kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা, প্রস্তুত থাকবে বিজিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরশেনের নির্বাচনে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। ভোটের দিন ভোটকেন্দ্র এলাকায় পুলিশ, র‌্যাব ও আনসারের বিপুলসংখ্যক সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবেন। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশও (বিজিবি) প্রস্তুতি নিয়ে থাকবে। প্রয়োজন হলেই ডাক পড়বে তাদের। এ ছাড়া দুই সিটিতে দুটি করে সাবকন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হচ্ছে। আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ অস্ত্র পরিবহন, বহন ও প্রদর্শন করা যাবে না।

নির্বাচনের দিন ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় কোনো মোটরসাইকেল, ট্যাক্সি ক্যাব, ট্রাক, ইজি বাইক চলবে না। সীমিত আকারে পাবলিক বাস চলবে।

গতকাল রবিবার বিকেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফ মাহমুদ অপু। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে সভায় মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব (জননিরাপত্তা বিভাগ) মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, আইজিপি মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলামসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় নির্বাচনটি অবাধ ও সুষ্ঠু করতে কী ধরনের নিরাপত্তার আয়োজন করা যায় সে বিষয়ে বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মতামত নেওয়া হয়। সবার আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত হয়, প্রত্যেক ভোটকেন্দ্রে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ১ ফেব্রুয়ারি দুই সিটির ১৭২টি ওয়ার্ডে দুই হাজার ৪৮৬টি ভোটকেন্দ্রে একযোগে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। স্বাভাবিক নিরাপত্তার পাশাপাশি ভোটকেন্দ্রে মোবাইল টহল, গোয়েন্দা টিমসহ প্রয়োজনীয় নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকবে। নির্বাচন কমিশনের চাহিদা অনুযায়ী আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সার্বিক সহযোগিতা করবে। সাইবার ক্রাইম নিয়ন্ত্রণে সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং করা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা