kalerkantho

সোমবার । ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

কেন্দ্রীয় নেতাদের অংশগ্রহণে চাঙ্গা তাবিথের প্রচারণা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কেন্দ্রীয় নেতাদের অংশগ্রহণে চাঙ্গা তাবিথের প্রচারণা

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারণায় দলটির শীর্ষস্থানীয় নেতাদের অংশগ্রহণে উৎসবমুখর হয়ে ওঠে প্রচারণা। তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী প্রচারণায় গতকাল সোমবার সকালে মাঠে নামেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর গতকাল বিকেলে প্রচারণায় যোগ দেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জয়নুল আবেদীন ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে মির্জা ফখরুলসহ সিনিয়র নেতারা অংশ নিলে মিরপুর ৬ নম্বর বাজারের বিপরীত পাশে জড়ো হয় দলের কর্মী-সমর্থক ও সাধারণ মানুষ। পরে মির্জা ফখরুল, তাবিথ আউয়াল ও সেখানকার কাউন্সিলর পদপ্রার্থী দেলোয়ার হোসেনসহ (ঘুড়ি প্রতীক) বিপুলসংখ্যক কর্মী-সমর্থক শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উত্তর-পশ্চিম পাশ এবং আশপাশের এলাকায় লিফলেট বিতরণ করেন। এ সময় কর্মী-সমর্থকরা ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, ধানের শীষে ভোট চাই’, ‘ভোট দিবেন কিসে, ধানের শীষে’, ‘ভোট দিবেন হাসিয়া, ধানের শীষ দেখিয়া’ ইত্যাদি স্লোগানে সেখানকার পরিবেশ মুখরিত করে তোলেন। প্রায় এক কিলোমিটার পায়ে হেঁটে প্রচার চালান মির্জা ফখরুল।

গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মিরপুর বাইতুল মোশাররফ জামে মসজিদের সামনে থেকে তাবিথ আউয়ালকে নিয়ে গণসংযোগ শুরুর আগে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘এই নির্বাচনকে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। জনগণকে এ মুক্তি আন্দোলনে সম্পৃক্ত করতে আমরা নির্বাচনে এসেছি।’ তিনি বলেন, ‘তাবিথ আউয়ালের পক্ষে, ধানের শীষের পক্ষে যে গণজোয়ার দেখেছি তা অভূতপূর্ব। আমরা মনে করি নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হলে অবশ্যই তাবিথ আউয়াল বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।’

নির্বাচনের তারিখ পেছানো নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ইসি আগে  থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেনি। তারা সব সময় অযোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছে।’

পরে দুপুরের দিকে তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে যোগ দেন আ স ম আবদুর রব, আবদুল মঈন খান, মোয়াজ্জেম  হোসেন আলাল। তাঁরা ১১ নম্বর সেকশনে সি ব্লকের ৩ নম্বর এভিনিউতে পথসভায় বক্তব্য দেন।

আ স ম রব বলেন, ‘সরকার এর আগেও ভোট চুরি করেছে, এখন আবার ইভিএমের মাধ্যমে ভোট চুরি করতে চাইছে। আপনারা ভোট দিতে যাবেন, নিজের ভোট নিজে প্রয়োগ করবেন।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা