kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

তাবিথ বললেন

নির্বাচনী মাঠ থেকে সরানোর চেষ্টা করবে আ. লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিটি নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটের মাঠে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে ঢাকা উত্তরে বিএনপি মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ আপ্রাণ চেষ্টা করবে আমাদের নির্বাচন থেকে সরিয়ে দিতে। এ জন্য তারা হামলা করবে, মামলা করবে। কিন্তু আমাদের সাহসী মন নিয়ে নির্বাচনের মাঠে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। ডেঙ্গু ও দুঃশাসন থেকে মুক্তির তারিখ ১ ফেব্রুয়ারি। এদিন শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিয়ে ধানের শীষের বিজয় নিশ্চিত করতে হবে।’ গতকাল শুক্রবার সকালে বাড্ডার লুৎফন টাওয়ারের সামনে এক পথসভায় তিনি এ কথা বলেন।

তাবিথ বলেন, ‘সকলকে বলছি সাহসের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ থাকবেন। উনারা (আওয়ামী লীগ) আপ্রাণ চেষ্টা করবে আমাদের নির্বাচন থেকে সরিয়ে দিতে, যখন পারবে না তখন হামলা করবে, মামলা করবে। উনারা ভোটের মাঠে কোনো দিনই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে না। আমরা আমাদের সাহসী মন নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটকেন্দ্রে যাব।’ বিএনপির এই মেয়র পদপ্রার্থী আরো বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন ৫৪টি ওয়ার্ডে আমরা পায়ে হেঁটে প্রতিটি ভোটারের দ্বারে দ্বারে পৌঁছেছি, ভোট চেয়েছি, দোয়া চেয়েছি। জনগণের যে সাড়া আমি পেয়েছি, তাতে ধানের শীষের বিজয় কেউ রুখতে পারবে না।’

পথসভায় জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘এই নির্বাচন গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার নির্বাচন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির নির্বাচন। সরকার ধানের শীষের বিজয় ঠেকাতে পারবে না। তারা ভয় পেয়ে গেছে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘প্রতিনিয়ত আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা আচরণবিধি লঙ্ঘন করছে। নির্বাচন কমিশন যদি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ আমলে না নেয়, তাহলে আপনারা নেতাকর্মীরাই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করবেন। ভোট চোরদের প্রতিহত করতে হবে। কেন্দ্র পাহারা দিতে হবে।’

পথসভায় আরো বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রমুখ। এ সময় ২১ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এ জি এম শামসুল আলম ও ৩৮, ৩৯, ৪০ (সংরিক্ষত) ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আয়েশা আক্তার মিলি এবং ১৯, ২০, ২১ নম্বর (সংরক্ষিত) ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী পেয়ারা মোস্তাফা ও ৩৭, ৪২, ৪৩ নং (সংরক্ষিত) ওয়ার্ডের প্রার্থী সালেয়া ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা