kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সংকটের মেঘ সরিয়ে মাঠে ফিরছে ক্রিকেট

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সংকটের মেঘ সরিয়ে মাঠে ফিরছে ক্রিকেট

গণভবন ঘুরে এসে পরিচালনা পর্ষদে নিজের সহকর্মীদের নিয়ে দিনভর অপেক্ষায় থাকলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান। সেই অপেক্ষা সংকট সমাধানে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনায় বসার। অপেক্ষা চলতেই থাকে। দুপুর গড়িয়ে বিকেল, বিকেল পেরিয়ে সন্ধ্যা, সন্ধ্যা শেষে রাত। অবশেষে রাত সোয়া ৯টার দিকে অপেক্ষার অবসান। একে একে আসতে শুরু করেন ক্রিকেটাররা। এসে যেতেই নাজমুল আর ক্রিকেটারদের মধ্যে ঘণ্টা দেড়েকের রুদ্ধদ্বার সভাই মুছে দিয়েছে সংকটের মেঘ। ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়া মেনে নিতেই তিন দিনের অচলাবস্থার পর আবার মাঠে ফিরছে ক্রিকেট। আজ থেকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও একটু পিছিয়ে তাই শনিবার থেকে শুরু হচ্ছে জাতীয় ক্রিকেট লীগের (এনসিএল) তৃতীয় রাউন্ড। এর আগের দিন থেকে ভারত সফর সামনে রেখে অনুশীলনেও যোগ দিচ্ছেন সাকিব আল হাসানরা। আসন্ন ভারত সফর নিয়েও তাই থাকল না আর কোনো অনিশ্চয়তা।

অবশ্য বিকেলেও অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল, যখন খবর এলো গুলশানের এক হোটেলে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন ধর্মঘটে যাওয়া ক্রিকেটাররা। সেখানে গিয়ে দেখা গেল শীর্ষ ক্রিকেটারদের কেউ মঞ্চে নেই। মঞ্চে আছেন তাঁদের নিয়োগ করা একজন আইনজীবী। যাঁকে মুখপাত্র হিসেবে বেছে নিয়েছেন ক্রিকেটাররা। সেই তিনি আগের ১১-এর সঙ্গে আরো দুটো যোগ করে মোট ১৩ দফা দাবি উপস্থাপনও করলেন। যেখানে ১২ নম্বর দাবি ছিল বিসিবির আয়ের ভাগ দিতে হবে পেশাদার ক্রিকেটারদের। একই সঙ্গে পুরুষদের মতো নারী ক্রিকেটারদেরও সব সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার দাবিও জুড়ে দেওয়া হয়। তবে তাতে যে পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়ে যাচ্ছে না, সেটিও নিজেদের সংবাদ সম্মেলনের শেষে জানিয়ে দেন সাকিব, ‘আমরা কেউ কারো থেকে দূরে নই।’

এরপর নিজেদের মধ্যে আরেকটি সভার পর গত তিন দিনে তৈরি হওয়া দূরত্ব ঘুচিয়ে দিতে মিরপুরের পথ ধরেন ক্রিকেটাররা। বোর্ডরুমে প্রশাসক আর ক্রিকেটারদের সেই সভার পর যৌথ সংবাদ সম্মেলনে দুই পক্ষের হাসিমুখ ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়ার স্বস্তিই যেন ফুটিয়ে তুলছিল। নাজমুল বলেন, ‘ওদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ওদের বেশ কিছু দাবি-দাওয়া ছিল। আমি গতকালই (পরশু) বলেছিলাম যে বেশির ভাগই মানার মতো। ওরা আসলেই হয়ে যাবে এবং আজ তা-ই হয়েছে।’ তবে গতকাল যোগ হওয়া দুটি দাবি নিয়ে আলোচনাই হয়নি। এর কারণ ব্যাখ্যায় নাজমুল বলছিলেন, ‘ও দুটো নিয়ে আমরা আলাপ করিনি। আইনজীবীর মাধ্যমে এসেছে বলে আমরা সঙ্গে সঙ্গে ওটা আমাদের আইনি পরামর্শকের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছি। কারণ আইনি কিছু আসলে আমরা তা ধরতেও চাই না, কথাও বলতে চাই না।’

কথা হয়েছে গত সোমবার ক্রিকেটারদের ১১ দাবি নিয়েই। এর মধ্যে দুটি আলাদাই রাখতে চেয়েছেন নাজমুল, ‘‘১১টির মধ্যে প্রথমটিতে (কোয়াবের কমিটির পদত্যাগ) আমাদের কিছু করণীয় নেই। আর শেষেরটির বিষয়ে (দুটোর বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার সুযোগ) বলেছি, এটি আমরা দেখব। যদি কেউ আসে, ‘কেইস টু কেইস’ দেখব। এখন পর্যন্ত আমাদের জানা মতে অনেক খেলোয়াড় নেই যারা নাকি দুটোর বেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লীগ পায়। ঢালাওভাবে এখনই কিছু বলতে চাই না। কারণ এই নিয়ম করার পেছনে আমাদের সুনির্দিষ্ট কারণ ছিল। তার পরও বলেছি, এর চেয়ে বেশি এলে আমরা দেখব।”

এ ছাড়া বাকি ৯টি দাবিই মেনে নিয়েছে বিসিবি। ক্রিকেটারদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে জাতীয় ক্রিকেট লীগের ম্যাচ ফি থেকে শুরু করে অন্যান্য সব দাবিই পূরণ করার কথা নাজমুল জানানোর পর সাকিবও বলেছেন, ‘বেশির ভাগ আলোচনাই ফলপ্রসূ হয়েছে এবং আমাদের যে দাবিগুলো ছিল, সেগুলো বোর্ড সভাপতিসহ পরিচালকরা শুনেছেন। এবং আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন, যত দ্রুততম সময়ে সম্ভব কার্যকর করবেন। সেই আশ্বাসের ভিত্তিতেই শনিবার থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটাররা মাঠে নামছে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়রাও ২৫ অক্টোবর থেকে অনুশীলন শিবিরে যাচ্ছে।’   

সুবাদে ক্রিকেটও ফিরছে মাঠে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা