kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সিটি ভোটে সেনা নামছে না : ইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সশস্ত্র বাহিনীকে মাঠে নামাবে না নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনে কমিশন বৈঠক শেষে ইসি সচিব মো. আলমগীর এ কথা জানান। তিনি বলেন, ‘ঢাকার ভোটে সেনা নামানোর কোনো পরিকল্পনা নেই।’

ইসি সচিব বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনে সেনাবাহিনীর দায়িত্ব থাকে, সে নির্বাচনে তাদের ডাকা হয়। এটি জাতীয় নির্বাচন নয়, স্থানীয় সরকার নির্বাচন। এখানে সেনাবাহিনীকে কোনো দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। ইভিএমে যাঁরা কাজ করবেন তাঁরা সেনাবাহিনীর ফোর্স না, টেকনিক্যাল লোক। যাঁরা ইভিএমের এক্সপার্ট, শুধু তাঁদের রাখা হবে।’

এর আগে ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত বিভক্ত ঢাকা সিটির প্রথম নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু নির্বাচনী মাঠে তাদের দেখা যায়নি। পরে নির্বাচন কমিশন থেকে বলা হয়েছিল,  তাদের রিজার্ভ ফোর্স হিসেবে ক্যান্টনমেন্টে প্রস্তুত রাখা হয়েছিল।

এবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয় জানায়, সেনাবাহিনী মাঠে না থাকলেও ভোটকেন্দ্রে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ভোটগ্রহণে সহায়তায় থাকবেন। এ ক্ষেত্রে তাঁরা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পরিচালনায় টেকনিক্যাল টিম হিসেবে সহায়তা দেবেন। সশস্ত্র বাহিনীর নিরস্ত্র পাঁচ হাজারের বেশি সদস্য মোতায়েন থাকবেন ভোটকেন্দ্রে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের মাঠ পর্যায়ে দেখা না যাওয়ার অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, ‘আমরা বিভাগীয় কমিশনারের সঙ্গে বেশ কয়েকবার কথা বলেছি। তাঁরা বলেছেন সব ম্যাজিস্ট্রেটকে তাঁরা ভিজিবল করার চেষ্টা করছেন। তবে সব সময় যে ম্যাজিস্ট্রেটরা জানিয়ে যাবেন তা নয়, কিছু সময় তদন্ত করতে হলে গোপনে যেতে হয়। এ জন্যই হয়তো সবার সামনে ভিজিবল হচ্ছে না। কিন্তু রিপোর্ট তাঁরা ঠিকই দিচ্ছেন।’

বিএনপির ব্যালটে ভোটের দাবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সরাসরি এ ধরনের দাবি করেছে বলে আমার মনে হয়নি। লিখিত কিছু থাকতে পারে। কোনো নির্দেশ থাকলে আমি নোট করি। আমার কাছে লিখিত অভিযোগ পৌঁছেনি। কমিশন এখন পর্যন্ত ব্যালটে ভোটের কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।’

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী, ইসি সচিব মো. আলমগীর, অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান প্রমুখ। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা