে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন। তাই নিরাপত্তার ব্যাপারে বাড়তি কিছু সতর্কতা আমরা অবলম্বন করছি। আশা করছি সব শিল্পী আজ (গতকাল) নয়তো আগামীকাল (আজ) সকালের মধ্যেই পৌঁছে যাবেন। পুরো অনুষ্ঠানকে আমরা দুই ভাগে ভাগ করেছি, প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনী ঘোষণার আগে ও পরে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অবশ্য বিপিএলে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর জন্য প্যারেড জাতীয় কিছু নেই। ‘অনুষ্ঠানের জন্য খেলোয়াড়দের নিমন্ত্রণ করা হয়েছে। তবে তাঁদের জন্য অনুষ্ঠানে বিশেষ কোনো সেগমেন্ট নেই। বিশ্বের অন্যান্য টুর্নামেন্টেও এমনটাই হয়।’

তবে নতুন আঙ্গিকের বঙ্গবন্ধু বিপিএল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নতুন মাইলস্টোনই হয়ে থাকবে এ দেশে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা