kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

এইচএসসি : অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন পদার্থবিজ্ঞান প্রথম পত্র

বিশ্বজিৎ দাস, সহকারী অধ্যাপক, দিনাজপুর সরকারি কলেজ দিনাজপুর

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



এইচএসসি : অধ্যায়ভিত্তিক প্রশ্ন পদার্থবিজ্ঞান প্রথম পত্র

অঙ্কন : মাসুম

সপ্তম অধ্যায়

পদার্থের গাঠনিক ধর্ম

জ্ঞানমূলক প্রশ্ন

১। আন্তঃআণবিক বল কাকে বলে?

উত্তর : পদার্থের অণু বা কণাগুলো আন্তঃআণবিক দূরত্বে থেকে একে অপরকে আকর্ষণ করে। একে আন্তঃআণবিক বল বলে।

২।

বিজ্ঞাপন

সাম্য বা সুস্থিতি দূরত্ব কী?

উত্তর : কণাগুলোর মধ্যে যখন আন্তঃআণবিক আকর্ষণ ও বিকর্ষণ বল সমান হয়, তখন নিট বল শূন্য হয় এবং স্থিতিশক্তি সর্বনিম্ন হয় এবং কণাগুলোর মধ্যবর্তী দূরত্বকে সাম্য বা সুস্থিতি দূরত্ব বলে।

৩। আয়নিক বন্ধন বলতে কী বুঝো?

উত্তর : বিপরীতধর্মী আয়নের পারস্পরিক মিথস্ক্রিয়ার ফলে যে বন্ধনের সৃষ্টি হয় তাকে আয়নিক বন্ধন বলে। যেমন—NaCl।

৪। সমযোজী বন্ধন কাকে বলে?

উত্তর : পাশাপাশি দুটি পরমাণুর প্রত্যেকে একটি করে ইলেকট্রন প্রদান করে যে ইলেকট্রন জোড়া সৃষ্টি করে তার সাথে ওই পরমাণুদ্বয়ের সমান অংশীদারিত্বের ফলে যে বন্ধন সৃষ্টি হয় তাকে সমযোজী বন্ধন বলে। যেমন—হাইড্রোজেন, নাইট্রোজেন, সিলিকন, জারমেনিয়াম ইত্যাদির বন্ধন।

৫। ধাতব বন্ধন কী? 

উত্তর : কোনো ধাতুর মাধ্যমে যে বন্ধন শক্তিতে পরমাণু পরস্পরের সাথে আটকে থাকে তাকে ধাতব বন্ধন বলে।

৬। আণবিক বন্ধন বা ভ্যান্ডার ওয়ালস বলজনিত বন্ধন বলতে কী বুঝ?  

উত্তর : কাছাকাছি অবস্থিত পরমাণু বা অণুসমূহের মধ্যে এক প্রকার সর্বজনীন দুর্বল বলের ক্রিয়ায় অতি সাধারণ যে ধরনের বন্ধন সৃষ্টি হয় তাকে আণবিক বন্ধন বলে। এ ধরনের সর্বজনীন দুর্বল বলকে ভ্যান্ডার ওয়ালস বল বলে। তাই এ বন্ধনকে ভ্যান্ডার ওয়াল বলজনিত বন্ধনও বলে। যেমন—O2, H2, CH4 ইত্যাদি।

৭। স্থিতিস্থাপকতা কাকে বলে?

উত্তর : যে ধর্মের গুণে বলের ক্রিয়ায় বিকৃত বস্তু প্রযুক্ত বল অপসারণে বস্তু তার সাম্যাবস্থায় ফিরে আসে বা আসতে চায়, সেই ধর্মকে স্থিতিস্থাপকতা বলে এবং ওই বস্তুকে স্থিতিস্থাপক বস্তু বলে।

৮। নমনীয় বস্তু কী?  

উত্তর : বল প্রয়োগে বস্তু সাধারণ বিকৃত হয়। কোনো বিকৃতি বস্তুর ওপর বিকৃতিকারী বল অপসারণ করলে যদি বস্তু পূর্বের অবস্থায় ফিরে না যায় তাকে নমনীয় বস্তু বা অস্থিতিস্থাপক বস্তু বলে।

৯। পূর্ণ স্থিতিস্থাপক বস্তু বলতে কী বুঝো?  

উত্তর : কোনো বিকৃতি বস্তুর ওপর বিকৃতিকারী বল অপসারণ করলে যদি বস্তু সম্পূর্ণরূপে পূর্বের অবস্থা্য় ফিরে যায় তাকে পূর্ণ স্থিতিস্থাপক বস্তু বলে।

১০। পূর্ণ দৃঢ় বস্তু কাকে বলে? 

উত্তর : কোনো বস্তুর ওপর বিকৃতিকারী বল প্রয়োগ করার ফলে যদি বস্তুর আকার বা আকৃতির কোনো পরিবর্তন হয় না তাকে পূর্ণ দৃঢ় বস্তু বলে। বাস্তবে এ ধরনের বস্তু পাওয়া যায় না।

১১। স্থিতিস্থাপকতার সীমা কী?  

উত্তর : বাহ্যিক বলের সর্বোচ্চ যে সীমা পর্যন্ত কোনো বস্তু সম্পূর্ণ স্থিতিস্থাপক বস্তুর ন্যায় আচরণ করে তাকে স্থিতিস্থাপকতার সীমা বলে।

১২। অসহভার বা অসহওজন বা অসহবল বলতে কী বুঝো?  

উত্তর : সর্বাপেক্ষা কম যে ভারের ক্রিয়ায় কোনো বস্তু ভেঙে বা ছিঁড়ে যায় তাকে অসহভার বা অসহওজন বলে।

১৩। বিকৃতি বা বিকার কাকে বলে?

উত্তর : কোনো বস্তুর একক মাত্রায় মাত্রার যে পরিবর্তন হয় তাকে বিকৃতি বলে।

১৪। পার্শ্ববিকৃতি কী?

উত্তর : কোনো বস্তুর দৈর্ঘ্য বরাবর বল প্রয়োগ করলে প্রস্থের দিকে যে বিকৃতি ঘটে তাকে পার্শ্ববিকৃতি বলে।

১৫। পীড়ন বলতে কী বুঝো?

উত্তর : বস্তুর একক ক্ষেত্রের ওপর ক্রিয়ারত প্রতিক্রিয়ামূলক বলকে পীড়ন বলে।

১৬। দৈর্ঘ্য পীড়ন কাকে বলে? 

উত্তর : দৈর্ঘ্য বিকৃতি ঘটানোর জন্য কোনো বস্তুর একক ক্ষেত্রফলের ওপর দৈর্ঘ্য বরাবর প্রযুক্ত বলের পরিমাণকে দৈর্ঘ্য পীড়ন বলে।

১৭। আকার বা কৃন্তন বা ব্যবর্তন বা মোচড় পীড়ন কী?  

উত্তর : আকার বিকৃতির ঘটানোর জন্য কোনো বস্তুর একক ক্ষেত্রের ওপর যে স্পর্শীয় বল প্রয়োগ করতে হয় তার পরিমাণকে আকার বা কৃন্তন বা ব্যবর্তন বা মোচড় পীড়ন বলে।

১৮। আয়তন পীড়ন বলতে কী বুঝো? 

উত্তর : আয়তন বিকৃতি ঘটানোর জন্য কোনো বস্তুর একক ক্ষেত্রফলের ওপর প্রযুক্ত বলের পরিমাণকে আয়তন পীড়ন বলে।

১৯। অসহপীড়ন কাকে বলে? 

উত্তর : কোনো একটি বস্তুর একক ক্ষেত্রফলের ওপর প্রযুক্ত অসহভারকে অসহপীড়ন বলে।

২০। স্থিতিস্থাপক ক্লান্তি কী? 

উত্তর : স্থিতিস্থাপক সীমার মধ্যে কোনো বস্তুতে অনেকক্ষণ যাবৎ পীড়নের হ্রাস-বৃদ্ধি করলে বস্তুর স্থিতিস্থাপক ধর্ম লোপ পায়। তখন অসহভারের চেয়ে কম ভারে বস্তুটি ছিঁড়ে যায়। বস্তুর এই অবস্থাকে স্থিতিস্থাপক ক্লান্তি বলে।

২১। হুকের সূত্রটি লেখো।

উত্তর : ১৬৭৮ খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ বিজ্ঞানী রবার্ট হুক পীড়ন ও বিকৃতির মধ্যে যে সম্পর্ক প্রণয়ন করেন তাকে হুকের সূত্র বলে। সূত্রের বর্ণনা নিম্নরূপ :

স্থিতিস্থাপকতার সীমার মধ্যে কোনো বস্তুর পীড়ন এর বিকৃতির সমানুপাতিক।

২২। ইয়ংয়ের স্থিতিস্থাপক গুণাঙ্ক কাকে বলে? 

উত্তর : স্থিতিস্থাপকতার সীমার মধ্যে দৈর্ঘ্য পীড়ন ও দৈর্ঘ্য বিকৃতির অনুপাতকে ইয়ংয়ের স্থিতিস্থাপক গুণাঙ্ক বলে।

২৩। আয়তনের স্থিতিস্থাপক গুণাঙ্ক বা আয়তন মানাঙ্ক বা আয়তন গুণাঙ্ক কী?  

উত্তর : স্থিতিস্থাপকতার সীমার মধ্যে আয়তন পীড়ন ও আয়তন বিকৃতির অনুপাতকে আয়তনের স্থিতিস্থাপক মানাঙ্ক বা গুণাঙ্ক বলে।

২৪। সংনম্যতা বলতে কী বুঝো? 

উত্তর : আয়তন গুণাঙ্কের বিপরীত রাশিকে সংনম্যতা বলে।

২৫। পয়সনের অনুপাত কাকে বলে?

উত্তর : স্থিতিস্থাপক সীমার মধ্যে স্থিতিস্থাপক বস্তুর পার্শ্ববিকৃতি ও দৈর্ঘ্য বিকৃতির অনুপাতকে পয়সনের অনুপাত বলে।

২৬। স্থিতিস্থাপক বিভব শক্তি কী?  

উত্তর : বল প্রয়োগে কোনো স্থিতিস্থাপক বস্তু বিকৃত হলে ওই বল দ্বারা কাজ সম্পাদিত হয়। এ সম্পাদিত কাজ বস্তুতে বিভব শক্তিরূপে সঞ্চিত থাকে। এ শক্তিকে স্থিতিস্থাপক বিভব শক্তি বলে।



সাতদিনের সেরা