kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র!

আবদুল্লাহ আল মামুন ও ওমর ফারুক   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৬ মিনিটে



সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র!

পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি, অস্থিতিশীল বাজার পরিস্থিতিসহ সাম্প্রতিক বেশ কিছু ঘটনায় আওয়ামী লীগ সরকার সংকটের মুখে রয়েছে। এ অবস্থায় দলটির নীতিনির্ধারকরা বলছেন, সরকারের জনপ্রিয়তা নষ্ট করা এবং জনগণকে খেপিয়ে তুলতে এটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র। নীল নকশার অংশ হিসেবে সাম্প্রতিক অবস্থার সৃষ্টি করা হয়েছে। উসকানি ছড়িয়ে ভোলায় পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি, সিরাজগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনা, চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে তাঁরা মনে করেন। অবশ্য এই সংকট থেকে দ্রুত উত্তরণের ব্যাপারেও আশা প্রকাশ করছেন তাঁরা।  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে বলেন, ‘বাংলাদেশ যখনই উন্নয়ন এবং অগ্রগতির পথে এগিয়ে যায়, তখনই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কোনো না কোনো ষড়যন্ত্র হয়। আবার দেশে নতুন করে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। অবশ্য তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেছেন যে এই ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং আরো এগিয়ে যাবে। এই আশাবাদ ব্যক্ত করার দুই দিন পর গত শনিবার তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে বলেন, পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধিতে যে সমস্যা দেখা দিয়েছে, তা নিরসনে কার্গো বিমান ভাড়া করে আমরা পেঁয়াজ আনা শুরু করেছি। কাজেই আর চিন্তা নেই।’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম গতকাল রবিবার কালের কণ্ঠকে বলেন, ভোলায় ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে উসকানি ও পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, পেঁয়াজ ও চালের মূল্য বৃদ্ধিসহ সিরাজগঞ্জের ট্রেন দুর্ঘটনার প্রতি গভীর দৃষ্টি দিলেই বোঝা যায় এগুলো সবই হচ্ছে সরকারের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র। একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। এর পেছনে বিএনপি-জামায়াতের একটা অশুভ মহল কাজ করছে। অবশ্য এ ধরনের ষড়যন্ত্র নতুন নয়, আগেও বহুবার হয়েছে। তিনিও আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, যত ষড়যন্ত্রই চলুক না কেন সরকার তা রুখে দিতে পারবে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান কালের কণ্ঠকে বলেন, এসব উদ্বেগজনক ঘটনা। গত এক মাসে যেসব ঘটনা ঘটেছে তাতে ষড়যন্ত্রের আঁচ করা যায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বিষয়টি অনেকের সহ্য হচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, ‘যখনই বাংলাদেশ সামনের দিকে এগোনোর চেষ্টা করেছে তখনই পেছন থেকে টেনে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। তাই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ কালের কণ্ঠকে বলেন, একটি অশুভ মহল সরকারকে অজনপ্রিয় করার চেষ্টা করছে। সেজন্য ভোলায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পেঁয়াজ ও চালের মূল্য বৃদ্ধির পেছনে এদের কারসাজি রয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির রাজনীতি এখন পেঁয়াজের মধ্যে আশ্রয় নিয়েছে। বাজার পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করে তোলার জন্য তিনিও অশুভ মহলকে দায়ী করে বলেন, এসব সরকারের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র।

গোয়েন্দা সূত্র কালের কণ্ঠকে জানিয়েছে, ভোলার ঘটনার পর থেকেই দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য একটি মহলের তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এ কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দুর্ঘটনা, পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধিসহ যেসব ঘটনা ঘটছে, তার ওপর নজর রাখছেন গোয়েন্দারা। ফেসবুক ব্যবহার করে কারা আন্দোলনের উৎসাহ জোগাচ্ছে সে বিষয়টিও নজরদারি করা হচ্ছে। এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা কালের কণ্ঠকে বলেন, সন্দেহ করা হচ্ছে—এসব ঘটনার পেছনে কোনো ষড়যন্ত্র রয়েছে। দেশে পর পর দুটি ট্রেন দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটায় সন্দেহ আরো জোরালো হয়েছে। সব কিছু মিলিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার বিষয়টি গভীরভাবে অনুসন্ধান করে দেখা হচ্ছে।

জানতে চাইলে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, কোনো একটা ঘটনা ঘটার পর সেটা নিয়ে আন্দোলন শুরু হলে একটি মহলকে সেখানে প্রবেশ করতে দেখা যায়। তারা সরকারকে বিব্রত করার জন্য আন্দোলনকে বেগবান করার চেষ্টা চালায়। এ মহলটি যেন ঘটনা ঘটার পর সরকারকে বিব্রত করার জন্য প্রস্তুতি নিয়েই থাকে। প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকাণ্ড, ঢাকায় বাস দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনা, ভোলার ঘটনাসহ গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাগুলোর পর ওই মহলকে আন্দোলন প্রসারিত করে সরকারকে বিব্রত করার জন্য তৎপর হতে দেখা গেছে।

সরকারের নীতিনির্ধারকরা বলছেন, পেঁয়াজের সঙ্গে সঙ্গে চালের বাজারও অস্থির হয়ে উঠছে। গত এক সপ্তাহে চালের দাম কেজিপ্রতি ছয়-আট টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। এই মূল্য বৃদ্ধিতে একটি মহল কারসাজি করছে। তারা সরকারকে অজনপ্রিয় করার মিশন নিয়ে নেমেছে। সিরাজগঞ্জের ট্রেন দুর্ঘটনায় রেলওয়ের তদন্তেও ঘটনার পেছনে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

প্রসঙ্গত, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর গত শনিবার পঞ্চগড়ে এক অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ‘২০১৪ সালে দেখেছি, হরতালের নামে দেশের সম্পদ পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে। বাস ও ট্রেনে আগুন দেওয়া হয়েছে। সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনাতেও আমরা সেই ধরনের আলামত পাচ্ছি।’ মন্ত্রী বলেন, ‘এর আগে সিরাজগঞ্জের ওই এলাকায় বনলতা এক্সপ্রেসে ঢিল মারলে দুজন নিহত হন। ওই স্থানেই রংপুর এক্সপ্রেসে দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটেছে। তাই আমরা মনে করি, এটি সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড।’

ভোলার বোরহানউদ্দিনে গত মাসে বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের এক হিন্দু তরুণের বিরুদ্ধে হজরত মোহাম্মদ (সা.)-কে অবমাননার অভিযোগ তোলা হলেও প্রকৃতপক্ষে সেটি করেছিলেন দুজন মুসলিম। ওই হিন্দু তরুণ আগেই তাঁর আইডি হ্যাক্ড হওয়ার কথা জানিয়ে জিডি করেছিলেন থানায়। পুলিশ তদন্ত করে এর সত্যতা পেয়ে ওই অপকর্মে জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তারও করে। স্থানীয় আলেম-উলামা ও গণমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের আলোচনায় বিষয়টি একরকম মিটেও গিয়েছিল। ‘ধর্ম অবমাননার প্রতিবাদে’ সাধারণ মুসল্লিদের ডাকা বিক্ষোভ-সমাবেশের কর্মসূচিও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল। এর পরও ৩০-৪০ জন ‘অচেনা ব্যক্তি’ গিয়ে হঠাৎ পুলিশের ওপর চড়াও হয়। তারা এই বলে গুজব ছড়িয়ে দেয় যে কর্মসূচির নেতৃত্ব দেওয়া আলেমদের পুলিশ আটক করেছে।

স্থানীয় সংবাদকর্মীদের ধারণ করা একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, হঠাৎ একদল যুবক পুলিশের ওপর আক্রমণ করে। পুলিশ কর্মকর্তারা তখন বোরহানউদ্দিনের ঈদগাহ মসজিদের দোতলায় আশ্রয় নিলে সেখানে দরজা-জানালা ভেঙে তাঁদের পেটানো হয়। পুলিশ গুলি ছোড়ার আগেই বাইরে থেকে গুলির শব্দ শোনা যাচ্ছিল। ওই গুলিতেই এক পুলিশ সদস্য আহতও হন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা