kalerkantho

মেহেদির রং হাতেই প্রাণ গেল সাদিয়া-ইমরানের

বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীসহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১২

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৬ মিনিটে



 মেহেদির রং হাতেই প্রাণ গেল সাদিয়া-ইমরানের

দুর্ঘটনার কিছুক্ষণ আগে তোলা সেলফিতে ইমরান-সাদিয়া। পেছনের তিন বন্ধুর দুজনই তাঁদের সঙ্গে নিহত হন। ছবি : কালের কণ্ঠ

মাত্র ১০ দিন আগে বিয়ে হয়েছে সাদিয়া আক্তার ও ইমরান হোসেনের। সিলেটে মধুচন্দ্রিমা শেষে ঢাকায় ফেরার পথে গত শুক্রবার রাতে নরসিংদীর শিবপুরে বাস ও প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে প্রাণ গেছে এই নবদম্পতির। একই দুর্ঘটনায় সাদিয়ার দুই সহপাঠী জান্নাত ও আকিব হোসেন নিহত এবং সহপাঠী সজলসহ চারজন আহত হয়েছে। সাদিয়া, জান্নাত, আকিব ও সজল রাজধানীর বেসরকারি মিলেনিয়াম বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএর শিক্ষার্থী। প্রাইভেট কারটিতে পাঁচজন ছিলেন।

আরো সাত জেলায় শুক্রবার রাত থেকে গতকাল শনিবার বিকেল পর্যন্ত ২০ ঘণ্টায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে আটজন। তাদের মধ্যে আছে পুলিশ সদস্য, ব্যবসায়ী ও শিশু। প্রত্যক্ষদর্শী, থানার পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

নরসিংদী : গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে শিবপুর উপজেলার কারার চর এলাকায় মদিনা জুট মিলের সামনে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন প্রাইভেট কারের যাত্রী ঢাকার রমনার নয়াতলা এলাকার মৃত আবুল কালাম আজাদের ছেলে ইমরান হোসেন (৩০), তাঁর স্ত্রী সাদিয়া আক্তার (২৪), খিলগাঁওয়ের মৃত রফিকুল ইসলামের মেয়ে জান্নাত (২৫) ও উত্তর গোরান এলাকার রেজাউল হকের ছেলে আকিব হোসেন (২৭)।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়, প্রাইভেট কারটি শিবপুরের কারার চর এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক ঢাকা থেকে আসা সিলেটগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেট কারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই প্রাইভেট কার যাত্রী ইমরান, জান্নাত ও আকিব নিহত হন। আহত হয় সাদিয়া, তাঁর সহপাঠী সজল ও বাসের তিন যাত্রী। খবর পেয়ে ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের নরসিংদী ও শিবপুরের চারটি ইউনিট দুর্ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়। সেখানে চিকিৎসক সাদিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন। আর আহত বাকি চারজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

সাদিয়ার বড় ভাই রফিকুল ইসলাম জানান, গত ৬ আগস্ট সাদিয়া ও ইমরানের বিয়ে হয়। ঈদের পরদিন তাঁরা মধুচন্দ্রিমা (হানিমুন) এবং হজরত শাহজালাল (রহ.) ও শাহপরানের (রহ.) মাজার জিয়ারত করতে বন্ধুদের নিয়ে সিলেটে যান। সাদিয়ার মা রহিমা বেগম বলেন, ‘হাতের মেহেদির রং মোছার আগেই দুর্ঘটনা আমার মেয়ে ও তাঁর স্বামীকে কেড়ে নিয়েছে। আমি কী নিয়ে বাঁচব?’

নরসিংদী ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘৯৯৯-এ খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাইভেট কারের ভেতরে তিনজনকে আটকা অবস্থায় দেখতে পাই। উদ্ধার করলে দেখা যায়, তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। প্রাইভেট কারটি ক্রস করতে গিয়ে বাসের সঙ্গে লাগে। তখন বাসটি প্রাইভেট কারের ওপর দিয়ে গিয়ে পাশে খাদে পড়ে।’ ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘বেপরোয়া গতিতে পাশ কাটাতে গিয়েই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বাস ও প্রাইভেট কারটি আমাদের হেফাজতে রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

ময়মনসিংহ : সদর উপজেলার শম্ভুগঞ্জ ঝাউগড়া মোড়ে গত শুক্রবার রাতে ট্রাকচাপায় ট্রাফিক কনস্টেবল রবি চৌধুরী (৩৩) নিহত হয়েছেন। তাঁর বাড়ি নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলায়। তাঁর দুটি শিশুসন্তান রয়েছে। পুলিশ ট্রাকটিসহ চালককে আটক করেছে। পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার রাতে শম্ভুগঞ্জ ঝাউগড়া মোড়ে কনস্টেবল রবি ডিউটি করছিলেন। সেখান দিয়ে বাঁশবোঝাই একটি ট্রাক রাজশাহী যাচ্ছিল। রবি ট্রাকটি থামাতে বললেও চালক না থামিয়ে রবির ওপরে তুলে দেয়। তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে রাত ১১টায় তাঁর মৃত্যু হয়।

গোপালগঞ্জ : শহরের কুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গতকাল সকালে বাসচাপায় আরমান শেখ (১২) নামের এক শিশু মোটর শ্রমিক নিহত হয়। সে নড়াইলের নড়াগাতি থানার যোগানিয়া গ্রামের আলামিন শেখের ছেলে। আরমান ঈদের ছুটি শেষে মোটর গ্যারেজের কাজে যোগ দিতে বড় ভাইয়ের সঙ্গে সকালে বাড়ি থেকে কুয়াডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আসে। সড়ক পার হওয়ার সময় টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের একটি দ্রুতগামী বাস তাকে চাপা দেয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাঘারপাড়া (যশোর) : বাঘারপাড়া উপজেলার গলগলিয়া শুকদেবনগর গ্রামে গত শুক্রবার রাতে একটি নছিমন দুর্ঘটনায় এর চালক ফজলুর রহমান (২২) নিহত হন। তিনি শুকদেবনগরের বাবুল সরদারের ছেলে। ফজলুর ভাড়ার আখ মাগুরায় নামিয়ে খালি নছিমন নিয়ে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। পথে নছিমন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে তাঁর মৃত্যু হয়।

মাগুরা : শ্রীপুর উপজেলার বরিষাট এলাকায় মাগুরা-শ্রীপুর সড়কে গতকাল সকালে যাত্রীবাহী বাস ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী জিয়াউর রহমান (৪৫) নিহত হন। আহত হন মোটরসাইকেলটির আরেক আরোহী শামসুজ্জামান (৫৫)। হতাহতদের বাড়ি রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কালুখালী গ্রামে। শামসুজ্জামান মাগুরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নেত্রকোনা : বারহাট্টা উপজেলার অতিথপুরে নেত্রকোনা-মোহনগঞ্জ সড়কে গতকাল সকালে দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে একটির চালক সাইফুল ইসলাম (৪০) নিহত হয়েছেন। তিনি বারহাট্টার ইসলামপুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সাভার (ঢাকা) : গতকাল দুপুরে আশুলিয়ার জিরানী বাজার এলাকায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী আলমগীর হোসেন (৩০) নিহত ও তাঁর বড় ভাই হযরত আলী আহত হয়েছেন। তাঁরা আশুলিয়ার শিমুলিয়া ইউনিয়নের গোহাইলবাড়ী মেশিনপাড় এলাকার মুসলিম উদ্দিন বেপারীর ছেলে। হযরত আলীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয় শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঢাকাগামী পুষ্প এন্টারপ্রাইজের বাস পেছন থেকে চাপা দিলে মোটরসাইকেলটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার এবং ক্ষতিগ্রস্ত মোটরসাইকেল ও বাসটি জব্দ করেছে।

ধামরাই (ঢাকা) : ধামরাইয়ে গত শুক্রবার রাতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক গরু ব্যবসায়ী নিহত এবং অটোরিকশা যাত্রী একই পরিবারের চারজনসহ পাঁচজন আহত হয়েছে। নিহত জহির উদ্দিন (৩২) উপজেলার ঝাউবাধা গ্রামের জয়নাল হোসেনের ছেলে। সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে গতকাল দুপুরে জহিরের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত আরেক মোটরসাইকেল আরোহী আনোয়ার হোসেনসহ অন্যরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচল উপশহরের ১ নম্বর সেক্টরের ৩০০ ফুট সড়কে গতকাল বিকেলে প্রাইভেট কারের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী ইব্রাহিম সরকার (৩৭) নিহত হন। তিনি রাজধানীর খিলক্ষেত থানার মধ্য কাউলা এলাকার সুজন মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় আরিফ, মিজানুর রহমান, জালাল, আশরাফসহ ছয়জন আহত হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক শাহজাহান জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করায়।

মন্তব্য