kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

ভোট উৎসবের সঙ্গে ছড়াচ্ছে উত্তাপও

►নোয়াখালীতে যুবলীগ নেতা ও ফরিদপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকে হত্যা
►ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুলের গাড়িবহরে হামলা
►কয়েকটি স্থানে সংঘর্ষ-ভাঙচুর, আহত শতাধিক

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ১৭ মিনিটে



ভোট উৎসবের সঙ্গে ছড়াচ্ছে উত্তাপও

চট্টগ্রামে প্রচারণায় নেমে নৌকার নওফেল ও ধানের শীষের নোমানের কোলাকুলি। ছবি : কালের কণ্ঠ

নির্বাচনের প্রচার শুরুর দ্বিতীয় দিনে গতকাল মঙ্গলবার ভোটের আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশে। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের প্রার্থীদের পাশাপাশি সমান তালে প্রচারণায় নেমেছেন বিএনপি নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা। চলছে গণসংযোগ, মিছিল-মিটিং। তবে এরই মধ্যে হামলা, সংঘর্ষ ও নিহতের ঘটনা ঘটেছে। নোয়াখালীর সদর উপজেলায় মো. হানিফ (২৪) নামে এক যুবলীগ নেতাকে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে, পিটিয়ে এবং গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। ফরিদপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তির প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের হামলায় ইউসুফ আল-মামুন (৪০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলা চালানো হয়েছে। কালের কণ্ঠ’র অফিস, নিজস্ব ও আঞ্চলিক প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

প্রচারণায় জোর হাওয়া : সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের পক্ষে গতকাল প্রচারকাজে নামেন বড় ভাই অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিএনপির প্রার্থী খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির নিজের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধনের পাশাপাশি নগরের বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ ও পথসভা করেছেন। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দুপুরে সিলেটে পৌঁছার পর হজরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে ভাইয়ের পক্ষে আনুষ্ঠানিক প্রচারকাজ শুরু করেন।

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে আওয়ামী লীগের বিশাল নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। জনসভায় আরো বক্তব্য দেন সাম্যবাদী দলের দিলীপ বড়ুয়া, স্থানীয় সংসদ সদস্য গাজী আমজাদ হোসেন মিলন, আওয়ামী লীগ মনোনীত অধ্যাপক আব্দুল আজিজ প্রমুখ। নাসিম বলেন, ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে জনগণ ধান কেটে নৌকায় তুলবে।

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক গতকাল প্রচারণা শুরুর জন্য আখাউড়া পৌঁছলে আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশন থেকে সড়ক বাজার হয়ে উপজেলার মনিয়ন্দ পর্যন্ত সড়কের সাত কিলোমিটার পর্যন্ত দুই পাশে হাজার হাজার নারী-পুরুষের ঢল নামে। নৌকা নৌকা স্লোগানে মুখরিত হয় চারদিক।

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের পক্ষে নৌকা প্রতীকের লিফলেট বিতরণ করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল চরফ্যাশন বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ী ও পথচারীদের কাছে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

নেত্রকোনা-৫ (পূর্বধলা) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান সংসদ সদস্য ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল (বীরপ্রতীক) মঙ্গলবার দুপুরে পূর্বধলা বাজার বণিক সমিতির উদ্যোগে সদর পাট বাজারে নির্বাচনী সভার মাধ্যমে প্রচারকাজ শুরু করেন।

মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে সর্বপ্রথম মতবিনিময়সভা করে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থী, চারবারের এমপি সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডা. মোজাম্মেল হোসেন। গতকাল সকাল ১১টায় মোরেলগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয়ে তিনি মতবিনিময়সভা করেন।

রাজশাহী-৬ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহরিয়ার আলমের পক্ষে বাঘা উপজেলার ৫৫টি নির্বাচনকেন্দ্র এলাকায় মাইকিংসহ প্রচার মিছিল করেছে নেতাকর্মীরা। সদরে অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য দেন শাহরিয়ার আলম।

মাদারীপুর-২ (মাদারীপুর সদরের একাংশ-রাজৈর) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান গতকাল সকালে রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানের পক্ষে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল হকের নেতৃত্বে দরগাপাশা, অলদারকান্দি, পাগলা, পূর্ব পাগলা, বীরগাঁও গ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ হয়। ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মাওলানা শাহিনুর পাশা চৌধুরী পাতারিয়া, জয়কলস, ঘাগলি, পূর্ব বীরগাঁওসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেছেন।

মাগুরা-১ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর মাগুরা পৌরসভার ভায়না এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন।

হবিগঞ্জ-২ (বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ) আসনে মনোনয়নকে কেন্দ্র করে বিরোধ ভুলে বানিয়াচংয়ের আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব একমঞ্চে উঠে হাতে হাত রেখে প্রতিজ্ঞা করেছেন—নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে মাঠে-ময়দানে কাজ করবেন। গতকাল বিকেলে উপজেলার শহীদ মিনার প্রাঙ্গণের সভায় এই প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তাঁরা। আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুল মজিদ খানের পক্ষে গতকাল বানিয়াচং আমবাগান উচ্চ বিদ্যালয়ে কর্মিসভায়  নেতাকর্মীদের শপথ পাঠ করানো হয়। পাবনা-১ (সাঁথিয়া-বেড়া আংশিক) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামসুল হক টুকু তাঁর সমর্থক নেতাকর্মীদের নিয়ে মিছিল করেছেন। গণসংহতি আন্দোলনের প্রার্থী জুলহাসনাইন বাবু বেড়া বিবি স্কুলের স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে প্রচারণা শুরু করেন।

রাজবাড়ী-১ আসনে (রাজবাড়ী সদর-গোয়ালন্দ) আওয়ামী লীগ প্রার্থী, চারবারের এমপি শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী সকালে রাজবাড়ী বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেছেন।

সুনামগঞ্জ-৩ আসনের প্রার্থীরা দিনভর তাঁদের নির্বাচনী এলাকায় জনসংযোগ, পথসভা ও উঠান বৈঠক করেছেন। নওগাঁর বদলগাছীতে নওগাঁ-৩ (মহাদেবপুর-বদলগাছী) আসনের বিএনপির প্রার্থী পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকীর পক্ষে কর্মিসমাবেশ ও নির্বাচনী প্রচারণা সভা হয়েছে। পটুয়াখালী-৩ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী এস এম শাহজাদার পক্ষে গতকাল গলাচিপা সদর ইউনিয়নের কালিকাপুর নূরিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় এক কর্মিসভা ও দোয়া অনুষ্ঠান হয়। 

সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ড. জয়া সেনগুপ্তা ও বিএনপি প্রার্থী নাছির উদ্দিন চৌধুরী প্রচারণা শুরু করেছেন। গতকাল দলীয় নেতাকর্মী ও জোটের শরিকদলের নেতাদের নিয়ে নাছির উদ্দিন চৌধুরী এবং মহাজোটের শরিকদের ছাড়া শুধু আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে সভা-সমাবেশ করছেন ড. জয়া সেনগুপ্তা।

ফেনী সদর আসনে ফাজিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে নৌকার সমর্থনে নির্বাচনী জনসভা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। ফেনী-২ আসনের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জয়নাল আবদিন সকালে ফেনীর পাগলা মিয়ার তাকিয়া জিয়ারতের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। ফেনী-১ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাসদ সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার ছাগলনাইয়ায় মহাজোটের বিজয় নিশ্চিত করতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় করেন।

নওগাঁ শহরে নৌকা আর ধানের শীষের প্রচারণা চলছে ব্যাপকভাবে। সদর আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হয়েছেন প্রয়াত জননেতা আব্দুল জলিলের ছেলে ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপির প্রার্থী হয়েছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু।

বুকে নিজের ছবিসংবলিত নির্বাচনী পোস্টার ঝুলিয়ে প্রচারণায় নেমেছেন কুমিল্লা-৮ (বরুড়া) আসনে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মনোনীত প্রার্থী আবদুল আজিজ খোমেনি। তাঁর ভোট চাওয়ার ধরনটাও চমকে দেওয়ার মতো—‘চা খরচের ব্যবস্থা নাই, বটগাছ মার্কায় ভোট চাই’।

যুবলীগ নেতা নিহত : নোয়াখালীর সদর উপজেলার এওজবালিয়া ইউনিয়নের নুরু পাটোয়ারীর হাটসংলগ্ন ইসমাইলনগর এলাকায় মো. হানিফ (২৪) নামে এক যুবলীগ নেতাকে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে, পিটিয়ে এবং গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ হামলার ঘটনায় আরো দুজন আহত হয়েছে। হানিফ ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। গতকাল বিকেলে হত্যার এ ঘটনাটি ঘটে। হানিফের ভাই জানান, হানিফ দুজন সহকর্মীকে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় যুবদল নেতা আবদুর রহিম রিজভীর নেতৃত্বে দুই শতাধিক জামায়াত-বিএনপির ক্যাডার তাদের ওপর মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে, হানিফের পায়ে গুলি করে পালিয়ে যায়। হানিফকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় স্থানীয় জসিম ও লিটন নামে আরো দুজন আহত হয়েছে। তাদেরও নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ইমন ভট্ট বলেন, এওজবালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হানিফকে নির্বাচন সামনে রেখে হত্যা করেছে বিএনপি-জামায়াত ক্যাডাররা। খবর পেয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী হাসপাতালে হতাহতদের দেখতে যান।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম জানান, হানিফের মাথায় এবং শরীরে একাধিক গুলি ও কোপের চিহ্ন রয়েছে। তাঁকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়।  রাতে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, নির্বাচন বানচাল করতে প্রচারণার প্রথম দিনেই সকাল থেকে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা নোয়াখালীর বিভিন্ন স্থানে তাণ্ডবলীলা চালিয়েছে। তাঁরাই হানিফকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে।

আ. লীগ নেতা নিহত : ফরিদপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তির  প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের হামলায় ইউসুফ আল-মামুন (৪০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা নিহত এবং লালন ফকির (৫৬) আহত হয়েছেন। সন্ধ্যায় ফরিদপুর সদর উপজেলার নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের গোলডাঙ্গি চৌরাস্তার মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ইউসুফ নর্থ চ্যানেল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন। আহত লালন ফকির ওই ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

লালন ফকিরের ভাই আফসার ফকির জানান, সন্ধ্যায় চায়ের দোকানে আড্ডায় মজিদ নামে এক ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটূক্তি করেন। ইউসুফ আল-মামুন প্রতিবাদ করলে দুজনের মধ্যে বিতর্কের ঘটনা ঘটে। এ সময় আরো লোকজন এসে ইউসুফকে বাঁশের লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটায়।  খবর পেয়ে ইউসুফের বড় ভাই ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি লালন ফকির ছুটে গেলে তাঁকেও মারধর করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইউসুফকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত লালন ফকিরকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নর্থ চ্যানেল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জমিরউদ্দিন বলেন, ‘আমি এলাকায় ছিলাম না। তবে শুনেছি চায়ের দোকানে বসে আড্ডার একপর্যায়ে মজিদ ও ইউসুফের মধ্যে আওয়ামী-বিএনপি নিয়ে বিতর্কের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে।’

কয়েকটি স্থানে হামলা : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা বেগুনবাড়ী ইউনিয়নের দানারহাট  এলাকায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলা চালানো হয়েছে। তিনি গতকাল নির্বাচনী প্রচারণার উদ্দেশে ঠাকুরগাঁও এসে ওই এলাকায় গণসংযোগ করতে নামলে একদল সন্ত্রাসী লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁর গাড়িবহরে হামলা চালায়। এতে পাঁচটি গাড়ির কাচ ভাঙচুর করা হয়। মির্জা ফখরুল এ জন্য স্থানীয় আওয়ামীপন্থী চেয়ারম্যানকে দায়ী করেছেন। ঠাকুরগাঁও থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, হামলাকারীদের চিহ্নিত করতে মাঠে পুলিশ কাজ করছে।

নরসিংদী-২ আসনে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় বিএনপির প্রার্থী ড. আবদুল মঈন খানের গাড়িবহরে স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। বিকেলে আমদিয়া ইউনিয়নের বেলাব বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রদল ও যুবদলের ১০ নেতাকর্মী আহত হয় এবং ১০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও চারটি মোটরসাইকেল লুট করারও অভিযোগ করা হয়েছে। তবে আওয়ামী লীগ তাদের দুটি নির্বাচনী কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়ার পাল্টা অভিযোগ করছে।

ময়মনসিংহের ফুলপুরে বিএনপির প্রার্থী শাহ শহীদ সারোয়ারের মিছিলে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ-বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়। এ সময় ঢাকা-হালুয়াঘাট-শেরপুর রোডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। কিছু দোকানপাট, গাড়ি, মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।

নোয়াখালীর কবিরহাট বাজারে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এ সময় নির্বাচনী অফিস ও কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করা হয়। পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীর সমর্থনে পাল্টাপাল্টি সভায় কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় দলের অন্তত অর্ধশত নেতাকর্মী ও সমর্থক আহত হয়েছে। বিকেলে উপজেলার খালগোড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আটজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বিএনপি প্রার্থী এম এ মুহিতের পৌর এলাকার শক্তিপুরের বাসভবনে দুপুরে হামলা চালানো হয়। হামলায় বিএনপির প্রায় ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এর আগে সকালে উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি এমদাদুল হক নওসাদ (৫৫) ও পৌর যুবদলের সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ (৩৫) শহরের টাউন মসজিদের পাশে হামলার শিকার হন। বিএনপি এ জন্য ক্ষমতাসীন দলকে দায়ী করেছে। তবে আওয়ামী লীগ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় বিএনপি প্রার্থী জিএম সিরাজের গাড়িবহরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে জিপ-মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও এক যুবদল নেতার বাড়িতে পেট্রল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করেছে। গতকাল দুপুরে ধুনট শহরে ও সোমবার রাতে রাঙামাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপি সূত্রে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যার দিকে এলাঙ্গী বাজার এলাকায় বিএনপিকর্মী নাদিম হোসেন (২৬) ও মাসুদ রানাকে (২২) মারধর করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে এলাঙ্গী ইউনিয়ন যুবদলের সদস্য রাঙামাটি গ্রামের মুরাদ হোসেনের বাড়িতে পেট্রল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। হামলাকারীরা একই সময় বিএনপিকর্মী রাঙামাটি গ্রামের মুনজুরুল হক ও ভুলু মিয়ার দোকানঘর ভাঙচুর করেছে। খবর পেয়ে গতকাল সকালের দিকে বগুড়া-৫ (শেরপুর-ধুনট) আসনের বিএনপি প্রার্থী জি এম সিরাজ যুবদল নেতা মুরাদ হোসেনের বাড়ি পরিদর্শনের উদ্দেশে রওনা হলে শহরের কলাপট্টি এলাকায় হামলায় তাঁর জিপগাড়িসহ তিনটি মাইক্রোবাস ও ২০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।

তবে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মহসীন আলম বলেন, বিএনপির মনোনয়নবঞ্চিত প্রার্থীর সমর্থকরা জি এম সিরাজের গাড়িবহরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে। আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়।

ফরিদপুরের ভাঙ্গা, চরভদ্রাসন ও সদরপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ সংসদীয় আসনে প্রচারণা শুরুর প্রথম দিনই ভাঙ্গায় সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর তিনটি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর দুটি নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ১০ জন। সোমবার রাত ৮টার দিকে কাউলীবেড়া ইউনিয়নের লোচনগঞ্জ বাজার প্রথম এবং পরে একই ইউনিয়নের খাটরা গ্রামে, আজিমনগর ইউনিয়নের মুন্সীরবাজার ও কালামৃধা ইউনিয়নের সাওথার গ্রামসহ এ চারটি জায়গায় এ সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। ফরিদপুর-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ। এ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে কাজী জাফরউল্যাহকে হারিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এ বছরও তিনি (মজিবুর) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভোলা-৪ চরফ্যাশন-মনপুরা আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকবের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন আখন সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন, নির্বাচনের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্টের জন্য উসকানিমূলক অপপ্রচার চালাচ্ছে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী নাজিম উদ্দিন আলম।

তফসিল ঘোষণার পরও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপি নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলে জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল এই অভিযোগ তোলেন।

যশোর শহরের বিভিন্ন এলাকায় টানানো ধানের শীষ প্রতীকের পোস্টার গভীর রাতে ছিঁড়ে আগুনে পোড়ানোর অভিযোগ করেছেন  যশোর-৩ আসনের বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী অনিন্দ্য ইসলাম অমিত।

অন্যদিকে গতকাল সকাল ১১টায় শহরের কাজীপাড়ায় যশোর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী কাজী নাবিল আহমেদ নিজস্ব বাসভবনে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের বিএনপির প্রার্থী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ তাঁর আসনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তিনি বলেন, ‘ফরিদপুরে নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই। এখানে গত কয়েক দিনে পুলিশ ৮-১০ জন বিএনপির নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলায় আটক করেছে। সোমবার রাতে আমার বাড়িতেও হামলা করার চেষ্টা করা হয়েছিল।’

পটুয়াখালী-১ (সদর-মির্জাগঞ্জ-দুমকি) আসনে ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী আলতাফ হোসেন চৌধুরীর বাসভবনে প্রবেশে বাধাসহ পুলিশ লাঠিপেটা করেছে মর্মে জেলা রির্টানিং অফিসারের কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের নির্বাচনী এলাকার আওয়ামী লীগ কার্যালয় ভাঙচুর ও বিএনপির প্রচার গাড়িতে পাল্টাপাল্টি হামলার অভিযোগ উঠেছে। দুই পক্ষই রিটার্নিং অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছে।

মেহেরপুরের গাংনীতে বিএনপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপি। অভিযোগ করা হয়েছে, গতকাল সকাল ১১টার দিকে নেতাকর্মীরা যখন বিএনপি অফিসে আসতে থাকে, তখন ৮-১০ জন আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নামধারী দুর্বৃত্তরা অফিসে হামলা চালায় ও নির্বাচনী তাঁবু ছিঁড়ে ফেলে। সন্ধ্যায় বিএনপির প্রচার মাইক সাহারবাটি এলাকায় ভাঙচুর করা হয়।

নড়াইল-২ আসনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ফরিদুজ্জামান ফরহাদের লোহাগড়া উপজেলা নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনার জন্য বিএনপির প্রার্থী স্থানীয় যুবলীগকে দায়ী করেছেন।

রাজবাড়ী জেলা শহরের খলিফা পট্টিতে বিএনপির নির্বাচনী সমাবেশ দুর্বৃত্তদের হামলায় পণ্ড হয়ে গেছে। রাজবাড়ী-১ আসনের ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম এ অভিযোগ করেছেন। নাটোরের সিংড়ায় বিএনপির প্রার্থী দাউদার মাহমুদের নির্বাচনী পোস্টারে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার রাতে উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের ভাগনাগরকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া একই রাতে সুকাশ ইউনিয়নের জয়কুঁড়ি বাজারে আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে বিএনপির নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর এবং আমিনুল নামে যুবদলের এক নেতাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতারা। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওহিদুর রহমান শেখ বলেন, বিএনপি নেতারা নিজেরাই পোস্টার পুড়িয়ে আওয়ামী লীগের ওপর দোষ চাপাচ্ছেন।

যশোর-৬ কেশবপুর আসনে গতকাল বিকেলে বিএনপির প্রার্থী আবুল হোসেন আজাদের দুটি প্রচার মাইকের ব্যাটারি ছিনতাইসহ প্রচারকারীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। রাজশাহীতে বিভিন্ন স্থানে নৌকা ও ধানের শীষের প্রতীক নষ্ট করা ছাড়াও বিএনপির অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ করা হয়েছে। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনের লিখিত অভিযোগও করা হয়েছে।  রাজশাহী-২ (সদর) আসনের রাজপাড়া থানার ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ধানের শীষ প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরের অভিযোগ করা হয়েছে। অন্যদিকে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা এলাকায় নৌকা প্রতীকে কে বা কারা সোমবার রাতে অগ্নিসংযোগ করে।

সাতক্ষীরার সদর আসনের বৈকারি, ঘোনা ও আলিপুর ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীকের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে দুর্বৃত্তরা। বৈকারি ইউনিয়নের কয়েকটি বাড়িতে হামলারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। সাতক্ষীরা সদর আসনে এবার জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আব্দুল খালেক ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন।

নারায়ণগঞ্জের পাঁচটি আসনে থাকা বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন, এখনো ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হয়নি। তাঁরা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করতে জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে দাবি জানিয়েছেন। এ লক্ষ্যে যা করার দরকার তা করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার রাব্বী মিয়া।

খাগড়াছড়িতে ধানের শীষ সমর্থকদের ওপর হামলা এবং নৌকা প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি প্রার্থী শহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া। জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. শহিদুল ইসলাম জানান, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা প্রতিমন্ত্রী পদমর্যাদায় শরণার্থী টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান। অথচ পতাকা ও সরকারি গাড়ি ব্যবহার করছেন না।

ঢাকা-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহম্মেদের শ্যামপুরের বাসা লক্ষ্য করে দুষ্কৃতকারীরা ককটেল নিক্ষেপ করেছে। গতকাল রাতে এ ঘটনা ঘটে। সালাহউদ্দিন আহম্মেদের ছেলে তানভীর আহম্মেদ রবিন কালের কণ্ঠকে বলেন, রাত ৯টার দিকে বাসার গেটের সামনে বিকট শব্দে পরপর দুটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় তাঁরা বাসার ভেতরে মহিলা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণার মিটিং করছিলেন।

মন্তব্য