kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

শেখ হাসিনা হ্যাটট্রিকসহ চারবারের প্রধানমন্ত্রী

বিশেষ প্রতিনিধি   

৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শেখ হাসিনা হ্যাটট্রিকসহ চারবারের প্রধানমন্ত্রী

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের স্ত্রী রাশিদা খানম গতকাল বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এ সময় শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানা উপস্থিত ছিলেন। ছবি : পিআইডি

হ্যাটট্রিকসহ চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এর ফলে দেশে দীর্ঘ সময়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের রেকর্ড গড়লেন তিনি। আর দল হিসেবে আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চতুর্থবারের মতো রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নিল।

গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় বঙ্গভবনের দরবার হলে মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠান শুরু হয়। নিয়ম অনুযায়ী প্রথমে শেখ হাসিনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছ থেকে সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন ও গোপনীয়তার শপথ নেন। প্রধানমন্ত্রী শপথ নেওয়ার পর রাষ্ট্রপতি তাঁকে অভিনন্দন জানান।

শেখ হাসিনা শপথ নেওয়ার পর ছোট বোন শেখ রেহানা তাঁকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের নতুন সূচনায় পরস্পর আলিঙ্গনে আবদ্ধ হন বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, প্রবীণ নেত্রী সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বুকে জড়িয়ে ধরেন, গালে চুমু খান। পরে হাত নেড়ে উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে শপথ অনুষ্ঠানে আসন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেখ রেহানা ছাড়াও তাঁর ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে এসেছিলেন নতুন মন্ত্রিসভার শপথ অনুষ্ঠানে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, সিইসি কে এম নুরুল হুদা এবং বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রতিনিধিরা নতুন সরকারের অভিষেকে উপস্থিত ছিলেন।

নতুন মন্ত্রিসভায় বাদ পড়া আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে আবুল মাল আবদুল মুহিত, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, মতিয়া চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, এ এইচ মাহমুদ আলী, নুরুল ইসলাম নাহিদ, কামরুল ইসলাম, শামসুর রহমান শরীফ ডিলু, শাজাহান খান, মুজিবুল হক, রাশেদ খান মেনন শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

জোট শরিকদের মধ্যে ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, মহাসচিব আবদুল মান্নান ও যুগ্ম মহাসচিব মাহি বি চৌধুরী এবং জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শপথগ্রহণ শেষ হওয়ার পর ২৪ মন্ত্রী শপথ নেন। এরপর ১৯ প্রতিমন্ত্রী এবং সব শেষে তিন উপমন্ত্রী শপথ গ্রহণ করেন। শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মন্ত্রিপরিষদসচিব শফিউল আলম।

 

 

মন্তব্য