kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ আগস্ট ২০১৯। ৮ ভাদ্র ১৪২৬। ২১ জিলহজ ১৪৪০

প্রতিবাদী নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যা

হত্যার বিচার শুরু

ফেনী প্রতিনিধি   

২১ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



হত্যার বিচার শুরু

নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যা মামলার অভিযোগ (চার্জ) গঠন সম্পন্ন হয়েছে। ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে গতকাল বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মামুনুর রশিদ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে আগামী ২৭ জুন মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর দিন ধার্য করা হয়েছে।

গতকাল একই আদালতে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন মামলার আসামিরা। নুসরাত নিজের শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলেও দাবি তাদের। আদালতে ১২ আসামির পক্ষে তাদের আইনজীবীরা জামিন আবেদন করলেও তা নাকচ করে দেন বিচারক।

আদালত সূত্র জানায়, সোনাগাজীর ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার ১৬ আসামিকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে গতকাল সকাল ১১টার পর ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে আনা হয়। শুরুতেই আসামিদের বক্তব্য শোনার জন্য আবেদন করেন তাদের আইনজীবীরা। এ সময় বিচারক একে একে ১৬ আসামিকেই কথা বলার সুযোগ দেন। আসামিরা সবাই নিজেদের নির্দোষ দাবি করে বলেন, ‘নানাভাবে নির্যাতন চালিয়ে, হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে পিবিআইয়ের কর্মকর্তারা আমাদের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে বাধ্য করেছেন। নুসরাতকে কেউ হত্যা করেনি। তিনি নিজের শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।’ এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবীরা দাবি করেন, ‘নুসরাতের মৃত্যু-পূর্ব জবানবন্দি গ্রহণও আইনসম্মত হয়নি। তার ওই সময়ে গ্রহণ করা বয়ান সাজানো ছিল।’

আদালত দুপুর ২টা পর্যন্ত মামলার ১৬ আসামি ও তাদের আইনজীবীদের বক্তব্য শোনেন। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ বক্তব্য উপস্থাপন করে এবং আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিশদ বর্ণনা দেয়। মধ্যাহ্ন বিরতির পর বিকেল ৪টায় আবার আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়ে তা ৫টা পর্যন্ত চলে।

আদালতে মামলার আসামি সিরাজ উদ দৌলা, রুহুল আমিন, মকসুদ আলম, আব্দুর রহিম শরীফ, মো. শামীম, শাখাওয়াত হোসেন জাভেদ, মহিউদ্দিন শাকিল, আবসার উদ্দিন, এমরান হোসেন মামুন, উম্মে সুলতানা পপি, কামরুন নাহার মনি ও শাহাদাত হোসেন শামীমের পক্ষে তাদের নিজ নিজ আইনজীবীরা জামিন ও মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন করলে বিচারক তা নাকচ করে দেন। প্রসঙ্গত, নুসরাতকে গত ৬ এপ্রিল মাদরাসা ক্যাম্পাসের ভেতর সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া হত্যা মামলায় ১৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই।

মন্তব্য