kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

ইসি ইচ্ছা করেই পূজার দিনে ভোট দিয়েছে : তাবিথ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইসি ইচ্ছা করেই পূজার দিনে ভোট দিয়েছে : তাবিথ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপি মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল গতকাল গ্রিন রোড এলাকায় প্রচারণা চালান। ছবি : কালের কণ্ঠ

নির্বাচন কমিশন (ইসি) ইচ্ছা করেই পূজার দিনে ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তাবিথ আউয়াল। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে (ডিএনসিসি) বিএনপি মনোনীত এই মেয়র পদপ্রার্থী গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পান্থপথে গণসংযোগ শুরুর সময় এ কথা বলেছেন।

ধানের শীষের এই প্রার্থী বলেন, ‘বছরের কখন কোন পূজা তা সবারই জানা। নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণের সময় পূজা সম্পর্কে নির্বাচন কমিশনও জানত। আমরা মনে করি, কমিশন ইচ্ছাকৃতভাবে এ রকম একটা তারিখ দিয়েছে। এর মাধ্যমে প্রমাণ হয়, সরকার সব ধর্মকে একভাবে দেখে না, একভাবে সম্মান করে না। এর মাধ্যমে সরকারের মুখোশ খুলে গেছে।’

তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘নির্বাচনী প্রচারে বিএনপির গণজোয়ার দেখে সরকারি দলের প্রার্থীরা ভয় পেয়েছেন বলেই উল্টো বিএনপির প্রার্থীদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করছেন। নির্বাচনী পরিবেশ সকালে এক রকম আর বিকেলে আরেক রূপ ধারণ করছে। সকালে প্রচার চালাতে পারলেও বিকেলেই বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীসহ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করা হয়। গতকাল (বুধবার) রাতেও প্রতিপক্ষের হামলায় বিএনপির এক কাউন্সিলর প্রার্থীসহ কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন।’ আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের ভয় দেখানোর চেষ্টা না করে ভোটারদের কাছে যান, ভোট চান।’

এই মেয়র পদপ্রার্থী বলেন, ‘প্রচারে নেমে আমরা জনগণের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। তাঁরা অপেক্ষায় আছেন ৩০ জানুয়ারি ভোট দেওয়ার জন্য। প্রত্যাশা করছি, পূজার দিনে ভোটের তারিখ নির্ধারণে ক্ষতিগ্রস্ত নগরবাসী ধানের শীষে ভোট দিয়ে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের প্রতি তাঁদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাবেন।’

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে ইসির প্রতি আহ্বান জানান তাবিথ। তিনি বলেন, ‘দেশের বেশির ভাগ রাজনৈতিক দল ও ভোটাররা ইভিএম ব্যবহারের বিপক্ষে থাকলেও ইসি এখনো ইভিএম ব্যবহার করা-না করার বিষয়ে আমাদের কিছুই জানায়নি। ইভিএমের সফটওয়্যার ও এর ব্যবহারের নানা বিষয় নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও এখনো তারা সেগুলো পরিষ্কার করেনি। ঢাকা শহরের ৩০ লাখ ভোটার এখনো ইভিএম পদ্ধতি রপ্ত করতে পারেনি। তা ছাড়া এটি একটি ত্রুটিপূর্ণ পদ্ধতি, এর মাধ্যমে ভোট চুরির সুযোগ থেকে যায়।’

বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী গতকাল বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সের সামনে থেকে প্রচার শুরু করে পর্যায়ক্রমে গ্রিন রোড, আনন্দ সিনেমা হলের পাশ দিয়ে তেজগাঁও কলেজ, ইন্দিরা রোড, খামারবাড়ি, মনিপুরীপাড়া, আওলাদ হোসেন মার্কেট হয়ে আগারগাঁও এলজিইডি ভবন, ৬০ ফুট সড়ক ধরে পীরেরবাগ, রোকেয়া সরণি, তালতলা স্টাফ কোয়ার্টার, পানির ট্যাংকি রোড ও শ্যামলী ১ নম্বর রোডে প্রচার চালান।

প্রচারকালে তাবিথের সঙ্গে ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, নিপুণ রায় চৌধুরী, ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তরের সহসভাপতি বজলুল বাসিত আঞ্জু, যুবদল সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা সুলতানা আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা