kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩০ জমাদিউস সানি ১৪৪১

আন্ত সংস্থা সমন্বয়ের প্রতিশ্রুতি আতিকের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আন্ত সংস্থা সমন্বয়ের প্রতিশ্রুতি আতিকের

মেয়র নির্বাচিত হলে নগর পরিচালনার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সব কয়টি সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় সাধনের আশ্বাস দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। একই সঙ্গে ঢাকা ওয়াসাসহ অন্য সংস্থাগুলোকে জবাবদিহির আওতায় আনার পরিকল্পনা নিয়েছেন তিনি। গতকাল সোমবার রাজধানীর খিলক্ষেত রেলগেটের পূর্ব পাশে গণসংযোগ-পরবর্তী জনসভায় এসব প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘সেবা সংস্থাগুলোর কাজ দ্রুত হোক তা জনগণের প্রত্যাশা। দ্রুত সেবা না পেলে সিটি করপোরেশনে যান নগরবাসী। সমস্যার কথাও সিটি করপোরেশনে জানান সবাই। তাই নগরবাসীর চাহিদা পূরণে সমন্বয় অত্যন্ত জরুরি।’

গতকাল আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী এবং খিলক্ষেত, দক্ষিণখান এবং ভাটারা থানা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে ১১তম দিনের প্রচার চালিয়েছেন আতিকুল ইসলাম। গণসংযোগের সময় আচরণবিধি লঙ্ঘিত হচ্ছে না বলে ভোটার ও সাংবাদিকদের জানান তিনি।

তাবিথ আউয়ালের উদ্দেশে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার প্রতিপক্ষ, আমার ভাতিজা তাবিথ বলেছেন আমি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছি। তিনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের কথা বলবেন, আমি বলব কিভাবে এলাকার উন্নয়ন করা যায়। আমি কোনো অভিযোগ করতে চাই না, আমি চাই মানুষের সমস্যা কিভাবে সমাধান করা যায় সে বিষয়ে ভাবতে। কাজেই প্রতিপক্ষ অভিযোগ করবে; কিন্তু আমি উন্নয়নের বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দেব।’

খিলক্ষেত এলাকায় জনসংযোগের সময় স্থানীয়দের কাছে এলাকার সমস্যাগুলো জানতে চান আতিকুল ইসলাম। এ সময় মেয়র প্রার্থীকে এলাকার অনেক সমস্যার ব্যাপারে জানায় ভোটাররা।

খিলক্ষেত রেললাইন এলাকার বাসিন্দা মমতাজ উদ্দিন মেয়র প্রার্থীকে বলেন, ‘খিলক্ষেত এলাকায় বর্ষাকালে পানি জমে যায় রাস্তায়। এ ছাড়া ভালো মানের একটি কাঁচাবাজার নেই পুরো এলাকায়। রেললাইনের পাশে ভ্রাম্যমাণ একটি বাজার এলাকাবাসীর ভরসা। এ ছাড়া কমিউনিটি সেন্টার এবং ছেলে-মেয়েদের জন্য খেলার মাঠ বা পার্ক নেই।’

মমতাজ উদ্দিনের মতো এমন অভিযোগ এলাকাটির অনেক বাসিন্দার। অভিযোগ শোনার পর মেয়র বলেন, ‘বাজার না থাকার বিষয়টি খিলক্ষেত এলাকার বাসিন্দাদের জন্য দুঃখজনক। নির্বাচিত হলে এই এলাকায় একটি অত্যাধুনিক বাজার করব। এ ছাড়া একটি কমিউনিটি সেন্টার এবং একটি মাঠ তৈরির উদ্যোগ নেব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা