kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

ওয়ার্ডভিত্তিক নেতৃত্বে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা

সিটি নির্বাচনে জোরদার প্রচারের লক্ষ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রচারের জন্য ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কমিটি করেছে বিএনপি। আর পরিকল্পনা অনুযায়ী সঠিকভাবে জোরদার প্রচার নিশ্চিত করতে কমিটিগুলোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় নেতাদের। উপরন্তু কমিটিগুলোর কার্যক্রম তদারকিতে আছেন সিনিয়র নেতারা। ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, কেন্দ্রীয় নেতাদের বিভিন্ন ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। বিএনপির পাশাপাশি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারাও পৃথকভাবে তাঁদের দায়িত্ব পালন করছেন।

উত্তর সিটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা হলেন শাহজাদা মিয়া (ওয়ার্ড-১), অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন (২), অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন (৩), জয়নুল আবদিন ফারুক (৪), অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল (৫), জয়নুল আবদিন ফারুক (৬), সাখাওয়াত হোসেন বকুল (৭), নজরুল ইসলাম মঞ্জু (৮), মাহবুবের রহমান শামীম (৯), গোলাম আকবর খন্দকার (১০), নাজিম উদ্দিন আলম (১১), ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন (১২ ও ১৩), আবুল খায়ের ভূঁইয়া (১৪), মেজর (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী (১৫), মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল (১৬), অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান (১৭), মশিউর রহমান (১৮), মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ (১৯), মিজানুর রহমান মিনু (২০), শামসুজ্জামান দুদু (২১), এ বি এম মোশাররফ হোসেন (২২), আবুল হোসেন খান (২৩), ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন (২৪-২৫), কামরুজ্জামান রতন (২৬), আবুল খায়ের ভূঁইয়া (২৭), অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন (২৮), আতাউর রহমান ঢালী (২৯), শাহ মো. আবু জাফর (৩০), মজিবর রহমান সরোয়ার (৩১-৩২), আতাউর রহমান ঢালী (৩৩-৩৪), আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী (৩৫), রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু (৩৬), শামসুজ্জামান দুদু (৩৭), সেলিম রেজা হাবিব (৩৮), আলী নেওয়াজ খৈয়াম (৩৯), হেলাল খান (৪০), শরীফুল আলম (৪১-৪২), মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল (৪৩), শামা ওবায়েদ (৪৪-৪৬), ডা. শাখাওয়াৎ হাসান জীবন (৪৭), কলিম উদ্দিন আহমেদ মিলন (৪৮), আব্দুল গফুর ভূঁইয়া (৪৯), ডা. শাখাওয়াৎ হাসান জীবন (৫০), দেওয়ান সালাহউদ্দিন বাবু (৫১-৫২), হুমায়ুন কবির খান (৫৩) ও কাজী ছায়েদুল ইসলাম বাবুল (৫৪ নম্বর ওয়ার্ড)।

ঢাকা দক্ষিণে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের বিভিন্ন ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেওয়ার পাশাপাশি সূত্রাপুর, শ্যামপুর, শাহজাহানপুর ও ধানমণ্ডি জোনে ভাগ করে কিছু নেতাকে পৃথকভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ওয়ার্ড ও জোনের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা হলেন আকরামুল হাসান (ওয়ার্ড-১), মাহবুবের রহমান শামীম, মশিউর রহমান বিপ্লব ও ব্যারিস্টার মীর হেলাল (২), আনোয়ার হোসেন (৩), হায়দার আলী লেলিন (৪), অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম (৫), মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল (৬), এম এ মালেক (৭), হাবিবুল ইসলাম হাবিব (৮), শহীদ উল্লাহ তালুকদার ও আব্দুল খালেক (৯), শহীদ উল্লাহ তালুকদার (১০), রাজিব আহসান (১১), কাজী মফিজুর রহমান (১২), অনিন্দ ইসলাম অমিত ও শহীদ উল্লাহ তালুকদার (১৩), শেখ রবিউল ইসলাম রবি (১৪), সরদার শাখাওয়াত হোসেন বকুল (১৫), রাশেদা বেগম হিরা (১৬), খালেদা ইয়াসমিন (১৭), হারুন অর রশিদ (১৮), মীর শরাফত আলী সপু (১৯), হারুন অর রশিদ (২০), শাম্মী আক্তার (২১), আব্দুল বারী ড্যানী (২২), ওয়ারেস আলী মামুন (২৩), আসাদুল করিম শাহীন (২৪), খালেদা ইয়াসমিন (২৫), মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ (২৬, গত বুধবার গ্রেপ্তার হয়েছেন), নিলুফার চৌধুরী মনি (২৭), নুরজাহান মাহবুব (২৮), সাবেরা নাজমুন মুন্নী (২৯), খালেদা ইয়াসমিন (৩০), ডা. রফিকুল ইসলাম বাচ্চু (৩১), লায়লা বেগম (৩২), ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন বকুল (৩৩), রফিকুল ইসলাম রাসেল (৩৪), খন্দকার আব্দুল হামিদ ডাবলু (৩৫), অপর্ণা রায় দাস (৩৬), হাসান উদ্দিন মোল্লা ও মীর শরাফত আলী সপু (৩৭), কামরুজ্জামান রতন ও হামিদুর রহমান হামিদ (৩৮), কামরুজ্জামান ইয়াহিয়া খান মজলিস (৩৯), তমিজ উদ্দিন (৪০), মোস্তাফিজুর রহমান দিপু (৪১), জাকির হোসেন ভূঁইয়া (৪২), সিরাজুল হক (৪৩), খোরশেদ আলম মিয়া (৪৪), ফাহিমা নাসরিন মুন্নী (৪৫), তকদির হোসেন জসিম (৪৬), গৌতম চক্রবর্তী (৪৭), মাওলানা শাহ নেছারুল হক (৫১), অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম (৫২), আ ক ম মোজাম্মেল হক (৫৩), অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম (৫৪), মাসুদ অরুণ (৫৫), আবু বক্কর সিদ্দিক (৫৬), দেবাশীষ রায় মধু (৫৭), নাজিম উদ্দিন মাস্টার (৫৮), কাজী রফিকুল ইসলাম (৫৯), অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন (৬০), শেখ মো. শামীম (৬১), এ টি এম কামাল (৬২), অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া (৭১), অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ (৭২), ইঞ্জিনিয়ার রিয়াজুল ইসলাম রিজু (৭৩) ও নাজিম উদ্দিন আলম (৭৪-৭৫)। এ ছাড়া ৬৩ থেকে ৭০ নম্বর ওয়ার্ড পর্যন্ত জোন ভাগ করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

শাহজাহানপুর জোনে রয়েছেন মির্জা আব্বাস, মিজানুর রহমান মিনু, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, খায়রুল কবীর খোকন, ফজলুল হক মিলন, শিরিন সুলতানা, আফরোজা আব্বাস, হাবিবুর রশীদ হাবিব ও রফিকুল আলম মজনু। সূত্রাপুর জোনে রয়েছেন আব্দুস সালাম, নিতাই রায় চৌধুরী, আব্দুল হালিম, এ এস এম আব্দুল হাই, কবি আব্দুল হাই শিকদার, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, ডা. শাখাওয়াৎ হোসেন জীবন, কামরুজ্জামান রতন ও কাজী আবুল বাশার। শ্যামপুর জোনে রয়েছেন সালাহউদ্দিন আহমদ, শওকত মাহমুদ, জয়নাল আবদীন (ভিপি), রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু ও নজরুল ইসলাম মঞ্জু। ধানমণ্ডি জোনে রয়েছেন ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, আব্দুল মান্নান, আমানউল্লাহ আমান (অসুস্থ), আবুল খায়ের ভূঁইয়া, ড. সুকোমল বড়ুয়া, আসাদুল হাবিব দুলু, শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি ও হেলেন জেরিন খান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা