kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বার্ন ইউনিটে ৯ জনের মধ্যে আশঙ্কাজনক ৬

‘প্রধানমন্ত্রী প্রতিদিনখোঁজ নিচ্ছেন’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বার্ন ইউনিটে ৯ জনের মধ্যে আশঙ্কাজনক ৬

পুরান ঢাকার চকবাজারে গত বুধবার রাতের অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধদের মধ্যে ৯ জন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন। তাঁদের মধ্যে ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁদের আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। শারীরিক অবস্থা তুলনামূলক কিছুটা ভালো থাকায় বাকি তিনজনকে পোস্ট অপারেটিভ ইউনিটে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রোগীদের মধ্যে সোহাগের শরীরের ৬০ শতাংশ, রেজাউলের ৫১ শতাংশ, জাকিরের ৩৫ শতাংশ, মোজাফফরের ৩০ শতাংশ, আনোয়ারের ২৮ শতাংশ ও হেলালের ১৬ শতাংশ মারাত্মক দগ্ধ হয়েছে। এ ছাড়া পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ডে থাকা সেলিমের শরীরের ১৪ শতাংশ, মাহমুদুলের ১৩ শতাংশ ও সালাহউদ্দিনের ১০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্তলাল সেন গতকাল শুক্রবার রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, এখন পর্যন্ত মোট ছয়জনকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজন হলে বাকিদেরও নেওয়া হবে। তবে আইসিইউতে নেওয়া ছয়জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলা যায়। তিনি আরো বলেন, দর্শনার্থীরা ভিড় করলে আহতদের সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়। এ ক্ষেত্রে সবারই সচেতন থাকাটা জরুরি।

ডা. সামন্তলাল সেন জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিদিনই অগ্নিদগ্ধদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। এমনকি মন্ত্রীরাও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে হাসপাতালে এসে চিকিৎসা কার্যক্রম তদারকি করছেন। সরকারের পক্ষ থেকে চিকিৎসার সব ভার নেওয়া হয়েছে। আইসিইউতে থাকা অগ্নিদগ্ধ আনোয়ার হোসেনের ছেলে জনি গতকাল দুপুরে কালের কণ্ঠকে বলেন, তাঁর বাবার দুই হাত, পিঠ ও গলার পেছনের দিকে পুড়ে গেছে। তবে তিনি কথা বলতে পারছেন। প্রথম দিনের তুলনায় কিছুটা ভালো বোধ করছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা